অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ ইতিহাস বদলে দিল ইংল্যান্ড

বিশ্বকাপ ক্রিকেট মানেই অস্ট্রেলিয়ার রাজত্ব। এই বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত ১১টি আসরে ৫টিতেই চ্যাম্পিয়ন অসিরা। এর মধ্যে আবার আছে হ্যাটট্রিক (টানা তিনবার) চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কৃতিত্বও।

বিশ্বকাপ ক্রিকেট মানেই অস্ট্রেলিয়ার রাজত্ব। এই বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত ১১টি আসরে ৫টিতেই চ্যাম্পিয়ন অসিরা। এর মধ্যে আবার আছে হ্যাটট্রিক (টানা তিনবার) চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কৃতিত্বও।

বোঝাই যাচ্ছে, নকআউট পর্বের চাপ নেয়ার সক্ষমতা অস্ট্রেলিয়ার চেয়ে বেশি আর কোনো দলের নেই। এবারের আগে সাতবার বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল খেলেছে অসিরা। সাতবারই উঠেছে ফাইনালে।

এর মধ্যে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে মোট পাঁচবার। ১৯৮৭ সালে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছিল অস্ট্রেলিয়া। এরপর ১৯৯৯, ২০০৩ আর ২০০৭ সালে টানা তিনবার চ্যাম্পিয়ন। সর্বশেষ চ্যাম্পিয়ন গত বিশ্বকাপে, ২০১৫ সালে। ফাইনালে উঠে তারা হেরেছে কেবল ১৯৭৫ আর ১৯৯৬ সালে।

সেমিফাইনালে উঠলে ফাইনালে উঠার রীতিটা এতদিন পর্যন্ত বজায় ছিল অস্ট্রেলিয়ার। এবার সে ইতিহাস বদলে দিল ইংল্যান্ড। সে দিন বদলের পথে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের নিয়ে রীতিমতো ছেলেখেলা খেলল ইংলিশরা।

শতভাগ সাফল্যের রেকর্ড নিয়ে মাঠে নামা অস্ট্রেলিয়া এবার শেষচারের মঞ্চে কোনো লড়াই-ই করতে পারলো না, রীতিমতো লুটিয়ে পড়লো। স্বাগতিক ইংল্যান্ড তাদের বিদায় বললো ৮ উইকেট আর ১০৭ বলের বড় ব্যবধানে জিতে।

Free Download WordPress Themes
Free Download WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
Download Nulled WordPress Themes
online free course