ভিভো সরে যাওয়ায় আর্থিক সংকট হবে না, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড অনেক শক্তিশালী: গাঙ্গুলী

ভিভোকে আইপিএলের স্পন্সর থেকে কেন বাদ দেয়া হবে না সেটি নিয়েই প্রশ্ন তুলেছিলেন ভারতের নাগরিকরা।  শেষ পর্যন্ত ভারতীয়দের সমালোচনার তোপে এবারের আসরের প্রধান স্পন্সর চীনা এই কোম্পানি নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছে। স্পন্সর প্রসঙ্গে এবার মুখ খুললেন সৌরভ গাঙ্গুলী। তিনি বলেন, 'আমি মনে করি না ভিভোর অনুপস্থিতিতে আমাদের আর্থিক সংকটে পড়তে হবে। এটা হয়তো সাময়িক সময়ের জন্য। পরিস্থিতি সামলে নেয়ার সব ধরনের ব্যবস্থা আছে বোর্ডের।' গাঙ্গুলী আরো বলেন, 'ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড অনেক শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান।

আইপিএল থেকে টাইটেল স্পন্সর চীনা মোবাইল ফোন প্রস্তুতকারী কোম্পানি ভিভোর সরে যাওয়া সাময়িক।

এর ফলে কোন ধরণের আর্থিক সংকট হবে না। এমনটাই মনে করছেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলী।

ভারত-চীন সীমান্ত সংকটকে কেন্দ্র করে আইপিএল বর্জনেরও ডাক দেয় ভারতীয় সমর্থকরা।

ভিভোকে আইপিএলের স্পন্সর থেকে কেন বাদ দেয়া হবে না সেটি নিয়েই প্রশ্ন তুলেছিলেন ভারতের নাগরিকরা।

শেষ পর্যন্ত ভারতীয়দের সমালোচনার তোপে এবারের আসরের প্রধান স্পন্সর চীনা এই কোম্পানি নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

স্পন্সর প্রসঙ্গে এবার মুখ খুললেন সৌরভ গাঙ্গুলী।

তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি না ভিভোর অনুপস্থিতিতে আমাদের আর্থিক সংকটে পড়তে হবে।

এটা হয়তো সাময়িক সময়ের জন্য। পরিস্থিতি সামলে নেয়ার সব ধরনের ব্যবস্থা আছে বোর্ডের।’

গাঙ্গুলী আরো বলেন, ‘ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড অনেক শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান।

শেষ মুহূর্তে স্পন্সর চলে যাওয়ায় আমরা ‘প্লান বি’ অর্থাৎ বিকল্প ব্যবস্থায় এগুবো। আমাদের দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা আছে।

সেটি বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করবো। এমন সংকট মোকাবিলা করেই এগিয়ে যেতে হবে।’

এর আগে ২০১৮ সালে ২ হাজার ১৯৯ কোটি রুপির বিনিময়ে পাঁচ বছরের জন্য আইপিএলের প্রধান স্পন্সরশিপ পায় ভিভো।

সেই চুক্তি অনুযায়ী এবারের আসরেও আইপিএলের প্রধান স্পন্সর হিসেবে থাকার কথা ছিল ভিভোর।

তবে চলতি আসরে আইপিএলে স্পন্সর হিসেবে না থাকলেও ২০২১, ২০২২ এবং ২০২৩ আইপিএলে স্পন্সর হিসেবে থাকতে চায় ভিভো।

Free Download WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
Free Download WordPress Themes
Download Best WordPress Themes Free Download
udemy paid course free download