কানাডায় সাবেক মন্ত্রী পরিষদ সচিব আব্দুল হালিমের হাজার কোটি টাকার সম্পদ

ক্ষমতা ও দূর্নীতির মাধ্যমে সম্পদ তৈরি ও বিদেশে রপ্তানিতে বাংলাদেশের আমলারা সিদ্ধহস্ত। আমলাদের সেই ধারাবাহিকতা রক্ষা করে সাবেক মন্ত্রী পরিষদ সচিব ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা এ এস এম আব্দুল হালিম কানাডায় বিপুল পরিমাণ সম্পদ করেছেন।

ক্ষমতা ও দূর্নীতির মাধ্যমে সম্পদ তৈরি ও বিদেশে রপ্তানিতে বাংলাদেশের আমলারা সিদ্ধহস্ত। আমলাদের সেই ধারাবাহিকতা রক্ষা করে সাবেক মন্ত্রী পরিষদ সচিব ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা এ এস এম আব্দুল হালিম কানাডায় বিপুল পরিমাণ সম্পদ করেছেন।

২০০১ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় আসার পর বিএনপির উপর মহলের সাথে ভালো সম্পর্কের পুরষ্কার পান তিনি।

নিয়োগ পান মন্ত্রী পরিষদ সচিব হিসাবে। তিনি ২০০৫ সালের নভেম্বর মাসের ২৭ তারিখ নিয়োগ পান এবং ২০০৬ সালের আগস্ট মাসের ৩১ তারিখ পর্যন্ত তিনি মন্ত্রী পরিষদের সচিবের দায়িত্বে ছিলেন।

তাকে এই পদে নিয়োগ দিতে তৎকালীন বিএনপি সরকার মন্ত্রী পরিষদ সচিব নিয়োগে জ্যেষ্ঠতার নীতিমালা ভঙ্গ করে।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, বিএনপির আমলের দূর্নীতির যে উৎসব শুরু হয়েছিল, সেই দূর্নীতির টাকার একটি অংশ পেতেন এই মন্ত্রী পরিষদ সচিব।

দূর্নীতির টাকা কানাডায় পাচার করে তৈরি করেছেন বিপুল সম্পদ।

কানাডায় তার সম্পদের মধ্যে আছে বিলাসবহুল দুটো বাড়ি, একটি জ্বালানি পাম্প, একটি হোসিয়ারি ও একটি স্টেশনারি শপ।

তবে নিজেকে এসব থেকে ছোঁয়ার বাইরে রাখতে কোন সম্পদই নিজের নামে করেননি তিনি। সবই বানিয়েছেন আত্মীয় স্বজনদের নামে। আত্মীয় স্বজনরাই এসব দেখা শোনা করেন।

দায়িত্ব থেকে অবসরের পর বিএনপির রাজনীতির সাথে যুক্ত হোন তিনি। তার স্ত্রী একজন আইনজীবী। আব্দুল হালিম থাকেন ইস্কাটনের একটি বাসায়।

২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি থেকে নির্বাচন করেন আব্দুল হালিম।

সূত্রঃ দেশেবিদেশে

Download Best WordPress Themes Free Download
Free Download WordPress Themes
Download Best WordPress Themes Free Download
Download WordPress Themes Free
free download udemy paid course