মিস্ত্রীর মেয়ে পেলো যুক্তরাষ্ট্রে ২৪ লাখ টাকার শিক্ষাবৃত্তি!

দিল্লির দরিদ্র বৈদ্যুতিক মিস্ত্রীর মেয়ে, মেধাবী সুবিয়া পারভীন; বৃত্তি হিসাবে পাচ্ছেন ২৮ হাজার মার্কিন ডলার, বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২৪ লাখ টাকার সমান। সুবিয়া পারভীন ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির জামিয়া সিনিয়র সেকেন্ডারি স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী।

দিল্লির দরিদ্র বৈদ্যুতিক মিস্ত্রীর মেয়ে, মেধাবী সুবিয়া পারভীন; বৃত্তি হিসাবে পাচ্ছেন ২৮ হাজার মার্কিন ডলার, বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২৪ লাখ টাকার সমান। সুবিয়া পারভীন ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির জামিয়া সিনিয়র সেকেন্ডারি স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী।

তার এমন অর্জন নিয়ে স্থানীয়ভাবে যেন উৎসবের জোয়ার এসেছে। সুবিয়া দরিদ্র ইলেক্ট্রেসিয়ান কালিমুদ্দিন আহমেদের ছোট মেয়ে। ছোট থেকেই সে খুব মেধাবী। এবছর সে মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছে। তার আশা মাধ্যমিকে সে প্রথম হবে। এর আগেও সে স্কুলে ও স্কুলের বাইরের বিভিন্ন শিক্ষা মূলক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে অনেক পুরস্কার জিতেছে। ভবিষ্যতে সে একজন সফল বিজ্ঞানী হতে চায়।

ভারতীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, দিল্লির জামিয়া সিনিয়র মাধ্যমিক স্কুলের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী সুবিয়া পারভীন। যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতা ও অর্থায়নে পরিচালিত ‘কেনেডি-লুগার ইয়ুথ একচেঞ্জ অ্যান্ড স্টাডি’ (ওয়াইইএস) স্কলারশিপের জন্য মনোনীত হয়েছে সুবিয়া।

প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, দশ মাস মেয়াদী ওই স্কলারশিপের আওতায় শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য সুবিয়াকে ২৮ হাজার মার্কিন ডলার দেয়া হবে। আর এই প্রোগ্রামের মেয়াদ চলতি বছরের আগস্টে শুরু হয়ে শেষ হবে ২০২০ সালের জুনে।

সুবিয়ার বাবার নাম কলিম উদ্দিন আহমেদ। তিনি দিল্লির জামিয়া এলাকায় বৈদ্যুতিক মিস্ত্রীর কাজ করেন। সুবিয়া ছোট থেকেই জামিয়া স্কুলে পড়ছে। মেধাবী শিক্ষার্থী হিসেবে তার খুব নাম আছে স্কুলে। চলতি বছরে দশম শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় বসবে সে।

তার শিক্ষকরা জানালেন, বোর্ড পরিক্ষায় নিশ্চিতভাবেই মেধা তালিকার শীর্ষে থাকবে তার নাম। তা ছাড়া শুধু ভালো ছাত্রী নয় স্কুলে কিংবা স্কুলের বাইরে বিভিন্ন শিক্ষা ও সহশিক্ষা প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে বেশ কিছু পুরস্কারও অর্জন করেছে সুবিয়া। সে ভবিষ্যতে বিজ্ঞানী হতে চায়।

তার স্কুলের রেজিস্ট্রার এ পি সিদ্দিকি এমন অর্জনের জন্য সুবিয়াকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, ‘ইয়ুথ একচেঞ্জ অ্যান্ড স্টাডি প্রোগ্রামের নির্বাচন প্রক্রিয়া খুব প্রতিযোগিতামূলক। আর এত প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে মনোনীত হওয়ার এই মুহূর্ত সুবিয়া ও আমাদের স্কুলের জন্য গর্বের ব্যাপার।’

Download WordPress Themes
Free Download WordPress Themes
Download Best WordPress Themes Free Download
Premium WordPress Themes Download
free download udemy course