‘ভারতীয় সমর্থকদের মতো স্মিথকে ধুয়ো দেবে না পাকিস্তানিরা’

ভারতের ইনিংস চলাকালেই বাউন্ডারি লাইনে দাঁড়িয়ে ফিল্ডিং করছিলেন স্টিভেন স্মিথ। তখন গ্যালারি থেকে তাকে ‘চিটার, চিটার’ বলে গালি দেয়ার সঙ্গে উত্যক্ত করারও চেষ্টা চলছিল।

চলতি বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়াকে ৩৬ রানে হারিয়ে চলতি বিশ্বকাপে টানা টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে ভারত। দক্ষিণ আফ্রিকায় সেই বল বিকৃতি কাণ্ডের আঁচ পড়েছিল রোববার (০৯ জুন) ইংল্যান্ডের রাজধানী লন্ডনের দ্য ওভাল স্টেডিয়ামে ভারত-অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপের ম্যাচে।

ইংল্যান্ডে পা দেওয়া ইস্তক স্মিথদের যে কারণে নানা ধরনের বিদ্রুপ সহ্য করতে হচ্ছে। ওভালে ভারতীয় সমর্থকেরাও সেই একই ‘বিদ্রুপ’করায় সরব হন।

ভারতের ইনিংস চলাকালেই বাউন্ডারি লাইনে দাঁড়িয়ে ফিল্ডিং করছিলেন স্টিভেন স্মিথ। তখন গ্যালারি থেকে তাকে ‘চিটার, চিটার’ বলে গালি দেয়ার সঙ্গে উত্যক্ত করারও চেষ্টা চলছিল।

কিন্তু ওই সময় হঠাৎই স্টিভেন স্মিথের পক্ষে দাঁড়ান বিরাট কোহলি। ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে এসে হাত দিয়ে ইশারা করে ভারতীয় সমর্থকদেরকে নিষেধ করেন স্মিথদের গালি দিতে। কোহলির আহ্বানে সমর্থকরা ধুয়ো ধ্বনি দেয়া বন্ধ করে ঠিকই। কিন্তু কোহলির মধ্যে আত্মসমালোচনা বোধটা থেকে যায়।

যে কারণে ম্যাচ শেষে জয়ী দলের অধিনায়ক হিসেবে সংবাদ সম্মেলনে এসে বিরাট কোহলি মিডিয়ার মাধ্যমে ভারতীয় সমর্থকদের পক্ষ থেকে স্টিভেন স্মিথের ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

চলতি বিশ্বকাপের ১৭তম ম্যাচে বুধবার (১২ জুন) মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তান। ইংল্যান্ডের টনটন শহরে অবস্থিত ক্রিকেট স্টেডিয়াম কাউন্টি গ্রাউন্ডে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায়। তবে সে ম্যাচে এমন কিছুই হবে না বলে আশ্বাস দিলেন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।

তিনি বলেন, আমি মনে করি না, পাকিস্তানি সমর্থকরা স্মিথের প্রতি ধুয়ো দেবে। পাকিস্তানি মানুষেরা ক্রিকেটকে ভালোবাসে। তারা সমর্থন দিতে ভালোবাসে এবং খেলোয়াড়দেরও ভালোবাসে।

বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগেই নিজেদের ঘরের মাঠে (আরব আমিরাত) অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৫-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে পাকিস্তান। তাই ধারণা করা হচ্ছে, বিশ্বকাপে তাদের বিপক্ষে নামার আগে কিছুটা পিছিয়ে থাকবে সরফরাজ আহমেদের দল; কিন্তু সে বিষয়টা মেনে নিলেন না পাকিস্তান অধিনায়ক।

সরফরাজ বলেন, আমি মনে করি, হোয়াইটওয়াশ হওয়াটা এখন অতীত। আমরা সেটা নিয়ে আর ভাবছি না। আমরা শুধু আজকের (বুধবার) ম্যাচ নিয়েই ভাবছি। সুতরাং আমাদের মনোবল খুবই উঁচু এবং আমরা আমাদের সেরাটা দিয়েই চেষ্টা করব।

বিশ্বকাপে পাকিস্তান-অস্ট্রেলিয়া দ্বৈরথ বেশ জমজমাট। এখন পর্যন্ত ৯ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে দু’দল। পাকিস্তানের জয় ৪টি, অস্ট্রেলিয়ার ৫টি।

Download Premium WordPress Themes Free
Download Premium WordPress Themes Free
Download Premium WordPress Themes Free
Download WordPress Themes Free
free online course