করোনা কালে আমেরিকার ধনীরা আরো ধনী

আমেরিকার ৬০০-এরও বেশি কোটিপতির তথ্য থেকে রিপোর্টটি তৈরি করা হয়েছে। মার্চের ১৮ তারিখ থেকে মে মাসের ১৯ তারিখ পর্যন্ত লকডাউন চলাকালীন তাদের আয় সংক্রান্ত তথ্য জানিয়েছে ফোর্বস। প্রতিবেদনটি বলছে, এই দুই মাসে আমেরিকার কোটিপতিদের মোট সম্পদের পরিমাণ ১৫ ভাগ বেড়েছে। ২ দশমিক ৯৪৮ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার থেকে বেড়ে হয়েছে ৩ দশমিক ৩৮২ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার। শীর্ষ পাঁচ ধনী জেফ বেজোস, মার্ক জাকারবার্গ, বিল গেটস, ওয়ারেন বাফেট এবং ল্যারি এলিসনের মোট ৭৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সম্পদ বেড়েছে।

করোনা কালে মার্চের মাঝামাঝি থেকে চলতি মাসের মাঝামাঝি পর্যন্ত

আমেরিকার ধনীদের সম্পদ বেড়েছে ৪৩৪ বিলিয়ন ডলার (প্রায় ৩৭ লাখ কোটি টাকা)।

আমেরিকানস ফর ট্যাক্স ফেয়ারনেস এবং ইনস্টিটিউট ফর পলিসি ইনস্টিটিউটের

‘প্রোগ্রাম ফর ইকুয়ালিটি’র রিপোর্ট জানিয়েছে এই তথ্য। খবর ডয়চেভেলের

১৫ ভাগ বেশি আয়

আমেরিকার ৬০০-এরও বেশি কোটিপতির তথ্য থেকে রিপোর্টটি তৈরি করা হয়েছে।

মার্চের ১৮ তারিখ থেকে মে মাসের ১৯ তারিখ পর্যন্ত লকডাউন

চলাকালীন তাদের আয় সংক্রান্ত তথ্য জানিয়েছে ফোর্বস।

প্রতিবেদনটি বলছে, এই দুই মাসে আমেরিকার কোটিপতিদের মোট সম্পদের পরিমাণ ১৫ ভাগ বেড়েছে।

২ দশমিক ৯৪৮ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার থেকে বেড়ে হয়েছে ৩ দশমিক ৩৮২ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার।

শীর্ষ পাঁচ ধনী জেফ বেজোস, মার্ক জাকারবার্গ, বিল গেটস, ওয়ারেন বাফেট

এবং ল্যারি এলিসনের মোট ৭৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সম্পদ বেড়েছে।

গত দুই মাসে শতকরা হিসেবে বেশি লাভ হয়েছে এলন মাস্কের।

তার মোট সম্পদ বেড়েছে শতকরা ৪৮ ভাগ।

এরপরেই আছেন জাকারবার্গ, যার বেড়েছে ৪৬ ভাগ, বেজোসের ৩১ ভাগ।

আমাজনের জেফ বেজোসের সম্পদে যোগ হয়েছে

৩৪ দশমিক ৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বা প্রায় ৩ লাখ কোটি টাকা।

ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গের সম্পদে যোগ হয়েছে

বাড়তি ২৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বা ২ লাখ ১২ হাজার কোটি টাকার বেশি।

Download Premium WordPress Themes Free
Premium WordPress Themes Download
Download WordPress Themes Free
Download Nulled WordPress Themes
free download udemy paid course