বুদ্ধি বাড়ে ৭ কারণে

আপনি কি বুদ্ধিমান, নাকি বোকা? এমন প্রশ্নের হুটহাট উত্তর দেয়া যেকোনও ব্যক্তির পক্ষেই কিছুটা কঠিন। তবে তীক্ষ্ণ বুদ্ধির অধিকারী একজন মানুষেরও যে বুদ্ধির লোপ পেতে পারে কিংবা অল্প বুদ্ধির কোনও মানুষও যে সুনির্দিষ্ট কৌশল অবলম্বন করে হয়ে উঠতে পারেন বুদ্ধিমান সেটিও কিন্তু অস্বীকার করার উপায় নেই। 

আপনি কি বুদ্ধিমান, নাকি বোকা? এমন প্রশ্নের হুটহাট উত্তর দেয়া যেকোনও ব্যক্তির পক্ষেই কিছুটা কঠিন। তবে তীক্ষ্ণ বুদ্ধির অধিকারী একজন মানুষেরও যে বুদ্ধির লোপ পেতে পারে কিংবা অল্প বুদ্ধির কোনও মানুষও যে সুনির্দিষ্ট কৌশল অবলম্বন করে হয়ে উঠতে পারেন বুদ্ধিমান সেটিও কিন্তু অস্বীকার করার উপায় নেই।

কার বুদ্ধিমত্তা কতটা, তা জানবেন কী করে? মানুষের বুদ্ধি মাপতে হলে হিসাব নেয়া হয় তার বুদ্ধ্যঙ্ক (আইকিউ)-এর (IQ বা Intelligence Quotient) ভিত্তিতে।

গবেষকদের দাবি- বিশ্বের মোট জনসংখ্যার মাত্র ২ শতাংশ ‘আইকিউ ওয়ার্ল্ড টেস্ট’-এ ১৩০-র (যা অত্যন্ত বুদ্ধিমান ব্যক্তির পক্ষেই পাওয়া সম্ভব) উপরে নম্বর পান।

আপনি নিশ্চয়ই বোকা হয়ে থাকতে চান না। নিশ্চয়ই আপনি জ্ঞানীগুণী বুদ্ধিমানের মতোই বাঁচতে চান। চিন্তিত হবে না। ধীরে ধীরে বুদ্ধির তলোয়ারে শাণ দিয়ে আপনি হয়ে উঠতে পারেন অতি বুদ্ধিমান।

আর এজন্য ইন্টেলিজেন্স কোসেন্ট (আইকিউ) বাড়াতে নিচের কৌশলগুলোতে চোখ রাখুন এবং মেনে চলার চেষ্টা করুন:

১. সবসময় এমন কাজগুলো বাছাই করতে হবে যেগুলোতে আপনার ব্রেন সেল বা গ্রে ম্যাটার বৃদ্ধি পায়। সঙ্গে স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবারের তো বিকল্পই নেই। কেননা পুষ্টিকর খাবার আপনার ব্রেনে সব তথ্য সহজে ধারণ করতে সাহায্য করবে। বিশেষত কমলা ও ভিটামিন ‘সি’ সমৃদ্ধ ফল মস্তিষ্ক উন্নত হয়।

২. বুদ্ধিকে প্রখর করতে ব্যায়াম করা জরুরি। কথায় বলে- অলস মস্তিষ্ক শয়তানের কারখানা। তাই সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠে ব্যায়ামের জন্য প্রস্তত হোন। কারণ, ব্যায়াম শরীরের রক্ত মস্তিষ্কে ভালোভাবে সঞ্চালনে সহায়তা করে। দৌড়ানো, জগিং করার মতো কার্ডিওভাস্কুলার এক্সারসাইজ করলে আইকিউ বাড়ে।

৩. গবেষকরা মনে করেন, প্রতিদিন নিয়ম করে মেডিটেশন করলে গ্রে ম্যাটার বৃদ্ধি পায়। উন্নত হয় আইকিউ।

৪. আমরা অনেক সময় টিভি দেখে কিংবা ঘুমিয়ে অলস সময় কাটাই। কিন্তু ওই সময়গুলোতে একটি ক্রস ওয়ার্ড, সুডোকু, মেমোরি গেমস খেললে বুদ্ধি ধারালো হয়।

৫. মাঝে মাঝে ইন্টারেস্টিং বই পড়া বা তথ্যবহুল মুভি কিংবা ডকুমেন্টারি দেখলে আইকিউ বাড়ে।

৬. আমরা অনেকেই সাংস্কৃতিক জগতের সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে তুলতে পারি না। শৈল্পিক ভাবভাবনাগুলো থেকে নিজেকে দূরে রাখি। অথচ গান গাওয়া, পেইন্টিং করার মতো কাজগুলো নিশ্চিতভাবেই মানুষের বুদ্ধিকে আরও শাণিত করে।

৭. ‘ধূমপান স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর, ইহা মৃত্যুর কারণ’- সংবিধিবদ্ধ এমন সতর্কীকরণ দেখেও সবকিছু জেনেবুঝেও আমরা ধূমপানে আসক্ত হই। অথচ এই ধুমপান আপনার ব্রেন সেলের ক্ষতি করে আইকিউ দুর্বল করে দেয়। ফলে বুদ্ধিমান যদি হতে চান এখনই ধূমপানকে ‘না’ বলুন।

Premium WordPress Themes Download
Free Download WordPress Themes
Download WordPress Themes
Download Nulled WordPress Themes
free download udemy paid course