দঃ আফ্রিকা-পাকিস্তানের বিপক্ষে লাল জার্সি পড়বেন মাশরাফিরা!

ফুটবলেই বেশি দেখা যায় হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে জার্সি। ক্রিকেটে সেরকম চল নেই। তবে ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বেশ কয়েকটি দল দুটি জার্সি নিয়ে গিয়েছিল ভারতে। দুই রংয়ের জার্সি ছিল ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও। এবার ইংল্যান্ড বিশ্বকাপেও থাকছে হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে জার্সি। সবুজ জার্সির পাশাপাশি বাংলাদেশও ভিন্ন রংয়ের জার্সি নিয়ে গেছে। সেটি প্রায় পুরোটাই লাল।

ফুটবলেই বেশি দেখা যায় হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে জার্সি। ক্রিকেটে সেরকম চল নেই। তবে ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বেশ কয়েকটি দল দুটি জার্সি নিয়ে গিয়েছিল ভারতে। দুই রংয়ের জার্সি ছিল ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও। এবার ইংল্যান্ড বিশ্বকাপেও থাকছে হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে জার্সি। সবুজ জার্সির পাশাপাশি বাংলাদেশও ভিন্ন রংয়ের জার্সি নিয়ে গেছে। সেটি প্রায় পুরোটাই লাল।

বিশ্বকাপে একাধিক দলের জার্সির রং প্রায় এক হওয়াতে ক্রিকেটেও অ্যাওয়ে জার্সির পরিকল্পনা করা হয়েছে। শনিবার বাংলাদেশ দল নিজেদের অ্যাওয়ে জার্সিটা নতুন করে সবার সামনে এনেছে।

এবারের বিশ্বকাপে সব দলই অ্যাওয়ে জার্সি নেয়নি। ভারত, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা ও পাকিস্তানকেই শুধু অ্যাওয়ে জার্সি বানাতে হয়েছে। ভারত-শ্রীলঙ্কার দুই দলের জার্সির রং নিল। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলার সময় ভারত-শ্রীলঙ্কা দুই দলকেই অ্যাওয়ে জার্সি পরতে হবে। নীল জার্সির ইংল্যান্ড এ ক্ষেত্রে স্বাগতিক দলের সুবিধা পাবে। ইংলিশরা তাই হোম জার্সি পরেই খেলবে।

পাকিস্তান অবশ্য প্রত্যেকটা ম্যাচেই তাদের সবুজ জার্সি পরে নামতে পারবে। পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে অ্যাওয়ে জার্সি পরতে হবে। জানা গেছে, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও বাংলাদেশকে অ্যাওয়ে জার্সি পরতে হবে। সম্পূর্ণ ভিন্ন রংয়ের জার্সি থাকায় হোম বা অ্যাওয়ে জার্সির ঝামেলায় যেতে হয়নি নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে।

Premium WordPress Themes Download
Download WordPress Themes
Free Download WordPress Themes
Premium WordPress Themes Download
online free course