কানাডা-অস্ট্রেলিয়ার পর এবার গাঁজাকে বৈধতা দিল দ.আফ্রিকা

মেক্সিকোর নতুন সরকার গাঁজার ‘বিনোদনমূলক ব্যবহার’কে বৈধতা দেয়ার পরিকল্পনা করছে। একই ধরণের পরিকল্পনা রয়েছে লুক্সেমবার্গের পরবর্তী সরকারেরও।

গাঁজার ব্যবহার বিষয়ে বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন দেশের নীতিমালা ও মানসিকতার পরিবর্তন হচ্ছে।

মেক্সিকোর নতুন সরকার গাঁজার ‘বিনোদনমূলক ব্যবহার’কে বৈধতা দেয়ার পরিকল্পনা করছে। একই ধরণের পরিকল্পনা রয়েছে লুক্সেমবার্গের পরবর্তী সরকারেরও।

অন্যদিকে, গাঁজার ব্যবহারকে বৈধতা দেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে গণভোট আয়োজন করার চিন্তা করছেন নিউজিল্যান্ডের নেতারা। ইতিমধ্যে অস্ট্রেলিয়া ও কানাডাতেও এই প্রক্রীয়া চালু হয়েছে।

এবার দক্ষিণ আফ্রিকা সরকারও এই বিষয়টাতে গুরুত্বারোপ করেছে। গত সপ্তাহে রাষ্ট্রীয় ও ব্যক্তিগতভাবে গাঁজা চাষ ও সেবনকে বৈধ করে আইন পাশ করেছে দেশটির সরকার।

এখন থেকে যে কোনো দক্ষিণ আফ্রিকান নাগরিক নিজের বিনোদনের জন্য চাইলে বাড়ির আঙ্গিনায় ২৫ স্কয়ার মিটার সমপরিমাণ জায়গায় ব্যক্তিগতভাবে গাঁজা চাষ করতে পারবে।এছাড়া বাণিজ্যিক ভাবে চাষ করতে কৃষকদের উৎসাহিত করবে সরকার।

ওদিকে উরুগুয়ে এবং ইসরায়েলেরও একই আইন পাশ করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকায় ক্যান্সারের কেমোথেরাপি চিকিৎসায় রোগীর মাথাধরা ও বমিভাব কমাতে, এইডসের রোগীর ক্ষুধা জাগাতে এবং পুরনো বাত ও মাংসপেশিতে ব্যথা দূর করতে ডাক্তাররা গাঁজার ব্যবহারে অনুমতি দিয়ে থাকেন।

দক্ষিণ আফ্রিকান স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলছেন, তাদের এই পরিকল্পনার ফলে দেশের মধ্যে রোগীরাও উপকৃত হবেন।

তিনি বলেন, গত সপ্তাহে সংসদে আইনটি পাশ হওয়ার আগ পর্যন্ত গাঁজা সেবন ও চাষ আইনত নিষিদ্ধ ছিলো।

তবে সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে দক্ষিণ আফ্রিকার গাঁজা চাষীরাও আর্থিকভাবে উপকৃত হবেন। সারা বিশ্বে চিকিৎসার জন্য যে গাঁজা চাষ হয় তার অর্থকরী মূল্য ২০২৫ সাল নাগাদ ৫৫০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে গাঁজার ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হয়েছে। এ দিকে জিম্বাবুয়েতে ইতিমধ্যে গাঁজার বাণিজ্যিক চাষাবাদ শুরু হয়েছে গত বছর থেকে।

Free Download WordPress Themes
Download Premium WordPress Themes Free
Download Best WordPress Themes Free Download
Premium WordPress Themes Download
free download udemy course