রং ফর্সাকারী ক্রিমে ক্যান্সারের ঝুঁকি, যুক্তরাজ্যে সতর্কতা

ত্বকের রং ফর্সা করার জন্য বাজারে ক্রিম পাওয়া যায়। যা অনেক মা-বাবা তাদের ছোট শিশুটির ত্বক ফর্সা করার জন্যও কিনে থাকেন। আবার এটি ব্যবহারের তালিকায় বড়রাও আছেন। বিশেষ করে মেয়েরা। ত্বক ফর্সা না হলে তাদের মনে দুঃখ কাজ করে। কিন্তু জানেন কি, যুক্তরাজ্যের রং ফর্সাকারী ক্রিম ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতকর্তা জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়, যে কোনো মূল্যে এ ধরনের পণ্য ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

ত্বকের রং ফর্সা করার জন্য বাজারে ক্রিম পাওয়া যায়। যা অনেক মা-বাবা তাদের ছোট শিশুটির ত্বক ফর্সা করার জন্যও কিনে থাকেন। আবার এটি ব্যবহারের তালিকায় বড়রাও আছেন। বিশেষ করে মেয়েরা। ত্বক ফর্সা না হলে তাদের মনে দুঃখ কাজ করে। কিন্তু জানেন কি, যুক্তরাজ্যের রং ফর্সাকারী ক্রিম ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতকর্তা জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়, যে কোনো মূল্যে এ ধরনের পণ্য ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

স্বাভাবিকভাবে প্রশ্ন আসতে পারে, হঠাৎ করে কেন এই সতর্কবার্তা? তবে জানুন, দেশটির লোকাল গভর্নমেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের (এলজিএ) এই সতর্কবার্তায় বলা হচ্ছে, ত্বকের উপরিভাগের একটি স্তরকে ধ্বংস করে দেওয়ার উপাদান রং ফর্সাকারী ক্রিমে রয়েছে। সম্প্রতি দেশটিতে বাণিজ্য মান নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তাদের হাতে এ ধরনের কিছু পণ্য জব্দ হওয়ার পর এই হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়।

সতর্কবার্তায় আরও বলা হয়, এই পণ্যে ক্ষতিকর রাসায়নিক উপাদান হাইড্রোকুইনোন রয়েছে। এছাড়া অনেক ক্রিমে মার্কারি বা পারদ পাওয়ার কথাও উল্লেখ করা হয়েছে এই সতর্কবার্তায়।

স্থানীয় সরকার কর্তৃপক্ষের সতর্কবার্তায় বলা হচ্ছে, রং ফর্সাকারী ক্রিমে থাকা এসব উপাদান ত্বকের উপরিভাগের একটি স্তরকে ধ্বংস করে দিতে পারে।

সম্প্রতি দেশটিতে বাণিজ্যমান নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তাদের হাতে এ ধরনের কিছু পণ্য জব্দ হওয়ার পর এ হুঁশিয়ারি দেয়া হয়। এতে বলা হয়েছে, অনেক পণ্যে ক্ষতিকর রাসায়নিক উপাদান হাইড্রোকুইনোন থাকে। এছাড়া অনেক ক্রিমে মার্কারি বা পারদ থাকার কথাও জানা গেছে।

সংস্থাটি বলছে, কিছু খুচরা ব্যবসায়ী, অনলাইন, বাজারের কিছু দোকানীসহ এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ীরা এ ধরনের পণ্য বিক্রি করছে।

তারা সবসময় পণ্যের সঠিক মাত্রা উল্লেখ করে না, যার কারণে ভোক্তারা স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়েন।

চিকিৎসকের অনুমোদন ছাড়া যুক্তরাজ্যে হাইড্রোকুইনোন, স্টেরিয়ড বা পারদ রয়েছে এমন ক্রিম তাদের মারাত্মক ক্ষতিকর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কারণে দেশটি এ সিদ্ধান্ত নেয়।

সংস্থাটির নিরাপদ ও শক্তিশালী কমিউনিটি বোর্ডের চেয়ারম্যান সিমন ব্ল্যাকবার্ন বলেন, নিষিদ্ধ পণ্যসমৃদ্ধ ত্বকের ক্রিম খুবই বিপজ্জনক এবং এগুলো স্বাস্থ্যের মারাত্মক ক্ষতি করতে পারে, সারা জীবনের জন্য ক্ষতির কারণ হতে পারে এমনকি মৃত্যু পর্যন্ত ডেকে আনতে পারে, তাই এগুলোকে যেকোনো মূল্যে এড়িয়ে চলা উচিত।

ব্রিটিশ স্কিন ফাউন্ডেশনের মুখপাত্র লিসা বিকারস্টাফে বলেন, বছরের পর বছর ধরে অবৈধ রং ফর্সাকারী ক্রিমের ইস্যুটি চলেই আসছে। কাউন্টার কিংবা অনলাইনে অবৈধ উপায়ে এসব ক্রিম বিক্রির কারণেই এই সমস্যা বেড়ে চলেছে কিনা তা নিশ্চিত হওয়া বেশ কঠিন।

Download WordPress Themes Free
Download WordPress Themes
Download Best WordPress Themes Free Download
Download Nulled WordPress Themes
download udemy paid course for free