বিয়ে নিয়ে দেশে দেশে অদ্ভুত সব আইন

বিয়ে ও বিচ্ছেদ নিয়ে সারা বিশ্বে নানা বিচিত্র নিয়মকানুন ছড়িয়ে আছে। অনেকেরই হয়তো জানা নেই সেসব নিয়মের কথা। জেনে নেয়া যাক সেসব অদ্ভুত নিয়মের কথা

বিয়ে ও বিচ্ছেদ নিয়ে সারা বিশ্বে নানা বিচিত্র নিয়মকানুন ছড়িয়ে আছে। অনেকেরই হয়তো জানা নেই সেসব নিয়মের কথা। জেনে নেয়া যাক সেসব অদ্ভুত নিয়মের কথা

সন্তান ধারণে বিধিনিষেধ

কিছু বৈজ্ঞানিক গবেষণার তথ্য- নিকটাত্মীয় বা রক্তের সম্পর্কের মধ্য বিয়ে হলে সন্তান হতে পারে প্রতিবন্ধী বা শারীরিকভাবে অপরিপক্ব।
আর এ কথাকে মাথায় রেখে যুক্তরাষ্ট্রের ২৬ প্রদেশে আপন চাচাতো ভাইবোনদের মধ্যে বিয়ে নিয়ে রয়েছে একটি আইন।

এমন বিয়েতে নিরুৎসাহিত করলেও বাধা দেয় না প্রশাসন। তারা বিয়ে করতে পারেন কিন্তু সন্তান নেয়া যাবে না।

পরবর্তী প্রজন্ম যেন জিনগত ত্রুটি ও শারীরিক সমস্যা নিয়ে না জন্মায় সে ধারণা থেকেই সন্তান ধারণের জন্য বিধিনিষেধের এমন অদ্ভুত আইন রয়েছে দেশটির সেসব প্রদেশে।

যদিও এ আইনের প্রয়োগ এখন হচ্ছে কিনা সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি।

মৃত মানুষকে বিয়ে

ইউরোপের দেশ ফ্রান্সে রয়েছে বিয়ে বিষয়ে আরেকটি অদ্ভুত আইন। আইনটি হলো- রাষ্ট্রপতির অনুমতি সাপেক্ষে মৃত মানুষকে আয়োজন করে বিয়ে করা যাবে। তবে রাষ্ট্রপতি থেকে অনুমতি নিতে প্রয়োজন পড়বে কিছু প্রমাণাদির।

মৃত মানুষটি জীবদ্দশায় ওই পুরুষ বা নারীকে ভালোবাসত কিনা বা তাদের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল কিনা, এসব তথ্যাদি পেশ করতে হয় রাষ্ট্রপতির সমীপে।

এক বছরের খোরপোষ দিলেই

আমেরিকার টেনেসিপ্রদেশে বিবাহবিচ্ছেদের জন্য রয়েছে খোরপোষবিষয়ক একটি আইন।

আইনটি হলো- স্ত্রীর এক বছর চলে যাবে এমন পরিমাণ খাবারের জোগান দিতে পারলে একজন স্বামী যে কোনো মুহূর্তে আর কোনো কারণ না দেখিয়েই স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটাতে পারেন।

খাবারের তালিকায় রয়েছে- শুকনো শস্যদানা, শুকনো আপেল, মাংস। আর পরিধানের জন্য উল। স্ত্রীর জন্মদিন ভুলে গেলে!

ছোট্ট দ্বীপরাষ্ট্র ওশেনিয়ার সামোয়া। সেখানে রয়েছে বিয়েবিষয়ক অদ্ভুত এক আইন। জন্মদিনকে বেশ গুরুত্ব দিয়ে থাকে দেশটি।

সেখানে কোনো স্বামী যদি তার স্ত্রীর জন্মদিন ভুলে যায় ও সময়মতো শুভেচ্ছা না জানায়, তা হলে রাষ্ট্রপক্ষ থেকে সেই স্ত্রী তার ভুলোমনা স্বামীকে ডিভোর্স দেয়ার অধিকার পেয়ে যান।

কিন্তু আইনটি স্ত্রীর বেলায় প্রযোজ্য নয়।

রোববার স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া নয়

যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডোয় রয়েছে একটি আইন। রোববারে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া করতে একেবারেই নিষেধ। অন্যদিনগুলোতে যত খুশি ঝগড়া করুক সমস্যা নেই।

রোববার স্ত্রীর সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করলেই বিপদ। শুধু বিচ্ছেদই নয় স্বামীকে কারাগারেও পাঠাতে পারেন স্ত্রী।

বিয়ের ঘোষণার সময়

ইচ্ছেমতো দিনে বিয়ে করা যায়না মোনাকোয়। দেশটির নিয়মানুযায়ী, দুটি রোববারসহ মোট দশ দিন হাতে রেখে বিয়ের ঘোষণা দিতে হবে। তারপরেই বিয়ে করতে পারবেন হবু স্বামী-স্ত্রী। তা না করলে সে বিয়ে বৈধতা পায়না সেখানে।

Download Premium WordPress Themes Free
Download WordPress Themes
Download WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
free download udemy paid course