সারহান নাসের তন্ময় বলেন, আমি সাংবাদিকতা বিভাগের একজন ছাত্র ছিলাম। ছাত্র অবস্থায়ই কলাম লিখতাম। আমার উচ্চতর ডিগ্রিটাও সাংবাদিকতার ওপর করেছি। আর রাজনীতিতে যুক্ত না হলে সাংবাদিকতায়ই থাকতাম। আধুনিক গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে গণমাধ্যম জাতির চতুর্থ স্তম্ভ হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে। রাষ্ট্র পরিচালনার ক্ষেত্রে গণমাধ্যমের গুরুত্ব অপরিসীম।

রাজনীতিতে না এলে সাংবাদিকতা করতাম: তন্ময়

রাজনীতিতে না এলে সাংবাদিকতায় থাকতেন বলে জানিয়েছেন বাগেরহাট-২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়া শেখ সারহান নাসের তন্ময়। বুধবার (৪ ডিসেম্বর) একটি গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এ কথা জানান তিনি।

সারহান নাসের তন্ময় বলেন, আমি সাংবাদিকতা বিভাগের একজন ছাত্র ছিলাম। ছাত্র অবস্থায়ই কলাম লিখতাম। আমার উচ্চতর ডিগ্রিটাও সাংবাদিকতার ওপর করেছি। আর রাজনীতিতে যুক্ত না হলে সাংবাদিকতায়ই থাকতাম। আধুনিক গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে গণমাধ্যম জাতির চতুর্থ স্তম্ভ হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে। রাষ্ট্র পরিচালনার ক্ষেত্রে গণমাধ্যমের গুরুত্ব অপরিসীম।

তিনি বলেন, আমার পরিবারের সদস্যরা রাজনীতির বাইরে এসে সাংবাদিকতা, খেলাধুলায় অবদান রেখেছেন। আমি হয়তো রাজনীতি করি না বা মাঠে ভালো স্লোগান-বক্তব্য দিতে পারি না। কিন্তু আমার পরিবার থেকে শেখানো হয়েছে, ‘যা জানো তা দিয়ে তুমি তোমার দায়িত্ব পালন করো। আমি সেটাই করব।’

রাজনীতিতে কেন এলেন এমন প্রশ্নের জবাবে তন্ময় বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ উপলব্ধি করে বড় হয়েছি। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার (বড় ফুফু) অনুপ্রেরণায় রাজনীতি করতে আগ্রহী হয়েছি। তা ছাড়া আমার ছোট ফুফু শেখ রেহানা রাজনীতিতে আসতে আমাকে সাহস জুগিয়েছেন। আর বাবা শেখ হেলাল উদ্দীন তো রাজনীতিতে দুই যুগ থেকে আছেনই। শৈশব থেকে পরিবারের মধ্যে দেখে আসা রাজনীতির চর্চা আমাকে রাজনীতিতে আসতে উদ্বুদ্ধ করেছে।

আমি নিজে যে কোনো দিন রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়ব, তা ভাবতে পারিনি। রাজনীতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে এসে দলের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের ভালোবাসা পেয়ে আমি সত্যিই আনন্দিত।

আমাকে পেয়ে তারা (জনগণ) অনেক প্রত্যাশা নিয়ে কাজ করছেন। আমি যাতে রাজনীতিতে এই বাগেরহাটে সুস্থ, সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ তৈরি করতে পারি, তারা এমনটাই প্রত্যাশা করছেন।

Download Premium WordPress Themes Free
Download WordPress Themes Free
Download WordPress Themes Free
Free Download WordPress Themes
free online course