ভিসা জটিলতায় এমবিবিএস ফাইনাল পরীক্ষায় বসতে পারছে না অর্ধশতাধিক ভারতীয় শিক্ষার্থী

ভিসা জটিলতায় ফিরতে না পারায় ১৭ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এমবিবিএস ফাইনাল পরীক্ষায় অংশ নিতে পারছেন না রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন রংপুরসহ অন্যান্য অঞ্চলের প্রাইভেট মেডিকেল কলেজগুলোতে অধ্যয়নরত অর্ধশতাধিক ভারতীয় শিক্ষার্থী। করোনাভাইরাসের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ছুটি ঘোষণা করা হলে এসব বিদেশি শিক্ষার্থী নিজ নিজ দেশে চলে যান। স্বাভাবিক নিয়মে মে মাসে এমবিবিএস ফাইনাল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ফলে পরীক্ষা স্থগিত হয়ে যায়।

ভিসা জটিলতায় ফিরতে না পারায় ১৭ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এমবিবিএস ফাইনাল পরীক্ষায় অংশ নিতে পারছেন না রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন রংপুরসহ অন্যান্য অঞ্চলের প্রাইভেট মেডিকেল কলেজগুলোতে অধ্যয়নরত অর্ধশতাধিক ভারতীয় শিক্ষার্থী।

করোনাভাইরাসের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ছুটি ঘোষণা করা হলে এসব বিদেশি শিক্ষার্থী নিজ নিজ দেশে চলে যান।

স্বাভাবিক নিয়মে মে মাসে এমবিবিএস ফাইনাল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ফলে পরীক্ষা স্থগিত হয়ে যায়।

পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ১৭ অক্টোবর থেকে পরীক্ষা গ্রহণের তারিখ পুনর্নির্ধারণ করে।

পরবর্তীতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আরেক দফা তারিখ পিছিয়ে ২৮ অক্টোবর নির্ধারণ করলেও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলো পূর্বনির্ধারিত ১৭ অক্টোবর থেকে পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত বহাল রেখেছে।

নেপাল ও ভুটানসহ অন্যান্য দেশের শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশে ফিরে এলেও ভারতীয় শিক্ষার্থীরা এখন পর্যন্ত আসতে পারেননি।

জানা যায়, বুধবার (১৪ অক্টোবর) থেকে ভারতীয় শিক্ষার্থীদের ভিসা প্রদান শুরু হলেও স্বল্প সময়ে ভিসা নিয়ে বাংলাদেশে এসে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে তাদের।

নির্ধারিত ১৭ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া পরীক্ষার তারিখ পেছানো না হলে রংপুরের সবকটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজে অধ্যয়নরত ভারতীয় অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী এই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, বাংলাদেশের অধিকাংশ বেসরকারি মেডিকেল কলেজে বিদেশি শিক্ষার্থীরা পড়াশোনা করেন।

বুধবার (১৪ অক্টোবর) থেকে ভারতীয় শিক্ষার্থীদের ভিসা দেয়া শুরু হলেও প্রক্রিয়াগত কারণে ৪-৫ দিন সময় লাগবে।

তার ওপর ফরম ফিলাপসহ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ সংক্রান্ত কোনো প্রক্রিয়াই সম্পন্ন না হওয়ায় ১৭ অক্টোবরে পরীক্ষায় কোনোভাবেই তাদের অংশগ্রহণ সম্ভব নয়।

সার্বিক বিষয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা অনুষদের ডিন ও রাজশাহী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মো. নওশাদ আলীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট দফতরের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এক মাস আগে পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

এই সময়ের মধ্যে শিক্ষার্থীদের আনতে না পারা সংশ্লিষ্ট কলেজ কর্তৃপক্ষের ব্যর্থতা।

তবে কলেজ কর্তৃপক্ষ বিদেশি শিক্ষার্থীদের দু-চার দিনের মধ্যে নিয়ে আসার প্রতিশ্রুতি দিলে পরীক্ষা ৭ দিন পেছাতে আপত্তি নেই।

Download WordPress Themes Free
Download Premium WordPress Themes Free
Free Download WordPress Themes
Free Download WordPress Themes
download udemy paid course for free