অাওয়ামী লীগের মনোনয়ন

দলীয় মনোনয়ন নিয়ে অাওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ ও বিক্ষোভ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে অাওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ ও বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে অনেকে সতন্ত্র প্রার্থী, দল ত্যাগ বা কেউ আবার রাজনীতি থেকে নিষ্ক্রিয় হয়ে যাচ্ছেন
dt AL

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে অাওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ ও বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে অনেকে সতন্ত্র প্রার্থী, দল ত্যাগ বা কেউ আবার রাজনীতি থেকে নিষ্ক্রিয় হয়ে যাচ্ছেন। কেউ বলছেন, জীবনে অার রাজনীতিই করবেন না। তবে এসব নেতাদের বিষয়ে দল থেকে কড়া হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আশরাফুর রহমান পদত্যাগ করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনায়ন সংগ্রহ করেছেন। তিনি ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক। পিরোজপুর-৩ মঠবাড়িয়া আসনের জন্য গতকাল সোমবার (২৬ নভেম্বর) রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জি.এম. সরফরাজের কাছ থেকে তার পক্ষে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার বাচ্চু মিয়া আকনের নেতৃত্বে এক দল মুক্তিযোদ্ধা মনোনায়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

এছাড়া ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য এমদাদুল হক নৌকা প্রতীকে দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে ঠাকুরগাঁও-৩ আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। তিনিও সোমবার পীরগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার এম রায়হান শাহর কাছ থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

নরসিংদীর শিবপুরে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন দেয়া প্রার্থী পরিবর্তনের দাবিতে বিক্ষোভ ও সমাবেশ করেছে মনোনয়ন বঞ্চিত নরসিংদী-৩ (শিবপুর) আসনের এমপি সিরাজুল ইসলাম মোল্লা ও তার অনুসারীরা। সোমবার বিকেলে উপজেলা সদরে এমপি সিরাজুল ইসলাম মোল্লার রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল শিবপুর পৌর এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে মনোনয়ন পরিবর্তনের স্লোগান দেয়া হয়। এতে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের সহস্রাধিক নেতাকর্মীসহ সমর্থকরা অংশগ্রহণ করেন।

কুমিল্লা-৪ আসনের সাবেক এমপি গোলাম মোস্তফাও এবার আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হয়েছেন। সেখানে মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুল। সোমবার কুমিল্লা জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করতে এসে অভিযোগ করেন, বর্তমান এমপি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ওপর মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলা দিয়ে অত্যাচার-নির্যাতন করেছেন। তার (রাজী মোহাম্মদ ফখরুল) বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ থাকা সত্ত্বেও আবার তাকেই মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

ঢাকা-১৩ আসনে নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করতে ভোট চাইতে গিয়ে অঝোরে কেঁদেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক। সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর মোহাম্মদপুরে সূচনা কমিউনিটি সেন্টারে এক বিশেষ বর্ধিত সভায় বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। নবম ও দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৩ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচিত হলেও এবার তাকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়নি।

মনোনয়ন না পেয়ে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় বিএনপিতে যোগ দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনি। তাকে পটুয়াখালী-৩ আসন থেকে মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি।

আওয়ামী লীগ ছাড়ার আগে গোলাম মাওলা রনি তার ফেসবুকে লেখেন, ‘আমি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাইনি। আমি নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মহান আল্লাহর ওপর নির্ভর করে নির্বাচনের মাঠে নামব। দেখা হবে সবার সঙ্গে এবং দেখা হবে বিজয়ে।’

এদিকে নেত্রকোনোয় আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন নেতাকর্মীরা। নেত্রকোনা-১ (দূর্গাপুর-কলমাকান্দা) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মানু মজুমদারের মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে সোমবার সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিল করেন মনোনয়ন বঞ্চিতের সমর্থকরা। দুপুরে কলমাকান্দা উপজেলার গুতুরা বাজার এলাকায় বিক্ষোভকারীরা সড়ক অবরোধ করে রাস্তায় শুয়ে পড়েন।

মনোনয়ন বঞ্চিতদের এমন ক্ষোভ সম্পর্কে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আপনারা জানেন, একটি আসনের বিপরীতে গড়ে ১৩ জন করে মনোনয়ন তুলেছেন। এক আসনে মনোনয়ন পাবেন একজন। সবাইকে তো খুশি করা যাবে না। তবে মনোনয়ন না পেয়ে সংগঠন বহির্ভূত কোনো কাজ করলে তাকে শাস্তির আওতায় আনা হবে। অপরাধের মাত্রা বেশি হলে প্রয়োজনে তাকে বহিষ্কার করা হবে।’

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য লেফটেন্যান্ট কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান বলেন, ‘মনোনয়ন যিনি পেয়েছেন তিনি ও তার সমর্থকরা উল্লাস করবেন -এটাই স্বাভাবিক। আর যিনি পাননি স্বভাবতই তার মন খারাপ থাকবে। কারণ, প্রার্থী হওয়ার বাসনা সবার থাকতে পারে। তাই বলে তো আর সবাইকে মনোনয়ন দেয়া সম্ভব নয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘নেত্রী (শেখ হাসিনা) যাদের যোগ্য মনে করেছেন তাদের মনোনয়ন দিয়েছেন। বিএনপি নির্বাচনে আসায় আওয়ামী লীগের জন্য চ্যালেঞ্জ বেড়েছে। এ কারণে অভিজ্ঞ ও জনপ্রিয়দের গুরুত্ব দিতে হয়েছে।’

এদিকে এখন পর্যন্ত পাওয়া তথ্যানুসারে, ৩০০ আসনের মধ্যে ২৪৭টি আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের মনোনয়নের চিঠি দেয়া হয়েঢছে। তবে দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এ তালিকায় কিছু পরিবর্তন আসতে পারে।

Download Best WordPress Themes Free Download
Premium WordPress Themes Download
Download Best WordPress Themes Free Download
Download WordPress Themes Free
udemy paid course free download