করোনাভাইরাস নিয়ে দেবী শেঠি ২২টি জরুরি পরামর্শ দেননি

‘করোনা থেকে বাঁচতে আগামী ১ বছরের জন্য ২২ জরুরি পরামর্শ ডা. দেবী শেঠির’ শিরোনামে যে খবরটি বাংলাদেশের বিভিন্ন গণমাধ্যম প্রকাশ করেছে এবং ফেসবুক পেজে শেয়ার করেছে- তা সঠিক নয়। যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান পয়েন্টার ইনস্টিটিউট এর একটি নিরপেক্ষ অঙ্গসংগঠন ইন্টারন্যাশনাল ফ্যাক্ট চেকিং নেটওয়ার্ক (আইএফসিএন) অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান বিওওএম (বুম) এ তথ্য জানিয়েছে।

‘করোনা থেকে বাঁচতে আগামী ১ বছরের জন্য ২২ জরুরি পরামর্শ ডা. দেবী শেঠির’ শিরোনামে যে

খবরটি বাংলাদেশের বিভিন্ন গণমাধ্যম প্রকাশ করেছে এবং ফেসবুক পেজে শেয়ার করেছে- তা সঠিক নয়।

যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান পয়েন্টার ইনস্টিটিউট এর একটি নিরপেক্ষ অঙ্গসংগঠন ইন্টারন্যাশনাল

ফ্যাক্ট চেকিং নেটওয়ার্ক (আইএফসিএন) অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান বিওওএম (বুম) এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে অংশীদার হয়ে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন খবর ও প্রতিবেদনের ফ্যাক্ট-চেকিং এর কাজ করছে।

গত ১৯ এপ্রিল এক বিবৃতির মাধ্যমে ঘোষণা দিয়ে বাংলাদেশে কাজ শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি।

এছাড়া ভারতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যম এরইমধ্যে দেবী শেঠির এই খবরটি ভুয়া বলে খবর প্রকাশ করেছে।

বুমবিডি প্রতিষ্ঠানটি তাদের ওয়েবসাইটে জানিয়েছে, ওই ২২টি পরামর্শ ডা. দেবী শেঠি  কোথায় কাকে দিয়েছেন

এবং কোথা থেকে পেয়ে এই সংবাদ পরিবেশন করা হয়েছে তা এসব সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়নি।

দুই মাস আগে মিথ্যা ও অপপ্রচাকারী একটি প্রতিষ্ঠান ডা. দেবী শেঠির ছবি দিয়ে একটা মিথ্যা অডিও

বার্তা প্রকাশ ফেইসবুকে করে যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট।

ওই অডিও বার্তার  সঙ্গে ডা. দেবী শেঠির কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই।

অডিওটির সাথে দেবী শেঠির কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই বলে নারায়ণা হেলথ এর ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ থেকেও জানানো হয়।

অডিওটি দেবী শেঠির নয় বরং অন্য চিকিৎসকের।

বুম-এর অনুসন্ধানে জানা গেছে অডিও ক্লিপটি চেন্নাইয়ের সন্তোষ জেকব নামে একজন চিকিৎসকের।

তিনি চেন্নাইয়ের ‘বি ওয়েল হসপিটাল’-এর অর্থোপেডিক ও স্পোর্টস ইনজুরি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের প্রধান।

ডা. জেকবের সঙ্গে যোগাযোগ করে বুম। তিনি বুমকে জানান যে, উনিই রেকর্ডিংটি করেছিলেন।

সেইসঙ্গে বলেন, অডিও ক্লিপটি ভাইরাল হওয়ায় উনি বিস্মিত হয়েছেন।

‘মেসেজটি নিজস্ব একটি রোটারি গ্রুপে পাঠানো হয়েছিল।

কারণ, একজন সদস্য কোভিড-19 এর সংক্রমণ দেখে খুবই চিন্তিত হয়ে পড়েছিলেন।

সচেতনতা বাড়াতে এবং ডাক্তারের সঙ্গে কখন যোগাযোগ করতে হবে, সে কথা জানাতেই মেসেজটি দেওয়া হয়েছিল।

ভারতীয় একটি গণমাধ্যমকে ডাক্তার দেবী শেঠিও বলেছেন যে,

করোনা মোকাবেলায় ২২টি পরামর্শ দেয়ার যে খবর ছড়িয়েছে সেটির সঙ্গে তার কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই।

তিনি এরকম বিশেষায়িত (২২টি পয়েন্টে যেমন উল্লেখ রয়েছে) কোনো পরামর্শ দেননি।

বাংলাদেশের সংবাদ মাধ্যমেও সূত্রবিহীনভাবে প্রকাশিত খবরটির মধ্যে যে ২২টি

পরামর্শ দেবী শেঠির নামে প্রচার করা হয়েছে তার বেশির ভাগই বানোয়াট যা দেবী শেঠি বলেননি বলে জানায় বুমবিডি।

Download WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
Free Download WordPress Themes
Premium WordPress Themes Download
download udemy paid course for free