ওষুধ ছাড়াই অ্যালার্জিকে বিদায় জানান

অধিকাংশ মানুষ অ্যালার্জি সমস্যায় ভুগছেন। ব্যক্তিজীবনে অ্যালার্জি যে কত ভয়ঙ্কর তা শুধু ভুক্তভোগীরাই জানেন। নানা উপায় অবলম্বন করেও অনেকে এই অবস্থা থেকে মুক্তি পাচ্ছেন না। পছন্দের খাবার চোখের সামনে দেখেও অ্যালার্জির ভয়ে অনেকেই তা খেতে পারেন না। |আরো খবর স্বাস্থ্যবিধি মানা ছাড়া করোনা আটকানো সম্ভব নয় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় বীর মুক্তিযোদ্ধা নিহত বঙ্গবন্ধুর ৪ খুনির মুক্তিযোদ্ধা খেতাব বাতিল করে প্রজ্ঞাপন এভাবে বছরের পর বছর ভালো খাবার থেকে বিরত থেকে ভুক্তভোগীরা ভোগেন পুষ্টিহীনতায়। তবে অ্যালার্জির দুঃশ্চিন্তা আর নই। ভুক্তভোগীরা মাথা থেকে সব চিন্তা ঝেড়ে ফেলুন। এবার বিনা খরচে অ্যালার্জিকে চিরোবিদায় জানাবেন। এজন্য যা যা করতে হবে, তা বাংলাদেশ জার্নালের পাঠকদের জন্য নিচে তুলে ধরা হল- এক কেজি নিম পাতা নিন। ভালো করে সেটা রোদে শুকিয়ে নিন। পরে শুকনো নিম পাতা পাটায় পিষে গুঁড়ো করুন। এরপর ভালো করে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন একটি কৌটায় মজুদ রাখুন। সঙ্গে ইসবগুলের ভুষি কিনে নেবেন। প্রস্তুতপ্রণালী এক চা চামচের ৩ ভাগের ১ ভাগ নিমপাতার গুঁড়া এবং ১ চা চামচ ভুষি ১ গ্লাস পানিতে আধ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। আধা ঘণ্টা পর চামচ দিয়ে ভালো করে নাড়ুন। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে, দুপুরে ভরা পেটে এবং রাতে শোয়ার আগে খেয়ে ফেলুন। এভাবে ২১ দিন একটানা খেতে হবে। কার্যকারিতা শুরু হতে একমাস লেগে যেতে পারে। অ্যালার্জি রোগ থেকে আপনি মুক্ত হয়ে যাবেন। এমনকি এরপর থেকে অ্যালার্জির জন্য যা খেতে পারছিলেন না সবই খেতে পারবেন। তবে নিজের মতো করে বেশি বেশি নিমপাতা খাবেন না। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে।

অধিকাংশ মানুষ অ্যালার্জি সমস্যায় ভুগছেন। ব্যক্তিজীবনে অ্যালার্জি যে কত ভয়ঙ্কর তা শুধু ভুক্তভোগীরাই জানেন। নানা উপায় অবলম্বন করেও অনেকে এই অবস্থা থেকে মুক্তি পাচ্ছেন না। পছন্দের খাবার চোখের সামনে দেখেও অ্যালার্জির ভয়ে অনেকেই তা খেতে পারেন না।

এভাবে বছরের পর বছর ভালো খাবার থেকে বিরত থেকে ভুক্তভোগীরা ভোগেন পুষ্টিহীনতায়। তবে অ্যালার্জির দুঃশ্চিন্তা আর নই। ভুক্তভোগীরা মাথা থেকে সব চিন্তা ঝেড়ে ফেলুন। এবার বিনা খরচে অ্যালার্জিকে চিরোবিদায় জানাবেন। এজন্য যা যা করতে হবে, তা বাংলাদেশ জার্নালের পাঠকদের জন্য নিচে তুলে ধরা হল-

এক কেজি নিম পাতা নিন। ভালো করে সেটা রোদে শুকিয়ে নিন। পরে শুকনো নিম পাতা পাটায় পিষে গুঁড়ো করুন। এরপর ভালো করে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন একটি কৌটায় মজুদ রাখুন। সঙ্গে ইসবগুলের ভুষি কিনে নেবেন।

প্রস্তুতপ্রণালী

এক চা চামচের ৩ ভাগের ১ ভাগ নিমপাতার গুঁড়া এবং ১ চা চামচ ভুষি ১ গ্লাস পানিতে আধ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। আধা ঘণ্টা পর চামচ দিয়ে ভালো করে নাড়ুন। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে, দুপুরে ভরা পেটে এবং রাতে শোয়ার আগে খেয়ে ফেলুন। এভাবে ২১ দিন একটানা খেতে হবে।

কার্যকারিতা শুরু হতে একমাস লেগে যেতে পারে। অ্যালার্জি রোগ থেকে আপনি মুক্ত হয়ে যাবেন। এমনকি এরপর থেকে অ্যালার্জির জন্য যা খেতে পারছিলেন না সবই খেতে পারবেন। তবে নিজের মতো করে বেশি বেশি নিমপাতা খাবেন না। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে।

Download Nulled WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
Download WordPress Themes
Download WordPress Themes
online free course