পিছিয়ে যাচ্ছে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা

ভর্তি পরীক্ষা আয়োজক কমিটির এক সদস্য জানান, প্রাথমিক আবদেন শেষ হওয়ার পর চূড়ান্ত আবেদন গ্রহণ করা হবে। এটি করতে করতে জুন মাস লেগে যাবে। এর পর প্রশ্ন প্রণয়ন, প্রশ্ন ছাপা, সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রগুলোতে প্রশ্ন নিয়ে যাওয়াসহ আরও অনেক কাজ থেকে যায়। লকডাউন হওয়ায় এই কাজগুলো করা সম্ভব হচ্ছে না। ফলে নির্ধারিত সময় ভর্তি পরীক্ষা আয়োজন করা প্রায় অসম্ভব হয়ে যাবে।

করোনা পরস্থিতিতে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর চিন্তা করছে আয়োজক কমিটি। শিগগিরই এই বিষয়ে বৈঠক করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

ভর্তি পরীক্ষা আয়োজক কমিটির এক সদস্য জানান, প্রাথমিক আবদেন শেষ হওয়ার পর চূড়ান্ত আবেদন গ্রহণ করা হবে। এটি করতে করতে জুন মাস লেগে যাবে। এর পর প্রশ্ন প্রণয়ন, প্রশ্ন ছাপা, সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রগুলোতে প্রশ্ন নিয়ে যাওয়াসহ আরও অনেক কাজ থেকে যায়। লকডাউন হওয়ায় এই কাজগুলো করা সম্ভব হচ্ছে না। ফলে নির্ধারিত সময় ভর্তি পরীক্ষা আয়োজন করা প্রায় অসম্ভব হয়ে যাবে।

এদিকে, চলমান লকডাউন ৫ মে পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। সংশ্লিষ্টদের ধারণা, এই লকডাউনের মেয়াদ ঈদ পর্যন্ত বাড়তে পারে। এই অবস্থায় শিক্ষার্থীদের আবেদনের সময় লকডাউন শেষ হওয়ার পর আরও ১০ দিন পর্যন্ত থাকবে। আবেদনের সময় বাড়ানোর ফলে ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনের সামগ্রিক কাজও পিছিয়ে যাবে। ফলে পরীক্ষা পেছানো ছাড়া বিকল্প কোনো উপায় থাকবে না।

এ প্রসঙ্গে গুচ্ছ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সমন্বিত ভর্তি কমিটির সচিব ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান বলেন, সমাগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনা করলে ১৯ জুন ভর্তি পরীক্ষা আয়োজন করা সম্ভব হবে না।

ওহিদুজ্জামান আরো বলেন, করোনার কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তাদের ভর্তি পরীক্ষা পিছিয়েছে। আমাদেরও হয়তো এমন সিদ্ধান্তই নিতে হবে। লকডাউন থাকায় পরীক্ষা সংক্রান্ত অনেক কাজ করা সম্ভব হচ্ছে না। আমরা শিগগিরই এই বিষয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

Premium WordPress Themes Download
Download Nulled WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
Download Best WordPress Themes Free Download
free online course