গ্যাসের চুলায় গার্লিক বাটার নান

সাধারণ নান থেকে বাটার নান বেশি স্বাদের হয়। বাটার নান আপনি শুধু শুধুই খেতে পারবেন। তবে গ্যাসের চুলাতে অনেকেই নান তৈরি করেন, কিন্তু একদম শতভাগ রেস্তরাঁর মত হয় কি? হয় না। গ্যাসের চুলাতে একদম ফুলকো আর নরম গার্লিক-বাটার নান তৈরির সবচাইতে সহজ এবং নিখুঁত একটি রেসিপি নিয়ে আমাদের আজকের আয়োজন। আসুন তাহলে দেখে নিন রেসিপিতে।

সাধারণ নান থেকে বাটার নান বেশি স্বাদের হয়। বাটার নান আপনি শুধু শুধুই খেতে পারবেন। তবে গ্যাসের চুলাতে অনেকেই নান তৈরি করেন, কিন্তু একদম শতভাগ রেস্তরাঁর মত হয় কি? হয় না। গ্যাসের চুলাতে একদম ফুলকো আর নরম গার্লিক-বাটার নান তৈরির সবচাইতে সহজ এবং নিখুঁত একটি রেসিপি নিয়ে আমাদের আজকের আয়োজন। আসুন তাহলে দেখে নিন রেসিপিতে।

উপকরণ:

ময়দা ২৫০ গ্রাম

লবণ স্বাদমতো

ইস্ট ১৫ গ্রাম

চিনি ১ চা চামচ

উষ্ণ গরম পানি ১/২ কাপ

ঘি / তেল ২ চামচ

টকদই ৪ চা চামচ অথবা ডিম ১ টা

দুধ অথবা পানি ১/২ কাপ

রসুন ৫ টা (লম্বা ও পাতলা করে কাটা )

বাটার ১ চামচ

প্রণালি :

একটি বাটিতে উষ্ণ গরম পানি নিয়ে ইস্ট আর চিনি গুলে ৫/৭ মিনিট রেখে দিতে হবে।

এবার ময়দা আর লবন ইস্ট গোলানো পানিতে মিশিয়ে নিন। একটু তেল বা মাখন যোগ করে ভালো করে মথে ডো বানিয়ে নিন। ৩০ মিনিট থেকে ১ ঘণ্টা ঢেকে রেখে দিন।

ডো ফুলে দ্বিগুণ হবে। এবার ডো কে ৭/৮ ভাগ করে পছন্দ মত শেপে বেলে নিন। ওপরে রসুন কুচি ও ধনে পাতা কুচি ছিটিয়ে দিয়ে আবার একটু বেলে নিন।

এবার উল্টে নিয়ে রুটির যেদিকে ধনেপাতা ও রসুন নেই, সেদিকে একটু পানি লাগিয়ে গরম ফ্রাইপ্যানে দিন। পানি লাগানো দিকটা নিচে থাকবে। আঁচটা একটু কমিয়ে রুটির একদিক সেঁকে নিন,

এক পাশ হয়ে গেলে তাওয়া উল্টে রুটির আরেক দিক আগুনের আঁচে একটু সেঁকে নিন।

নামিয়ে উপরে পছন্দমত মাখন ব্রাশ করে নিতে হবে। পরিবেশন করুন গরম গরম। (রুটিতে পানি লাগানো ছিল বলে তাওয়া উল্টে ধরলে রুটি পড়ে যাবে না এবং নিচের অংশটা ক্রিসপ হবে)।

Download WordPress Themes Free
Download Best WordPress Themes Free Download
Download Best WordPress Themes Free Download
Download Nulled WordPress Themes
free online course