পুরনো টাইটানিক যে রুটে ডুবেছিলো সেই সাউদাম্পটন থেকে নিউইয়র্কের রুটে ভ্রমণ শেষে নতুন টাইটানিক পাড়ি জমাবে অন্য আরেক রুটে। সারা পৃথিবী ঘুরতে এই সমুদ্রযাত্রার সময়কাল হবে ২ সপ্তাহ।

‘টাইটানিক টু’ পানিতে ভাসতে চলেছে ২০২২ সালে

থম সমুদ্রযাত্রায় উত্তর আটলান্টিক মহাসাগর ধরে দুবাই থেকে জাহাজটি যাবে সাউদাম্পটন, ইংল্যান্ড তারপর নিউইয়র্ক। জাহাজে যাত্রী থাকবে ২ হাজার ৪শ'। আর থাকবে ৯শ' জন নাবিক।

টাইটানিক সিনেমার ‘জ্যাক’কে নিশ্চয় মনে আছে? ‘আই অ্যাম কিং অব দ্য ওয়ার্ল্ড’- টাইটানিক জাহাজের সামনে দাঁড়িয়ে চিৎকার করে বলেছিলেন লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও। তিনি সেটি বলেছিলেন ১৯৯৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত নির্মাতা জেমস ক্যামেরনের চলচ্চিত্রে। কিন্তু চলচ্চিত্র নয়, এবার বাস্তবেই টাইটানিকে ভ্রমণের অভিজ্ঞতা নিতে পারবেন আপনি। সে ব্যবস্থাই করছেন চীনের জাহাজ নির্মাণ প্রতিষ্ঠান ব্লু লাইন। তাদের নির্মিত ‘টাইটানিক টু’ জাহাজটি অ্যাটলান্টিকের পানিতে ভাসতে চলেছে ২০২২ সালে।

পুরনো টাইটানিক যে রুটে ডুবেছিলো সেই সাউদাম্পটন থেকে নিউইয়র্কের রুটে ভ্রমণ শেষে নতুন টাইটানিক পাড়ি জমাবে অন্য আরেক রুটে। সারা পৃথিবী ঘুরতে এই সমুদ্রযাত্রার সময়কাল হবে ২ সপ্তাহ।

১৯১২ সালে ডুবে যাওয়া টাইটানিকের মতোই হবে নতুন টাইটানিকের কেবিনেটগুলো। প্রথম সমুদ্রযাত্রায় উত্তর আটলান্টিক মহাসাগর ধরে দুবাই থেকে জাহাজটি যাবে সাউদাম্পটন, ইংল্যান্ড তারপর নিউইয়র্ক। জাহাজে যাত্রী থাকবে ২ হাজার ৪শ’। আর থাকবে ৯শ’ জন নাবিক।

তবে নতুন টাইটানিকে লাইফবোট থাকবে পুরনো টাইটানিকের চেয়ে অনেক বেশি। থাকবে যথেষ্ট নিরাপত্তা। আর চালানো হবে সর্বাধুনিক পদ্ধতিতে।

নতুন টাইটানিকের নির্মাণ প্রতিষ্ঠান ব্লু লাইনের চেয়ারম্যান বলেছেন, ‘টাইটানিক টু’ হাজারো মানুষকে আকর্ষণ করবে এবং অনুপ্রাণিত করবে আর প্রতিটি বন্দরে ছড়াবে রোমাঞ্চ ও রহস্য। তা ছাড়া জাহাজটি তার নাকের ডগায় দাঁড়িয়ে আই অ্যাম কিং অব দ্য ওয়ার্ল্ড বলে চিৎকার করতে কাছে টানবে বহু মানুষকে। সূত্রঃ ইউএসএ টুডে

Download Premium WordPress Themes Free
Premium WordPress Themes Download
Premium WordPress Themes Download
Download Nulled WordPress Themes
free download udemy course