কাউন্টারেই নির্ঘুম রাত যাত্রীদের, চোখে-মুখে হতাশা

জমির উদ্দিন। একটি বিজ্ঞাপন ফার্মে চাকরি করেন। আদরের ছোট ভাগ্নিকে নিয়ে ঈদ করতে যাবেন মায়ের কাছে কুষ্টিয়া। রাত ১০টায় কল্যাণপুর কাউন্টার থেকে এসবি ম্যান গাড়িতে তার কুষ্টিয়া যাওয়ার কথা। কিন্তু রাত ১২টা পর্যন্ত বসে থেকেও বাসের দেখা পেলেন না জমির। পরে কাউন্টার থেকে ঘোষণা এলো গাড়ি এখনও দৌলতদিয়া ফেরিঘাট পার হতে পারেনি। এই জন্য গাড়ি আসতে দেরি হচ্ছে। কাউন্টার থেকে ঘোষণা দেয়া হয় রাত ৩/৪ টার দিকে হয়তো গাড়ি আসবে।

জমির উদ্দিন। একটি বিজ্ঞাপন ফার্মে চাকরি করেন। আদরের ছোট ভাগ্নিকে নিয়ে ঈদ করতে যাবেন মায়ের কাছে কুষ্টিয়া। রাত ১০টায় কল্যাণপুর কাউন্টার থেকে এসবি ম্যান গাড়িতে তার কুষ্টিয়া যাওয়ার কথা। কিন্তু রাত ১২টা পর্যন্ত বসে থেকেও বাসের দেখা পেলেন না জমির। পরে কাউন্টার থেকে ঘোষণা এলো গাড়ি এখনও দৌলতদিয়া ফেরিঘাট পার হতে পারেনি। এই জন্য গাড়ি আসতে দেরি হচ্ছে। কাউন্টার থেকে ঘোষণা দেয়া হয় রাত ৩/৪ টার দিকে হয়তো গাড়ি আসবে।

শনিবার (১০ আগস্ট) গাবতলি ও কল্যাণপুর কাউন্টার ঘুরে এমন চিত্রই দেখা গেছে। জমিরের মতো শত শত যাত্রী কাউন্টারে চেয়ারে হেলান দিয়ে ঘুমিয়ে গেছে নয়তো মোবাইলে ফেসবুকিং অথবা অনেকেই গেমস খেলে সময় পার করছেন। তবুও যেন সময় পার হচ্ছে না।

যশোরের মণিরামপুর যাবেন কৌশিক রায়। রাত সাড়ে ১০টায় বাস ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও তিনি এখনো বাসের দেখা পাননি।

কৌশিকের চোখে-মুখে হতাশা। তিনি বলেন, অনেক কষ্ট করে ঈদের টিকিট কেটেছিলাম কিন্তু এখন গাড়ি আর রাস্তা-ঘাটের যে অবস্থা তাতে করে মনে হচ্ছে কিভাবে যাবো বাড়ি?

একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সাংবাদিক রাজীব আহমেদ খান। যাবেন মাগুরায়। রাত ৯ টায় এসডি পরিবহনের টিকিট পেয়েছেন। কিন্তু টিকিট পেলেও সময় মতো তার বাস এসে পৌছায়নি।

তিনি ব্রেকিংনিউজকে জানান, রাত ৯টায় এসডি পরিবহনের বাস কিন্তু এখনও আসেনি। কাউন্টার থেকে বলছে তিন থেকে চার ঘন্টা দেরি হবে। ঘাটে ফেরি পারাপারের অপেক্ষায় অনেক গাড়ি আটকে পড়েছে।

ছয় মাসের এক শিশু, দুই মেয়ে ও স্ত্রীকে সাথে নিয়ে রাজশাহী যাবেন লিয়াকত হোসেন। তিনি জানান, ট্রেনের টিকিট না পেয়ে শেষ পর্যন্ত অতিরিক্ত টাকা দিয়ে বাসের টিকিট পেয়েও এখন বসে আছি কাউন্টারে। এই ছোট্ট ছোট্ট বাচ্চা নিয়ে যে কিভাবে যাবো সেই চিন্তা করছি।

এদিকে রংপুর যাওয়ার উদ্দেশ্যে কল্যাণপুর আগমনী বাস কাউন্টারে বসে আছেন শিবলী নোমান। তিনি জানান, দুই ঘন্টা ধরে অপেক্ষায় রয়েছেন কিন্তু বাসের দেখা পাচ্ছি না। কাউন্টার থেকে জানিয়েছে রাস্তায় যানজটের কারণে গাড়ি আসতে দেরি হবে।

কল্যাণপুর হানিফ কাউন্টারের ম্যানেজার আব্দুস সোবহান জানান, বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে ঢাকা-টাঙ্গাইল রোডের যে গাড়িগুলো তীব্র যানজটে আটকা পরেছে।

গাবতলী শ্যামলী এন ট্রাভেলসের ম্যানেজার বাবু নিতাই কুমার জানান, কাউন্টারে যাত্রীদের অনেক ভিড়। গাড়ির জন্য সবাই অপেক্ষা করছে। দেরী দেখে যাত্রীরা আমাদের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।

বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে ঢাকা-টাঙ্গাইল রোডের গাড়ির খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শুক্রবার থেকে শনিবার রাত পর্যন্ত এই রোডে তীব্র যানজট সৃষ্টি হওয়ার কারণে বাসগুলো যাত্রী নামিয়ে দিয়ে ঢাকায় ফিরতে ফিরতে প্রায় চার থেকে আট ঘণ্টা পর্যন্ত দেরি করছে।

এদিকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া পানি বেড়ে যাওয়ার কারণে ও পশুবাহী ট্রাক পারাপারের কারণে ঘাটেও যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

Premium WordPress Themes Download
Free Download WordPress Themes
Download Premium WordPress Themes Free
Premium WordPress Themes Download
free online course