ফের সিন্ডিকেট এর আশঙ্কায় মালয়েশিয়ার শ্রম বাজার!

প্রবাসীরা জানান, মালয়েশিয়া শ্রমিক রপ্তানি ক্ষেত্রে সোর্স কান্ট্রি হিসাবে বাংলাদেশের নাম অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় দেশটিতে ৪০ হাজার টাকায় জন শক্তি রপ্তানি করার প্রতিশ্রতি দিয়ে ১০ কোম্পানির সম্বনয়ে গঠিত সিন্ডিকেট অসহায় শ্রমিকদের কাছ থেকে জন প্রতি ৪ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। ১০ কোম্পানির এই সিন্ডিকেট হাজার হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ফলে মালয়েশিয়া শ্রমিক রপ্তানি হুমকির মুখে পড়ে।

মালয়েশিয়া বাংলাদেশী শ্রমিক রপ্তানি ক্ষেত্রে সিন্ডিকেটের কবল থেকে মুক্তি চায় মালয়েশিয়া প্রবাসীরা।

প্রবাসীরা জানান, মালয়েশিয়া শ্রমিক রপ্তানি ক্ষেত্রে সোর্স কান্ট্রি হিসাবে বাংলাদেশের নাম অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় দেশটিতে ৪০ হাজার টাকায় জন শক্তি রপ্তানি করার প্রতিশ্রতি দিয়ে ১০ কোম্পানির সম্বনয়ে গঠিত সিন্ডিকেট অসহায় শ্রমিকদের কাছ থেকে জন প্রতি ৪ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। ১০ কোম্পানির এই সিন্ডিকেট হাজার হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ফলে মালয়েশিয়া শ্রমিক রপ্তানি হুমকির মুখে পড়ে।

প্রবাসীরা আরো জানান, আমিন গং ও ১০ কোম্পানির সিন্ডিকেট মালয়েশিয়া বিগত সরকারের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে এসপিপি এ কোম্পানির কথা বলে ভিসা প্রসেসিং খরচ বাবদ জনপ্রতি ১ লক্ষ ৮০ হাজার জোর পূর্বক আদায়ের সিস্টেমটি চালু করে। নির্বাচনে নাজিব তুন রাজ্জাক হেরে যাওয়ার পর এই সিন্ডিকেটের মূলহোতা আমিন সহ অন্যেরা গা ঢাকা দিয়েছে। এখনো রয়ে গেছে তাদের চালু কৃত সেই অতিরিক্ত আদায়ের সেই সিস্টেমটি।

মাহাথির মোহাম্মদ সরকার ক্ষমতায় আসার পর গত বছরের পহেলা সেপ্টেম্বর থেকে এই ১০ সিন্ডিকেট ভেঙ্গে দিয়ে বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক আমদানি (কলিং ভিসা) বন্ধ করে দেন এবং তিনি জনশক্তি রপ্তানি সবার জন্য উন্নুক্ত করার ঘোষণা দেন। কিন্তু প্রবাসীরা এই প্রতিবেদক কে জানান, ১০ সিন্ডিকেটের আবার সক্রিয় হতে যাচ্ছেন। নীরবে তাদের কার্যক্রম করে যাচ্ছেন।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানায় যায়, আগামী ৮ মে ১০ সিন্ডিকেটের ১ সিন্ডিকের মালিক স্বপন ও আমিন মেডিকেল চালু করতে যাচ্ছে। যা মালয়েশিয়া প্রবাসীরা এই মেডিকেলের বিপক্ষে। প্রবাসীদের প্রশ্ন এরা কার ছত্রছায়ায় এগুলি করছে। এদের প্রতারণার কারণে বাংলাদেশ সোর্স কান্ট্রি হয়ে ও মালয়েশিয়া মূল্যায়িত হতে পারছি না।

বাংলাদেশী শ্রমিকদের কদর থাকলেও এখন মালয়েশিয়া তা আগ্রহ দেখাচ্ছে না। বিদেশী শ্রমিকদের প্রতি জোর দিচ্ছে মালয়েশিয়া সরকার। বিনা পয়সায় মালয়েশিয়া নেপাল থেকে শ্রমিক আনছে। প্রবাসীরা মনে করেন এই সিন্ডিকেট যেন মালয়েশিয়া আবার সক্রিয় না হতে পারে সরকারের সে দিকে নজর রাখার আহবান জানান। মালয়েশিয়া শ্রম বাজার হক সিন্ডিকেট মুক্ত।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় ও মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস ইতিমধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন মালয়েশিয়া শ্রম বাজারে কোন সিন্ডিকেট করতে দেওয়া হবে না। শ্রম বাজার সবার জন্যে উম্মুক্ত থাকবে।

উল্লেখ্য , গত বছরের সেপ্টেম্বর মাস থেকেই কলিং ভিসা এখনও বন্ধ আছে। মালয়েশিয়াস্থ অবৈধদের বৈধকরণ প্রক্রিয়া ( রিহায়ারিং) বন্ধ করে দেয় সরকার এবং কবে নাগাদ বৈধকরণ প্রক্রিয়া আবার চালু হবে এ ব্যপারে কিছুই বলেনি মালয়েশিয়ার সরকার।

Download Premium WordPress Themes Free
Download Premium WordPress Themes Free
Download Premium WordPress Themes Free
Download WordPress Themes Free
online free course