করণ জোহরকে এড়িয়ে চলেন সালমান-অজয়-আমিরসহ অনেকে

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠেছে করণ জোহর, সালমান খান-সহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে। তারা নাকি শুধু স্টার কিডদেরই সুযোগ দেন। অনেকক্ষেত্রে ফ্লপ হলেও পরের ছবিতে জুটে যায় সহজে। তবে বলিউডে নেপোটিজমের সবচেয়ে বেশি অভিযোগ জমা আছে করণ জোহরের নামে। অনেকের ক্যারিয়ার নাকি বরবাদ করে দিয়েছেন তিনি। তাই এই প্রযোজক-পরিচালককে রীতিমতো ‘শত্রু’ মনে করেন কেউ কেউ। আবার রয়েছে পেশাগত জটিলতা।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠেছে করণ জোহর, সালমান খান-সহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে।

তারা নাকি শুধু স্টার কিডদেরই সুযোগ দেন। অনেকক্ষেত্রে ফ্লপ হলেও পরের ছবিতে জুটে যায় সহজে।

তবে বলিউডে নেপোটিজমের সবচেয়ে বেশি অভিযোগ জমা আছে করণ জোহরের নামে। অনেকের ক্যারিয়ার নাকি বরবাদ করে দিয়েছেন তিনি।

তাই এই প্রযোজক-পরিচালককে রীতিমতো ‘শত্রু’ মনে করেন কেউ কেউ। আবার রয়েছে পেশাগত জটিলতা।

সালমানের বিরুদ্ধে নেপোটিজমের অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু ভাইজানও নিজেকে করণের কাছ থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রেখেছেন।

করণের প্রথম ছবি ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’-এ ক্যামিও অ্যাপিয়ারেন্স ছিল সালমানের। কিন্তু পরে তার সঙ্গে আর কাজ করেননি।

করণকে এড়িয়ে চলেন সালমান? এর প্রথম কারণ, ইয়াশ জোহরের ছেলের সঙ্গে শাহরুখ খানের ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব।

তাকে সব কিছুতে প্রোমোট করার চেষ্টাও করেন করণ। দুজন একের পর এক বিগ বাজেট ছবিও করেছেন।

বলিউডে গুঞ্জন আছে, করণ শুধু শাহরুখকে নিয়েই ছবি করতে চান। এই কারণেই সালমান এ পরিচালককে পছন্দ করেন না।

শোনা যায়, ‘শুদ্ধি’ নামে একটি ছবির জন্য সালমানকে প্রস্তাব দেন করণ। বেশ কয়েক মাস অপেক্ষা করানোর পর নাকি নায়ক না করে দেন।

পরে ঘনিষ্ঠমহলে জানান, করণের সঙ্গে কখনোই কাজ করতে চান না।

এই ঘটনার পরেও করণ-সালমান একসঙ্গে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। তবে প্রয়োজক হিসেবে।

কথা ছিল, সালমানের ভগ্নিপতি আয়ুষ শর্মাকে ছবিতে প্রোমোট করা হবে। কিন্তু করণ সায় না দেওয়ায় বেজায় চটে যান সালমান।

আমির খানও কখনো করণের সঙ্গে কাজ করেননি। এরও প্রথম কারণ শাহরুখ-করণ ঘনিষ্ঠতা।

‘কফি উইদ করণ’-শো তে আমির খান একবার এসেছিলেন। তখন করণ প্রশ্ন করেন, কেন এত দেরি করলেন এই শো-তে আসতে।

আমির হাসতে হাসতে বলেন, আমি তো আপনাকে ঠিক করে জানিই না। আপনার সম্পর্কে অনেক কিছুই শুনেছি। তা হয়ত ভুলই শুনেছি।

এর পরই করণ আমিরকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, ইন্ডাস্ট্রির এমন কোন জিনিসটা রয়েছে যেটা তিনি পছন্দ করেন না, কিন্তু পছন্দ করার নাটক করতে হয়। তখন আমির জবাব দিয়েছিলেন, আপনার শো।

করণের না-পছন্দের তালিকায় রয়েছেন অজয় দেবগন-কাজলও।

করণের সঙ্গে সুপারহিট ছবি ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’ থেকে শুরু করে বেশ কয়েকটি ছবি করেছেন কাজল। তারপরও ‘শত্রুতা’?

বলিউডে গুঞ্জন, অজয়ের সঙ্গে করণের কখনো খাপ খায় না। পরস্পরকে এড়িয়ে চলেন তারা। তাই করণের ছবিতে কখনই দেখা যায়নি অজয়কে।

এও বলা হয়, করণের ছবির স্ক্রিপ্ট অজয়ের খুব একটা পছন্দ হয় না। কিন্তু কাজলের সঙ্গে ঝামেলাটা কোথায়?

শোনা যায়, বন্ধুত্বকে হাইলাইট করলেও কাজল ব্যক্তিগতভাবে করণকে পছন্দ করেন না।

জানা যায়, ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’কে ভালো আর অজয় দেবগন অভিনীত ‘শিবাই’ ছবিকে খারাপ রেটিং দেওয়ার জন্য কমল আর খানকে টাকা দেন করণ।

এমন দাবি কেআরকে-এর। পরে অজয় সোশ্যাল মিডিয়া ভিডিওতে বিষয়টি সামনে আনেন।

কাজল সেটা শেয়ার করে মন্তব্য করেন, ‘আই অ্যাম শকড’।

করণকে পছন্দ করেন না এমন তালিকায় রয়েছেন কঙ্গনা রানাউত। করণের বিরুদ্ধে তার অভিযোগ নেপোটিজম নিয়ে।

কঙ্গনা যখন বলিউডে মাটি পাওয়ার লড়াই চালাচ্ছেন তখন তাকে নিজের শো-তে ডাকেননি করণ।

কিন্তু জাতীয় পুরস্কার পাওয়ার পরই আমন্ত্রণ জানান। পরে সরাসরি ‘কফি উইথ করণ’-এ আক্রমণ করে বসেন নায়িকা।

সুশান্তের মৃত্যুর পর করণকে ‘মুভি মাফিয়া’ বলেও আক্রমণ করেন।

৯০-এর দশকে অনেক সুপারহিট ছবি করার পরও করণের শো-তে ডাক পাননি গোবিন্দ। অনেক নতুন নতুন তারকারা ডাক পেয়েছেন।

করণ নাকি কখনো গোবিন্দকে ছবি করার জন্য প্রস্তাবও দেননি।

এ প্রসঙ্গে জিজ্ঞাসা করলে সাংবাদিকদের গোবিন্দ বলেন, করণ ভয়ঙ্কর একটা লোক।

Premium WordPress Themes Download
Download Premium WordPress Themes Free
Free Download WordPress Themes
Premium WordPress Themes Download
free online course