নির্বাচন পেছানোর দাবি জানালেন ট্রাম্প

নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া মার্কিন নির্বাচন পেছানোর পক্ষে মত দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) প্রথমবারের মতো নির্বাচন পেছানোর সম্ভাবনার পক্ষে নিজের অবস্থান তুলে ধরলেন তিনি। পাশাপাশি মেইলের মাধ্যমে ভোট গ্রহণে জালিয়াতি হতে পারে বলে দাবি করেন ট্রাম্প। তবে তার স্বপক্ষে কোনো প্রমাণ তিনি প্রকাশ করেননি।

নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া মার্কিন নির্বাচন পেছানোর পক্ষে মত দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) প্রথমবারের মতো নির্বাচন পেছানোর সম্ভাবনার পক্ষে নিজের অবস্থান তুলে ধরলেন তিনি।

পাশাপাশি মেইলের মাধ্যমে ভোট গ্রহণে জালিয়াতি হতে পারে বলে দাবি করেন ট্রাম্প। তবে তার স্বপক্ষে কোনো প্রমাণ তিনি প্রকাশ করেননি।

টুইটে ট্রাম্প বলেন, মেইলের মাধ্যমে ২০২০ সালের সাধারণ ভোট গ্রহণ হবে মার্কিন নির্বাচনের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় জালিয়াতি এবং প্রতারণাপূর্ণ।

যুক্তরাষ্ট্রের জন্য এটি হবে মারাত্মক বিব্রতকর।

মানুষ যতক্ষণ পর্যন্ত নিরাপদে, নিশ্চিতে ভোট দিতে না পারে, ততক্ষণ পর্যন্ত নির্বাচন পেছানো হোক।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণরোধে বহু রাজ্য মেইলের মাধ্যমে আগামী নির্বাচনে ভোট গ্রহণের কথা ভাবছে।

এরমধ্যেই অব্যাহতভাবে মেইলে ভোট গ্রহণ হলে জালিয়াতি হতে পারে বলে অভিযোগ করে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

নির্বাচন অনুষ্ঠানের তারিখ নির্ধারণ করেন মার্কিন কংগ্রেস। এটা পেছানোর কোনো সুযোগ নেই।

একইভাবে ২০২১ সালের ২০ জানুয়ারি পরবর্তী মার্কিন প্রেসিডেন্টের শপথ নেয়ার দিন নির্ধারিত।

তাও পরিবর্তনে মার্কিন সংবিধানে কোনো বিধান রাখা হয়নি।

Free Download WordPress Themes
Download WordPress Themes
Download Nulled WordPress Themes
Download Nulled WordPress Themes
udemy paid course free download