পৃথিবীর পঞ্চম শীর্ষ ধনী এলন মাস্ক

অনলাইন জায়ান্ট অ্যামানের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজসের জন্য সতর্কবার্তা। ৭ হাজার ৪শ' কোটি ডলারের মালিক হয়েছেন বৈদ্যুতিক গাড়ির প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান টেসলা ও মহাকাশ ভ্রমণ সংস্থা স্পেসএক্সের প্রধান নির্বাহী এলন মাস্ক। যুক্তরাষ্ট্রের বিজনেস ম্যাগাজিন ফোর্বস'র বিলিওনিয়ার তালিকায় মার্চ থেকে এখন পর্যন্ত তিনগুণ বেড়েছে তার অর্থের পরিমাণ। মার্চে ৪৯ বছর বয়সী এ ব্যবসায়ীর র‍্যাঙ্কিং ছিলো ৩১। মালিক ছিলেন মাত্র আড়াই হাজার কোটি ডলারের।

অনলাইন জায়ান্ট অ্যামানের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজসের জন্য সতর্কবার্তা। ৭ হাজার ৪শ’ কোটি ডলারের মালিক হয়েছেন বৈদ্যুতিক গাড়ির প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান টেসলা ও মহাকাশ ভ্রমণ সংস্থা স্পেসএক্সের প্রধান নির্বাহী এলন মাস্ক।

যুক্তরাষ্ট্রের বিজনেস ম্যাগাজিন ফোর্বস’র বিলিওনিয়ার তালিকায় মার্চ থেকে এখন পর্যন্ত তিনগুণ বেড়েছে তার অর্থের পরিমাণ।

মার্চে ৪৯ বছর বয়সী এ ব্যবসায়ীর র‍্যাঙ্কিং ছিলো ৩১। মালিক ছিলেন মাত্র আড়াই হাজার কোটি ডলারের।

আর  বর্তমানে এলন মাস্ক মাইক্রোসফটের প্রধান নির্বাহী স্টিভ বালমার এবং বার্কশায়ার হাথাওয়ের চেয়ারম্যান ওয়ারেন বাফেটকে টেক্কা দিয়ে পৌঁছেছেন বিলিওনিয়ারের পঞ্চম অবস্থানে।

এলনের আগের অবস্থানে ৯ হাজার কোটি ডলার নিয়ে আছেন ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ।

তৃতীয় অবস্থানে আছেন ১১ হাজার কোটি ডলারের মালিক মাইক্রোসফট প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস।

তার চেয়ে একটু বেশি অর্থের মালিক বার্নার্ড আরনাল্ট।

আর সবার শীর্ষে আছেন অ্যামাজান প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজস। তার মোট অর্থের পরিমাণ ১৮ হাজার ৯শ’ কোটি ডলার।

এর আগে ফোর্বস ম্যাগাজিনে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এলন মাস্ক বলেন, অর্থের পরিমাণ নিয়ে মোটেই চিন্তিত নন তিনি।

কারণ এগুলো সংখ্যা, এগুলোর উত্থান-পতন আছেই। সাফ্যলের সঙ্গে পণ্য তৈরি করা আর মানুষের ভালোবাসা পাওয়াই সবচেয়ে বড় বিষয়।

এই উদ্যোক্তা ২০১২ সালে ফোর্বস ম্যাগাজিনের ৪শ’ ধনী ব্যক্তির তালিকায় ১৯০তম অবস্থানে ছিলেন।

তখন তার অর্থের পরিমাণ ছিলো ২৪০ কোটি ডলার। ২০২০ সালের জানুয়ারিতে এলন বিশ্বের ৩৭তম ধনী ব্যক্তির অবস্থানে পৌঁছান।

গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলার শেয়ার জুন থেকে জুলাইয়ের মাঝে মাত্র ৩ সপ্তাহে আকাশ ছুঁয়ে ৬০ শতাংশ বেড়ে যায়।

এ বছরই টেসলার মূল্য তিনগুণ বেড়ে যায়। বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম ব্যয়বহুল গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলা।

যার বাজার মূল্য ৩০ হাজার কোটি ডলার। যা ফোর্ড, ফেরারি, জেনারেল মোটরস আর বিএমডব্লিউ’র সম্মিলিত বাজারমূল্যের সমান।

Free Download WordPress Themes
Download Premium WordPress Themes Free
Download WordPress Themes
Free Download WordPress Themes
download udemy paid course for free