আল জাজিরার ফিক্সিংয়ের প্রমাণ পায়নি আইসিসি

২০১৮ সালের ২৭ মে ‘ক্রিকেট’স ম্যাচ ফিক্সারস’ নামে একটি ডকুমেন্টারি প্রকাশ করেছিল আল জাজিরা। ওই ডকুমেন্টারিতে তুলে ধরা অভিযোগ, সন্দেহভাজন ব্যক্তি ও যেভাবে ওই ডকুমেন্টারির জন্য প্রমাণ সংগ্রহ করা হয়েছিল সেই জিনিসগুলোর ওপর ভিত্তি করে তদন্ত পরিচালনা করেছে আইসিসি।

ক্রিকেটে ফিক্সিং নিয়ে ২০১৮ সালের ২৭ মে ডকুমেন্টারি প্রচার করেছিল টিভি চ্যানেল আল জাজিরা। যেখান বলা হয়েছিল ২০১৭ সালে ভারত-অস্ট্রেলিয়া রাচি টেস্ট ও ২০১৬ সালে ভারত-ইংল্যান্ড চেন্নাই টেস্টে স্পট ফিক্সিং হয়েছিল। আল জাজিরার এমন প্রতিবেদন প্রকাশ করার পর নড়েচড়ে বসেছিল আইসিসি।

যদিও দীর্ঘদিন তিন বছরের তদন্ত শেষে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি জানিয়েছে, বিশ্বাসযোগ্যতায় ঘাটতি ও নির্ভরযোগ্য প্রমাণের অভাবে সংশ্লিষ্ট কারও বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ আনা হচ্ছে না। সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিন বছরের তদন্তের ইতি টেনেছে আইসিসি।

২০১৮ সালের ২৭ মে ‘ক্রিকেট’স ম্যাচ ফিক্সারস’ নামে একটি ডকুমেন্টারি প্রকাশ করেছিল আল জাজিরা। ওই ডকুমেন্টারিতে তুলে ধরা অভিযোগ, সন্দেহভাজন ব্যক্তি ও যেভাবে ওই ডকুমেন্টারির জন্য প্রমাণ সংগ্রহ করা হয়েছিল সেই জিনিসগুলোর ওপর ভিত্তি করে তদন্ত পরিচালনা করেছে আইসিসি।

ফিক্সিংয়ের প্রমাণ সংগ্রহে আইসিসি চারজন স্বাধীন তদন্তকারীকে দায়িত্ব দিয়েছিল। যারা চারজনই কিনা বাজি ও ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ। তবে ম্যাচের যে অংশগুলো নিয়ে অভিযোগ করা হয়েছিল তাতে প্রমাণ পায়নি আইসিসির এই চার তদন্তকারী।

এ প্রসঙ্গে ইসিসির ‘ইন্টেগ্রিটি’ বিষয়ক মহাব্যবস্থাপক অ্যালেক্স মার্শাল বলেন, ডকুমেন্টারিতে তুলে ধরা অভিযোগগুলোর ভিত্তি মজবুত নয়। ক্রিকেটে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে প্রতিবেদনকে আমরা স্বাগত জানাই, কারণ খেলায় এসবের কোনো স্থান নেই। তবে কারও বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করতে হলে আমাদের হাতে পর্যাপ্ত প্রমাণ থাকতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘প্রচারিত অনুষ্ঠানে যে দাবিগুলো করা হয়েছে, প্রতিটিরই মৌলিক ভিত্তি দুর্বল বলে দেখা গেছে আমাদের তদন্তে, যা অভিযোগগুলোকে অসম্ভাব্য করেছে এবং বিশ্বাসযোগ্যতায় ঘাটতি থেকে গেছে। আমাদের চার জন স্বাধীন বিশেষজ্ঞও এমনটিই মনে করেন।’

Download WordPress Themes Free
Download Premium WordPress Themes Free
Download Best WordPress Themes Free Download
Free Download WordPress Themes
free online course