কম তেলে বেশি চলে যে তিনটি মোটরবাইক

তীব্র যানজটের এই শহরে মোটরসাইকেল কতোটাই না উপকারি। ট্রাফিক জ্যামকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে নির্দিষ্ট সময়ে গন্তব্য স্থলে পৌঁছে দিতে দুই চাকার এই বাহনটির জুড়ি নেই। তবে মোটরবাইক কেনার কথা চিন্তা করতে গেলে তেল খরচের ব্যাপারটাও মাথায় চলে আসে। তাই আপনাদের এমন তিনটি বাইকের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিবো যেগুলো দেশের বর্তমান বাজারের সবচেয়ে মাইলেজ সমৃদ্ধ বাইক।

তীব্র যানজটের এই শহরে মোটরসাইকেল কতোটাই না উপকারি। ট্রাফিক জ্যামকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে নির্দিষ্ট সময়ে গন্তব্য স্থলে পৌঁছে দিতে দুই চাকার এই বাহনটির জুড়ি নেই। তবে মোটরবাইক কেনার কথা চিন্তা করতে গেলে তেল খরচের ব্যাপারটাও মাথায় চলে আসে। তাই আপনাদের এমন তিনটি বাইকের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিবো যেগুলো দেশের বর্তমান বাজারের সবচেয়ে মাইলেজ সমৃদ্ধ বাইক।

দেশের বর্তমান বাজারে সবচেয়ে বেশি মাইলেজ সমৃদ্ধ বাইকগুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ভারতীয় বাজাজ ব্র্যান্ডের বাজাজ প্লাটিনা কম্ফোরটেক। আপনি যদি কম তেলে বেশি চলে এমন একটি মোটরসাইকলে কিনতে চান বিশেষ করে প্রতিদিন অফিস যাত্রার জন্য বা উবার পাঠাও এ রাইড শেয়ারিং এর জন্য। তবে আপনি বাজাজের এই মোটরবাইকটি দেখতে পারেন। বাজাজ প্লাটিনা কম্ফোরটেক এ ১০২ সিসির ডিটিএসআই ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। বাইকটির টপ স্পিড প্রতি ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৯০ কিলোমিটার। এছাড়া বাইকটির ফুয়েল ট্যাংক ক্যাপাসিটি হচ্ছে সাড়ে ৮ লিটার। বাইকটিতে আপনি প্রতি লিটারে ৭৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে পারবেন। বাজাজ প্লাটিনা কম্ফোরটেক এর বর্তমান বাজার মূল্য ৯৭ হাজার ৯০০ টাকা।

ভারতীয় টিভিএস মোটরসাইকেল প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের নাম কে না শুনেছে। টিভিএস বরাবরই মাইলেজের কথা মাথায় রেখে মোটরসাইকেল তৈরি করে থাকে। মাইলেজের দিকে থেকে এই ব্র্যান্ডের মেট্রো গাড়িটির বেশ সুনাম রয়েছে। টিভিএস মেট্রোতে ব্যবহার করা হয়েছে ৯৯.৭৭ সিসির একটি ফোরস্ট্রক এয়ারকুলড ইঞ্জিন। বাইকটির টপ স্পিড প্রতি ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৮৫ কিলোমিটার। এছাড়া বাইকটির ফুয়েল ট্যাংক ক্যাপাসিটি হচ্ছে ১২ লিটার। বাইকটিতে আপনি প্রতি লিটারে ৭০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে পারবেন। বর্তমান বাজারে টিভিএস মেট্রো কিনতে হলে আপনাকে ৯৪ হাজার ৯০০ টাকা খরচ করতে হবে।

সবশেষ যে বাইকটি নিয়ে কথা বলবো সেটি হলো হিরো ব্র্যান্ডের হিরো এইচএফ ডিলাক্স। এটিকেও একটি মাইলেজ কিং বাইক বলা যায়। বাইকটিতে ৯৭.২ সিসির একটি ফোরস্ট্রক এয়ারকুলড ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। বাইকটিতে আপনি প্রতি ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৯০ কিলোমিটার বেগে ছুটতে পারবেন। এছাড়া বাইকটির ফুয়েল ট্যাংক ক্যাপাসিটি হচ্ছে সাড়ে ৯ লিটার। বাইকটিতে আপনি প্রতি লিটারে ৬৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে পারবেন। হিরো এইচএফ ডিলাক্স এর বর্তমান বাজার মূল্য হচ্ছে ৮৩ হাজার ৯৯০ টাকা।

Download WordPress Themes Free
Download WordPress Themes
Download Premium WordPress Themes Free
Premium WordPress Themes Download
free online course