গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা কমাবে এই খাবারগুলো

সাধারণত অতিরিক্ত অ্যাসিড থেকে পেটে গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা হয়। সঙ্গে থাকে পেট ফোলাভাব বা ফাঁপা ও হজমজনিত সমস্যাও হয়ে থাকে। এই সমস্যা দূর করতে কিছু খাবার রযেছে, যা গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে।

সাধারণত অতিরিক্ত অ্যাসিড থেকে পেটে গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা হয়। সঙ্গে থাকে পেট ফোলাভাব বা ফাঁপা ও হজমজনিত সমস্যাও হয়ে থাকে। এই সমস্যা দূর করতে কিছু খাবার রযেছে, যা গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক এমন কিছু খাবার সম্পর্কে-

> গ্যাস্ট্রিকের ব্যথায় খেতে পারেন ভেষজ চা। বিভিন্ন ওষুধের গুণ সম্পন্ন গাছ পাতা দিয়ে তৈরি এই চা শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও প্রদাহরোধী উপাদান সমৃদ্ধ। ভেষজ চা হজমে সাহায্য করে ও গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা কমায়। ভেষজ উপাদানের মধ্যে আদা, পুদিনা, ক্যামোমাইল ও লেবু চা।

> পেট ফোলাভাব, গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা, পেট ফাঁপা ও কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যায় লবঙ্গ খেতে পারেন। লবঙ্গ চিবিয়ে বা খাবারের পর এলাচের সঙ্গে লবঙ্গের গুঁড়া মিশিয়ে এক কাপ চা পানে অ্যাসিডিটি কমায় ও অতিরিক্ত গ্যাস দূর করে।

> আপেল সিডার ভিনেগার অন্ত্রে অ্যাসিডিক মাইক্রোন পরিবেশ তৈরি করে এবং হজমে সহায়ক। এ ছাড়া এনজাইমকেও সক্রিয় করে। এ ছাড়া ব্যথা কমায় ও গ্যাস্ট্রিকের নানান সমস্যা যেমন- পেটব্যথা ও পেট ফোলাভাব কমায়।

> দই উপকারী ব্যাক্টেরিয়ার ভালো উৎস এবং এটা হজমে সাহায্য করে। পানির সঙ্গে দই মিশিয়ে পানীয় তৈরি করতে পারেন। এতে ভাজা জিরা ও বিট লবণ মিশিয়ে স্বাদ বাড়াতে পারেন। চাইলে এত আপেলও যোগ করে নিতে পারেন।

> উচ্চ আঁশ সমৃদ্ধ খাবার যেমন- বাদাম, সবজি, বেরি ও সবুজ শাক সবজি হজম ক্রিয়া উন্নত করে ও গ্যাসট্রিকের ব্যথা কমাতে সহায়তা করে।

> গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা কমাতে উপকারী। ভারতে সাধারণত খাবারের পরে হজমক্রিয়া বাড়াতে মৌরি খাওয়া হয়। এতে আছে গুরুত্বপূর্ণ উদ্ভিদ যৌগ যা গ্যাস্ট্রিকের রস নিঃসরণে সহায়তা করে, খাবার হজমে সহায়তা করে, বদহজম ও কোষ্ঠকাঠিন্যের লক্ষণ দূর করতে সহায়তা করে।

Download Best WordPress Themes Free Download
Premium WordPress Themes Download
Download Nulled WordPress Themes
Download WordPress Themes
udemy paid course free download