দক্ষিণ কোরিয়ার কাছে ক্ষমা চাইলেন কিম

দক্ষিণ কোরিয়ার নীল হাউজের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট মুনের উদ্দেশ্যে পাঠানো ওই চিঠিতে কিম জং এই ঘটনায় খুবই দুঃখ ও হতাশা প্রকাশ করেছেন। লিখেছেন, ‘আমি এই ঘটনায় দক্ষিণ কোরিয়া সরকার ও দেশটির সকল জনগণের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী’।

দক্ষিণ কোরিয়ার এক মৎস্য কর্মকতাকে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে ইনকে লেখা এক চিঠিতে কিম জং বলেছেন, ‘এই কাজটি করা তার উচিত হয়নি’। খবর বিবিসির।

দক্ষিণ কোরিয়ার নীল হাউজের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট মুনের উদ্দেশ্যে পাঠানো ওই চিঠিতে কিম জং এই ঘটনায় খুবই দুঃখ ও হতাশা প্রকাশ করেছেন। লিখেছেন, ‘আমি এই ঘটনায় দক্ষিণ কোরিয়া সরকার ও দেশটির সকল জনগণের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী’।

সিউল বলছে, ‘উত্তর কোরিয়ার সীমান্ত থেকে দশ কিলোমিটার দূরে একটি টহল নৌকা থেকে সোমবার ওই মৎস্য কর্মকর্তা নিখোঁজ হন।

পরে তাকে উত্তর কোরিয়ার জলসীমা থেকে আটক করে দেশটির সেনাবাহিনী। আটকের পর সেনারা তাকে গুলি করে হত্যার পর মরদেহে তেল ঢেলে দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়।

এই ঘটনাকে নৃশংস আখ্যায়িত করে নিন্দা জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনীর কর্মকর্তা জেনারেল আন ইয়ং-হো বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ‘আমাদের সেনাবাহিনী এ ধরনের বর্বরতার কড়া নিন্দা জানাচ্ছে। উত্তর কোরিয়ার কাছে এ ঘটনার ব্যাখ্যা চাইছি এবং দোষীদের শাস্তি দেওয়ারও দাবি জানাচ্ছি’।

আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা গেছে, মহামারী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে উত্তর কোরিয়া সীমান্তে সৈন্যদের ‘শুট টু কিলের’ নির্দেশ দিয়েছে দেশটির প্রেসিডেন্ট কিম জং উন।

Download Best WordPress Themes Free Download
Download Nulled WordPress Themes
Download Nulled WordPress Themes
Download Nulled WordPress Themes
free download udemy paid course