করোনাভাইরাসের কারণে এবার বন্ধ হলো স্যামসাংয়ের কারখানা

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, দক্ষিণ কোরিয়ার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় শহর গুমিতে বৃহৎ একটি কারখানায় স্যামসাং কম্পানির স্মার্টফোন ফোন তৈরি করা হতো। আর সে কারখানাটি সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে স্যামসাং কর্তৃপক্ষ।

করোনাভাইরাসের কারণে দক্ষিণ কোরিয়ায় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল বিশ্ববিখ্যাত গাড়ি নির্মাতাপ্রতিষ্ঠান হুন্দাইয়ের একটি কারখানা।

এবার করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বের শীর্ষ স্মার্টফোন নির্মাতাপ্রতিষ্ঠান স্যামসাংয়ের কারখানা বন্ধ করে দিল দেশটি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, দক্ষিণ কোরিয়ার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় শহর গুমিতে বৃহৎ একটি কারখানায় স্যামসাং কম্পানির স্মার্টফোন ফোন তৈরি করা হতো। আর সে কারখানাটি সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে স্যামসাং কর্তৃপক্ষ।

এমন সিদ্ধান্তের পেছনের কারণ হিসেবে রয়টার্স জানিয়েছে, শনিবার কারখানায় এক কর্মীর শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। দ্রুত ছড়িয়ে পড়া ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে আগামী সোমবার পর্যন্ত বন্ধ কারখানাটি বন্ধ থাকবে।

এরইমধ্যে করোনাভাইরাসে যেন আর কোনো কর্মীর দেহে সংক্রমিত না হতে পারে সেজন্য বিভিন্ন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে কারখানা কর্তৃপক্ষ।

স্যামসাং ইলেকট্রনিক কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে করোনা আক্রান্ত ওই কর্মীর সংস্পর্শে অন্য যেসব কর্মী এসেছেন তাদের সবাইকে ‘সেলফ-কোয়ারেন্টাইনে’ থাকার নির্দেশ দিয়েছে। যাদের মধ্যে সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা আছে তাদের সবার শারীরিক পরীক্ষা শুরু করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এমন ঘোষণায় প্রতিষ্ঠানের ওপর কোনো প্রভাব পড়বে না বলে জানিয়েছে স্যামসাং কর্তৃপক্ষ।

এর ব্যাখ্যায় তারা বলেছেন, স্যামসাংয়ের সবচেয়ে বেশি স্মার্টফোন তৈরি হয় ভারত এবং ভিয়েতনামে। সাময়িক বন্ধ রাখা গুমির ওই কারখানায় মূলত দক্ষিণ কোরিয়ার বাজারের চাহিদা মেটাতে স্মার্টফোন তৈরি করা হতো।

প্রসঙ্গত, চীনের উহানে উৎপত্তি প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব হঠাৎ করেই দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রকট হয়ে উঠেছে। আক্রান্তের সংখ্যা একদিনে দ্বিগুণ হয়ে গেছে। দেশটিতে তিন মৃত্যু ছাড়াও মোট আক্রান্ত রোগী এখন ৪৩৩ জন।

সে হিসাবে ভাইরাসটি বিস্তারের দিক দিয়ে চীনের পরই দক্ষিণ কোরিয়া অবস্থান।

এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের রোগী আশঙ্কাজনক হারে বাড়তে শুরু করায় শুক্রবার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর দায়েগু ও চেওংডোয়ে ’স্বাস্থ্য বিপর্যয় ঘোষণা করে দক্ষিণ কোরিয়া।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শহরবাসীকে ঘর থেকে বের হতেই নিষেধ করেছেন দায়েগু শহরের মেয়র কওন ইয়ং-জিন।

আর দায়েগু শহরের খুব কাছেই গুমি, যেখানে স্যামসাংয়ের কারখানাটি অবস্থিত।

Download Best WordPress Themes Free Download
Download Nulled WordPress Themes
Download Nulled WordPress Themes
Download Best WordPress Themes Free Download
free download udemy paid course