মেসেঞ্জারের কথোপকথন শুনছিলেন ফেসবুক কর্মীরা

ফেইসবুক গ্রাহকের ভয়েস রেকর্ডিংয়ের প্রতিলিপি করতে শত শত কর্মীকে বেতন দেওয়া হয়েছে বলে উঠে এসেছে নতুন এক প্রতিবেদনে। এসব কর্মী মেসেঞ্জারে গ্রাহকের কথপোকথন শুনে সেগুলোর প্রতিলিপি করতেন বলে জানানো হয়েছে।

ফেইসবুক গ্রাহকের ভয়েস রেকর্ডিংয়ের প্রতিলিপি করতে শত শত কর্মীকে বেতন দেওয়া হয়েছে বলে উঠে এসেছে নতুন এক প্রতিবেদনে। এসব কর্মী মেসেঞ্জারে গ্রাহকের কথপোকথন শুনে সেগুলোর প্রতিলিপি করতেন বলে জানানো হয়েছে।

গুগল, অ্যাপল, মাইক্রোসফট এবং অ্যামাজনের পর এবার ফেইসবুকও স্বীকার করেছে যে, এ ধরনের কাজের জন্য তারা তৃতীয় পক্ষের কর্মীদের ব্যবহার করেছে। এক সপ্তাহের বেশি সময় আগে তারা এই কাজ বন্ধ করেছে। খবর বিবিসি’র।

ফেসবুকের বরাত দিয়ে বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ব্যবহারকারীদের মেসেঞ্জারের কথোপকথন শোনার কার্যক্রম এক সপ্তাহ আগে বন্ধ করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এদিকে ব্লুমবার্গ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মেসেঞ্জারের রেকর্ডিং কর্মীদের কাছে সরবরাহ করতো ফেসবুক। তবে কর্তৃপক্ষ এসব রেকর্ডিং কীভাবে সংগ্রহ করতো সেই পদ্ধতি সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি।

ফেসবুক জানায়, ব্যবহারকারীদের মেসেঞ্জারের কথোপকথনের প্রতিলিপি তৈরি করা হয়েছে ম্যানুয়ালি। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তি ব্যবহার করে স্বয়ংক্রিয়ভাবে প্রতিলিপি তৈরির পদ্ধতিটি যেন আরও উন্নত করা যায় সেজন্য এই কাজটি করা হয়েছে।

ফেসবুক আরও জানায়, ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে তখনই কথোপকথনের রেকর্ডিং সংগ্রহ করা হয়েছে যখন তারা মাইক্রোফোনে একসেসে সম্মতি দিয়েছে। অর্থাৎ, আপনি মাইক্রোফোন একসেসে সম্মতি দিয়ে থাকলে আপনার কথোপকথনেরও প্রতিলিপি তৈরি করে থাকতে পারে ফেসবুক।

Download Nulled WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
Download WordPress Themes Free
Free Download WordPress Themes
free download udemy paid course