কেন খেজুর খাবেন?

খেজুরে প্রাকৃতিকভাবেই উচ্চমাত্রায় চিনি রয়েছে। পরিশোধিত চিনির বিকল্প হিসেবে খেতে পারেন খেজুর। এই ফলে অনেক পুষ্টি উপাদান রয়েছে, এটি খাবারের মধ্যবর্ত্তী সময়ে ভালো স্ন্যাকস হতে পারে।

খেজুরে প্রাকৃতিকভাবেই উচ্চমাত্রায় চিনি রয়েছে। পরিশোধিত চিনির বিকল্প হিসেবে খেতে পারেন খেজুর। এই ফলে অনেক পুষ্টি উপাদান রয়েছে, এটি খাবারের মধ্যবর্ত্তী সময়ে ভালো স্ন্যাকস হতে পারে।

খেজুর খাওয়ার ৫ উপকারিতা-

প্রোটিন, ভিটামিন এবং খনিজ উপাদানসহ রয়েছে-

১. এতে উচ্চমাত্রায় পলিফেনলস পাওয়া যায়। পলিফেনলস অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদানে তৈরি যা শরীরে প্রদাহ প্রতিরোধ করে। অন্যান্য ফল ও সবজির চেয়ে খেজুরে পলিফেনলস বেশি পাওয়া যায়।

২. এটি বিকল্প মিষ্টি হিসেবে খাওয়া যায়। এটি মিষ্টির চাহিদা পূরণের পাশাপাশি ভিটামিন বি৬ ও আয়রনের মতো প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান সরবরাহ করে।

৩. এতে উচ্চমাত্রায় আঁশ উপাদান রয়েছে। এক কাপের চার ভাগের এক ভাগ খেজুরে দৈনিক চাহিদার ১২ শতাংশ আঁশ পাওয়া যায়। খেজুর খেলে দীর্ঘক্ষণ ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণে থাকে।

৪. এতে অনেক বেশি পটাশিয়াম রয়েছে। শরীরে ইলেকট্রোলাইট হিসেবে কাজ করা এই উপাদান হার্টের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। পটাশিয়াম পেশি গঠনে সহায়তা করে এবং প্রোটিন উৎপাদনে সহায়তা করে।

৫. খেজুরকে প্রাকৃতিক চিনি বলা যায়। বিভিন্ন ডেজার্ট বা চকোলেট, ক্যান্ডি তৈরিতে চিনির বিকল্প হিসেবে খেজুর ব্যবহার করতে পারেন।

Premium WordPress Themes Download
Premium WordPress Themes Download
Download Nulled WordPress Themes
Download Premium WordPress Themes Free
online free course