চসিক নির্বাচনকে সামনে রেখে ঐক্যের ডাক নাছির-নওফেলের

ফেসবুকে আত্মঘাতী কর্মকাণ্ড বন্ধের আহ্বান জানিয়ে বর্ধিত সভায় দলের সাধারণ সম্পাদক ও মেয়র নাছির আরও বলেছেন, আত্মঘাতী কর্মকাণ্ড থেকে যতটুকু সম্ভব নিজেদের বিরত রাখার চেষ্টা করতে হবে। পরস্পর পরস্পরকে হেয় করা, কোণঠাসা করার চেষ্টা, ফেসবুকে পরস্পরের বিরুদ্ধে কোনো একটা বিষয় ভাইরাল করে দেওয়া, এ গুলো বন্ধ করতে হবে। এসব বন্ধ করা না গেলে দিন শেষে ক্ষতি হবে আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার, সরকারের এবং দলের। এসব নিয়ে দলীয় ফোরামে আলোচনা করুন, না হলে পদে আসীনরা প্রশ্নবিদ্ধ হবে, দল ক্ষতিগ্রস্ত হবে।  

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশেনের নির্বাচনের (চসিক) আগেই দলের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার ডাক দিয়েছেন আওয়ামী লীগ চট্টগ্রামের শীর্ষ দুই নেতা।

তারা হলেন, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন এবং কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাবেক বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এমপি।

শনিবার নগরীর জামালখানের একটি কমিউনিটি সেন্টারে চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় নানাবিধ বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

ফেসবুকে আত্মঘাতী কর্মকাণ্ড বন্ধের আহ্বান জানিয়ে বর্ধিত সভায় দলের সাধারণ সম্পাদক ও মেয়র নাছির আরও বলেছেন, আত্মঘাতী কর্মকাণ্ড থেকে যতটুকু সম্ভব নিজেদের বিরত রাখার চেষ্টা করতে হবে। পরস্পর পরস্পরকে হেয় করা, কোণঠাসা করার চেষ্টা, ফেসবুকে পরস্পরের বিরুদ্ধে কোনো একটা বিষয় ভাইরাল করে দেওয়া, এ গুলো বন্ধ করতে হবে। এসব বন্ধ করা না গেলে দিন শেষে ক্ষতি হবে আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার, সরকারের এবং দলের। এসব নিয়ে দলীয় ফোরামে আলোচনা করুন, না হলে পদে আসীনরা প্রশ্নবিদ্ধ হবে, দল ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

তিনি বলেন, শনিবার থেকে কেন্দ্রীয়ভাবে চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ফরম সংগ্রহ করতে পারবেন। ১৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে মেয়র পদের জন্য ২৫ হাজার টাকা এবং কাউন্সিলর পদের জন্য ১০ হাজার টাকা দিয়ে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে পূরণ করে জমা দিতে পারবেন।

নেতা-কর্মীদের ক্ষোভের বিষয়ে নাছির বলেন, আমাদের থানা এবং ওয়ার্ড কমিটি যেগুলো আছে, অনেকে কাজ করছেন। অনেকে সেভাবে দৃশ্যমান নন। আসুন, আমরা নিজেরা ঐক্যবদ্ধ হই এবং সংগঠনকে শক্তিশালী করি।

চসিক নির্বাচন নিয়ে দ্বন্দ্বে না জড়ানোর আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা ও শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এমপি বলেন, কোনো নেতাই দলের জন্য অপরিহার্য নন। একমাত্র প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত।

তিনি বলেন, চসিক নির্বাচন আসছে। গণমাধ্যমে অনেক ধরনের আলোচনা-সমালোচনা আসবে। এসব মেনেই আমাদের কাজ করতে হবে। চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগ জেলার সব থেকে শক্তিশালী সংগঠন। আমাদের মধ্যে অনেকে নির্বাচন করতে চাইবেন, স্বাভাবিক। কাউন্সিলর পদেও হয়ত সর্বোচ্চ চাইবেন। এসব নিয়ে যেন সংযত থাকি। তবে আসন্ন মুজিববর্ষ এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন-দুই বিষয়কে মাথায় রেখে কাজ করার জন্য নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

জানা গেছে, চসিক নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ও বর্তমান সিটি মেয়র আ জ ম নাছিরের নাম আলোচিত হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। উক্ত দুজনের নামেই মেয়র প্রার্থী হিসেবে পাল্টপাল্টি বক্তব্য ও বিবাদে জড়িয়ে পড়ছেন এই দুই নেতার অনুসারীরা।

বর্ধিত সভায় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে নওফেল যখন বক্তব্য রাখছিলেন তখন সেখানে ছিলেন না মেয়র নাছির। বক্তব্য শেষ করে নওফেল চলে যাবার সময় প্রবেশ করেন মেয়র নাছির। এ সময় দুজনের মধ্যে হাসিমুখে কুশল বিনিময়ও হয়েছে। দুই নেতার এতো মিল থাকার পরও তৃনমুল নেতা-কর্মীদের মধ্যে চলছে দ্বিধা দ্বন্দ্ব।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমেদ, নগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নঈম উদ্দিন  চৌধুরী, সুনীল কুমার সরকার, ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, খোরশেদ আলম সুজন, এম. জহিরুল আলম দোভাষ, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু প্রমুখ।

Download Best WordPress Themes Free Download
Download WordPress Themes
Download Nulled WordPress Themes
Free Download WordPress Themes
udemy course download free