করোনা দুঃসময় ভুলে ঘুরে আসুন কাপ্তাইয়ের লেকভিউ আইল্যান্ড

লেকভিউ আইল্যান্ড মূলত একটি রিসোর্ট যা সম্পূর্ণ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। কাপ্তাই শহর এর মধ্যেই কিন্তু একটা দ্বীপকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে এই রিসোর্টটি। থাকার জন্যে ৬টি রুম আছে এখানে যার প্রত্যেকটিই বাঁশ এবং টিনের কম্বিনেশনে গড়া। রিসোর্টের তিনপাশ ঘিরে আছে কাপ্তাই হ্রদ। সবচেয়ে বড় কথা এই রিসোর্ট থেকেই কাপ্তাই বাঁধ এর সম্পূর্ণ স্পষ্ট ভিউ পাবেন। কাপ্তাই বাঁধ এর ঠিক অপজিট দ্বীপেই তৈরি হয়েছে এই দ্বীপ। খাওয়া দাওয়ার জন্যে রিসোর্টেই অর্ডার করতে পারবেন।

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে দীর্ঘ ৫ মাসের বেশি সময় পর খুলেছে রাঙামাটির কাপ্তাইের পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্রগুলো।

পর্যটন কেন্দ্রগুলো খুলে দেওয়ার পর থেকেই ক্রমান্বয়ে কাপ্তাইের স্পটগুলো পর্যটকের পদচারণায় মুখরিত হচ্ছে।

পর্যটন কেন্দ্র চালু হওয়ার পর নতুন করে আরো আকর্ষণীয় হয়ে উঠছে কর্ণফুলী জল বিদ্যুৎ কেন্দ্র সংলগ্ন লেকভিউ আইল্যান্ড।

লেকভিউ আইল্যান্ড মূলত একটি রিসোর্ট যা সম্পূর্ণ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। কাপ্তাই শহর এর মধ্যেই কিন্তু একটা দ্বীপকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে এই রিসোর্টটি। থাকার জন্যে ৬টি রুম আছে এখানে যার প্রত্যেকটিই বাঁশ এবং টিনের কম্বিনেশনে গড়া।

রিসোর্টের তিনপাশ ঘিরে আছে কাপ্তাই হ্রদ। সবচেয়ে বড় কথা এই রিসোর্ট থেকেই কাপ্তাই বাঁধ এর সম্পূর্ণ স্পষ্ট ভিউ পাবেন।

কাপ্তাই বাঁধ এর ঠিক অপজিট দ্বীপেই তৈরি হয়েছে এই দ্বীপ। খাওয়া দাওয়ার জন্যে রিসোর্টেই অর্ডার করতে পারবেন।

রিসোর্টেই কায়াকিং করতে পারবেন। পাশাপাশি রিসোর্টের নিজস্ব একটা ছোট খাটো পার্ক আছে এখানে বাচ্চা কাচ্চা নিয়ে বা বড়রাও হৈ হুল্লোড় করতে পারবেন।

একটা ঝুলন্ত সেতু আছে পার্কে, আছে একটা মাঠ আর হরেক রকমের গাছগাছালি নিয়ে বাগান।

সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে রিসোর্টটি শহর থেকে ৫ মিনিট দূরের একটি দ্বীপ এ অবস্থিত। রিসোর্টের নিজস্ব বোটে এই যাতায়াত ব্যবস্থা রয়েছে এখানে।

রিসোর্টের একটি ওয়াটার বোট আছে যার মধ্যে একটি বেডরুমসহ অন্যান্য সকল সুবিধাদি বিদ্যমান। ভাড়া নিয়ে আপনি চাইলে এই বোট এ নদীর মাঝখানেই রাত্রি যাপন করতে পারবেন।

পাহাড়ি সকল ধরনের খাবার পাবেন কাপ্তাই শহরে। শহুরে যান্ত্রিকতায় অতিষ্ঠ জীবন থেকে রেহাই পেতে এই রিসোর্টে একরাত থাকলেই যথেষ্ট ফ্রেশ অনুভব করবেন।

যেহেতু রিসোর্টটি শহরের কাছেই কিন্তু একটি দ্বীপে তাই প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বাজার থেকেই নিয়ে যেতে হবে।

কীভাবে যাবেন-

ঢাকা থেকে কাপ্তাইয়ের সরাসরি বাস আছে। বাস এ করে কাপ্তাই বাসস্ট্যান্ডে নামবেন। এরপর লোকাল সিএনজিগুলোকে বলবেন লঞ্চ ঘাটে যাবেন।

আগে থেকেই রিসোর্টে বুকিং দিয়ে রাখতে হবে। রিসোর্টে যাতায়াত বোট আপনাদের সাথে ফোনে যোগাযোগের মাধ্যমে ঘাটে অপেক্ষা করবে। ব্যাস পৌঁছে গেলেন লেকভিউ আইল্যান্ড।

খরচ- রিসোর্ট ভাড়া নন ডিফেন্স ব্যকগ্রাউন্ডদের জন্যে প্রতি রাত ৩৫০০-৪০০০/- আর ডিফেন্সের জন্যে ৫০% ডিসকাউন্ট যেকোনো সময়ে।

খাওয়ার জন্যে মেন্যু চার্টেই দাম দেয়া আছে দেখে অর্ডার করার সুযোগ আছে। তবে দাম রিজনেবলই।

কাপ্তাই শহরে আরও যা যা দেখতে পারেন-

১. কাপ্তাই বাঁধ ২. জুম রেস্তোরাঁ ৩. কায়াকিং ক্লাব ৪. চিংর্ম বৌদ্ধ বিহার ৫. কাপ্তাই পেপার মিল

Download Premium WordPress Themes Free
Free Download WordPress Themes
Premium WordPress Themes Download
Download Premium WordPress Themes Free
udemy course download free