টয়লেট ব্যবহারে এই সাধারণ জ্ঞানগুলো জেনে রাখা জরুরি

রেস্টুরেন্ট, শপিং সেন্টার, আবাসিক হোটেল, অফিস, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠনসহ এ রকম গণজায়গায় পাবলিক টয়লেট তো আরো বেশি জীবাণুপূর্ণ। তাই সবাইকে নিজের জায়গা থেকে পরিচ্ছন্নভাবে টয়লেট ব্যবহার করা খুবই জরুরি। তাছাড়া টয়লেট ব্যবহারের সময় কিছু আদব মেনে চলা উচিত।

কমোড বা হাই কমোড দেখেননি এমন লোক খুঁজে পাওয়া বাংলাদেশে অসম্ভব নয়। আর কমোডের ব্যবহার কীভাবে করতে হয় জানেন না সেরকম লোকেরও অভাব নেই দেশে। আসলে কমোড ব্যবহার না জানা কোনো অপরাধ নয়। তবে কমোড সঠিকভাবে ব্যবহার না করলে আরেকজনকে পড়তে হয় বিব্রতকর পরিস্থিতিতে। আর স্বাস্থ্য ঝুঁকির কথা বলা তো বাহুল্য। কারণ টয়লেট মানেই সেখানে জীবাণুর কারখানা।

রেস্টুরেন্ট, শপিং সেন্টার, আবাসিক হোটেল, অফিস, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠনসহ এ রকম গণজায়গায় পাবলিক টয়লেট তো আরো বেশি জীবাণুপূর্ণ। তাই সবাইকে নিজের জায়গা থেকে পরিচ্ছন্নভাবে টয়লেট ব্যবহার করা খুবই জরুরি। তাছাড়া টয়লেট ব্যবহারের সময় কিছু আদব মেনে চলা উচিত। এক্ষেত্রে জেনে নিতে পারেন টয়লেট ব্যবহারের কিছু সুন্দর সাধারণ জ্ঞান-

* টয়লেট ব্যবহারের সময় অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে এটি অনেকে ব্যবহার করেন। তাই সেটি পরিচ্ছন্নভাবে ব্যবহার করতে হবে। কোনোভাবেই ব্যবহারের পর নোংরা অবস্থায় টয়লেট রেখে যাওয়া উচিত নয়।

* টয়লেটে ঢুকে দরজাটা অবশ্যই খুব ভালোভাবে আটকে (লক) নিতে হবে।

* পাবলিক প্লেসে ছেলে ও মেয়েদের জন্য আলাদা টয়লেট থাকে। সেটা লেখা বা ছবি দিয়ে বোঝানো হয়। তাই ভুল করে অন্যের টয়লেটে ঢুকে যাচ্ছেন কি না দেখে নিন। যদি এমন হয় যে আপনি একজন পুরুষ, কোনো নারী নেই দেখে আপনি তাদের টয়লেটে গেলেন, সেটাও অন্যায়।

* কমোডে সঠিকভাবে বসুন।

* কমোড ব্যবহারের পর পিছনে ফ্ল্যাশ বোতামে চাপ দিন, এতে কমোড পরিষ্কার থাকবে।

* ফ্লোরে যাতে পানি না পড়ে সেদিকে খেয়াল রাখুন। পানি ব্যবহারে মিতব্যয়ী হোন।

* দাঁড়িয়ে নয় বসে কমোড ব্যবহার করুন।

* কমোড ব্যবহারের পর সিটিং রিং-টি মুছে রাখুন, এতে পরের জন একটি পরিষ্কার সিটিং রিং পাবেন। না হলে তার জন্য বিষয়টি অস্বস্তিকর এবং অনেক ক্ষেত্রেই বিপর্যয়কর হয়ে দেখা দিতে পারে।

* ভেজা হাত দিয়ে টয়লেট পেপার ধরবেন না, এতে টয়লেট পেপার ব্যবহারের অনুপুক্ত হয়ে যাবে

* টয়লেটে থাকা অবস্থায় মোবাইল ফোনে কথা বলবেন না। দ্রুত টয়লেট ব্যবহার করে বাইরে অপেক্ষমানদের সুযোগ দিন।

* সিটিং রিং-টি মোছা হয়ে গেলে উঠিয়ে (খাড়া অবস্থায়) রাখুন, এতে সিটিংয়ে লাগা পানি নেমে গিয়ে রিংটি পরিষ্কার ও শুকনো থাকবে।

* টয়লেট ব্যবহারের পর প্রয়োজনে টিস্যু ব্যবহার করুন। অ্যান্টিসেপটিক সাবান বা হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে উভয় হাত ভালোভাবে ধুয়ে নিন। টিস্যু ব্যবহারের পর কমোডে (এক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে টিস্যু ওয়াটার সলিউবল বা পানিতে দ্রুত দ্রবণীয় কি না) কিংবা নির্ধারিত ঝুড়ি বা বাস্কেটে ফেলুন।

এছাড়াও, কোনো সামাজিক অনুষ্ঠানে টয়লেটে যাওয়ার জন্য সুশৃঙ্খলভাবে লাইনে অপেক্ষা করাটাও ভদ্রতা। এই লাইনে যদি কোনো অসুস্থ ব্যক্তি বা অতি বৃদ্ধ কেউ থাকেন, তাকে অগ্রাধিকার দেওয়াটাও আমাদের মানবিক ও নৈতিক দায়িত্ব- এটা সবাইকে মনে রাখতে হবে।

Premium WordPress Themes Download
Download Premium WordPress Themes Free
Free Download WordPress Themes
Download Nulled WordPress Themes
udemy course download free