রকিবুলকে মারতে তেড়ে গেলেন সুজন!

জাতীয় দলের সাবেক দুই অধিনায়কের ঘটেছে বাকবিতণ্ডা। আর তা গড়াচ্ছিলো মারামারির পর্যায়ে। ঘটনাটি ঘটেছে বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক রকিবুল হাসান ও খালেদ মাহমুদ সুজনের মধ্যে। দুজনের মধ্যের এই ঝগড়ার এক পর্যায়ে রকিবুল হাসানকে মারতে তেড়ে যান খালেদ মাহমুদ সুজন।

জাতীয় দলের সাবেক দুই অধিনায়কের ঘটেছে বাকবিতণ্ডা। আর তা গড়াচ্ছিলো মারামারির পর্যায়ে। ঘটনাটি ঘটেছে বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক রকিবুল হাসান ও খালেদ মাহমুদ সুজনের মধ্যে। দুজনের মধ্যের এই ঝগড়ার এক পর্যায়ে রকিবুল হাসানকে মারতে তেড়ে যান খালেদ মাহমুদ সুজন।

শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে দেশের সাবেক কিংবদন্তি ক্রিকেটারদের নিয়ে আয়োজিত লিজেন্ডস চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে অপ্রত্যাশিত একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে সিনিয়র ক্রিকেটার রকিবুল হাসানের দিকে মারার উদ্দেশে তেড়ে যান ক্যাসিনো কাণ্ডে সমালোচিত খালেদ মাহমুদ সুজন।

সুজনের এমন ঘটনায় হতবাক সাবেকদের অনেকেই। অনেকে এগিয়ে গিয়ে সুজনকে আটকানোর চেষ্টা করেন। তবে সুজনকে সামলাতে বেশ বেগই পেতে হয়েছে তাদের। এর মধ্যেই এই বোর্ড পরিচালক রাগ আটকাতে না পেরে উপড়ে ফেলেন মাঠের পাশে থাকা স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের ছোট্ট ছাউনি।

কী এমন ঘটল যে এই বয়সে সিনিয়র রকিবুল হাসানের দিকে তেড়ে গেলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রভাবশালী পরিচালক খালেদ মাহমুদ!

এ ব্যাপারে রকিবুল হাসান বলেছেন, আমি যেহেতু টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান তাই বলেছি অন্য জায়গায় খেলা আয়োজনের জন্য। আইনের মধ্যে যা আছে তা-ই বলেছি। কিন্তু আমি হতাশ সুজনের এমন মারমুখী আচরণে। এটা নিয়ে আমার কিছু বলার নেই।

প্রকাশ্যে কক্সবাজারের মাঠে ম্যাচরেফারি রকিবুল হাসানকে মারতে উদ্যত হওয়া প্রসঙ্গে সংবাদমাধ্যমকে কিছুই বলবেন না রাজি হননি সুজন। ‘নো কমেন্টস’ এর দুই শব্দেই এড়িয়ে যান গণমাধ্যমকে।

Premium WordPress Themes Download
Free Download WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
Download Premium WordPress Themes Free
udemy paid course free download