জুন থেকে সব অপারেটরে সর্বনিন্ম ৫৪, গ্রামীণের ৬১ পয়সা

দেশের শীর্ষ মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোনের সর্বনিম্ন কলরেট পাঁচ পয়সা বাড়িয়ে ৫০ পয়সা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। আগামী জুন মাস থেকে এই সিদ্ধান্তটি কার্যকর হবে।

দেশের শীর্ষ মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোনের সর্বনিম্ন কলরেট পাঁচ পয়সা বাড়িয়ে ৫০ পয়সা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। আগামী জুন মাস থেকে এই সিদ্ধান্তটি কার্যকর হবে।

বর্তমানে সকল মোবাইল অপারেটরের সর্বনিম্ন কলরেট ৪৫ পয়সা। অন্যান্য খরচসহ যা গিয়ে দাঁড়ায় ৫৪ পয়সায়। কিন্তু শুধুমাত্র গ্রামীণফোনের বেলায় জুন মাস থেকে ব্যবহারকারীদেরে প্রতি মিনিটে কথা বলতে খরচ করতে হবে ৫০ পয়সা। অন্যান্য খরচসহ যা গিয়ে দাঁড়াবে ৬১ পয়সায়।

গত ৩০ এপ্রিল এসএমপি বা তাৎপর্যপূর্ণ বাজার ক্ষমতাধরের বিধিনিষেধের আওতার বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) এক বৈঠকে গ্রামীণফোনের সর্বনিম্ন কলরেট ৫ পয়সা বাড়ানোর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

কলরেটেরে সাথে সাথে গ্রামীণফোনের আন্তঃসংযোগ (ইন্টার কানেকশন) চার্জও বাড়ানো হয়েছে। বিটিআরসি শনিবার কলরেট বাড়ানোর বিষয়টি চিঠির মাধ্যমে গ্রামীণফোনকে জানায়।

কলরেট বাড়ানোর বিষয়টি গ্রামীণফোন গ্রাহকদের ওপর বাড়তি প্রভাব ফেলবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে বিটিআরসির চেয়ারম্যান জহিরুল হক বলেছেন, গ্রামীণফোন ব্যবহারকারীদের উপর কলরেট বৃদ্ধির কোন প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা নেই। অপারেটরটি আগে থেকেই সর্বনিম্ন মূল্যের চেয়ে অনেক বেশি চার্জ নিচ্ছে।

Premium WordPress Themes Download
Free Download WordPress Themes
Download WordPress Themes
Download Premium WordPress Themes Free
free online course