একীভূত হচ্ছে না টেলিনর-আজিয়াটা

এশিয়ার টেলিকম বাজারের দখল নিতে ব্যবসা একীভূত করার পরিকল্পনা নিয়েছিল বিশ্বের দুই বৃহৎ মোবাইল ফোন অপারেটর প্রতিষ্ঠান নরওয়েভিত্তিক টেলিনর ও মালয়েশিয়াভিত্তিক আজিয়াটা। তবে শেষ পর্যন্ত তারা সেই পরিকল্পনা থেকে পিছু হটেছে। 

এশিয়ার টেলিকম বাজারের দখল নিতে ব্যবসা একীভূত করার পরিকল্পনা নিয়েছিল বিশ্বের দুই বৃহৎ মোবাইল ফোন অপারেটর প্রতিষ্ঠান নরওয়েভিত্তিক টেলিনর ও মালয়েশিয়াভিত্তিক আজিয়াটা। তবে শেষ পর্যন্ত তারা সেই পরিকল্পনা থেকে পিছু হটেছে।

শুক্রবার টেলিনর জানিয়েছে, লেনদেনে জটিলতার কারণে আজিয়াটার সঙ্গে একীভূত হওয়ার আলাপ-আলোচনা বাদ দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশে গ্রামীণফোন ও রবির ব্যানারে ব্যবসা করে যথাক্রমে টেলিনর ও আজিয়াটা। খবর এএফপির।

বাংলাদেশসহ এশিয়ার ৯টি দেশের টেলিকম বাজারের দখল নিতে গত মে মাসে এশিয়ার ব্যবসা একীভূত করতে যাচ্ছে বলে ঘোষণা দিয়েছিল টেলিনর ও আজিয়াটা। সে ক্ষেত্রে ৯টি দেশে ৩০ কোটি গ্রাহক ও ৬০ হাজার টাওয়ার নিয়ে নতুন ওই কোম্পানি হতো এশিয়ার টেলিকম খাতের অন্যতম বৃহৎ শক্তি। একীভূত হলে ওই কোম্পানির সম্মিলিত ব্যবসার পরিমাণ দাঁড়াত বছরে ১৩০০ কোটি ডলার, আয়ের পরিমাণ হতো ৫৫০ কোটি ডলারের মতো। চুক্তি হিসেবে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে সদর দপ্তর করে যৌথ ব্যবসায় টেলিনর হতো ৫৬.৫ শতাংশ শেয়ারের মালিক এবং আজিয়াটার হাতে থাকত বাকি ৪৩.৫ শতাংশ। শেষ পর্যন্ত তা আর হলো না।

টেলিনর বিবৃতিতে জানায়, দু’পক্ষই এ বিষয়ে আপাতত আলোচনা এগিয়ে না নেওয়ার ব্যাপারে সম্মত হয়েছে। এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, পাকিস্তান ও মিয়ানমারে ব্যবসা করে টেলিনর। আজিয়াটা ব্যবসা করে বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া, কম্বোডিয়া, নেপাল, শ্রীলংকা ও ইন্দোনেশিয়ায়।

Download WordPress Themes Free
Free Download WordPress Themes
Download Best WordPress Themes Free Download
Premium WordPress Themes Download
free download udemy course