কমলনগরের মৃত শিশু ইমন করোনায় আক্রান্ত ছিল না

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া শিশু ইমন (৪) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিল না। সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) তার নমুনা পরীক্ষা করে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া শিশু ইমন (৪) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিল না। সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) তার নমুনা পরীক্ষা করে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

তবে করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া এ উপজেলার অপর একটি শিশুর নমুনা পরীক্ষার ফলাফল এখন পর্যন্ত না আসায় তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। সোমবার রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু তাহের এ কথা জানান।

ডা. আবু তাহের বলেন, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার তোরাবগঞ্জ এলাকায় খিঁচুনি ও শ্বাসকষ্টে এক শিশু এবং শনিবার সকালে চরমার্টিন এলাকায় জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ইমন নামে দুই শিশুর মৃত্যু হয়।

করোনাভাইরাসের উপসর্গ (জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও খিঁচুনি) থাকায় শিশু দু’টি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে কি-না তা নিশ্চিত হতে শনিবার তাদের মরদেহের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে পাঠানো হয়।

এদের মধ্যে ইমনের নমুনার পরীক্ষার পর সোমবার সন্ধ্যায় আইইডিসিআর জানায়, পরীক্ষার ফলাফল নেতিবাচক (নেগেটিভ) এসেছে। শিশুটি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়নি।

তিনি জানান, আগামী দু’-একদিনের মধ্যে মারা যাওয়া অপর শিশুটির নমুনার ফলাফলও পাওয়া যাবে। তখন তার মৃত্যুও কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

এদিকে শিশু ইমনের মৃত্যুর পর থেকে তাদের বাড়ির ছয়টি পরিবারকে উপজেলা প্রশাসন লকডাউন ঘোষণা করে। তবে রিপোর্ট পাওয়ার পর এখন লকডাউন প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোবারক হোসেন বলেন, মৃত ইমন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিল না। তাই লকডাউন তুলে নেওয়া হয়েছে।

Download WordPress Themes Free
Download WordPress Themes Free
Download Premium WordPress Themes Free
Download Nulled WordPress Themes
free online course