রিকন্ডিশনড গাড়ি আমদানি বন্ধের পরিকল্পনা সরকারের

বিদেশ থেকে ব্যবহৃত গাড়ি বা রিকন্ডিশনড গাড়ি আমদানি বন্ধ করে দেয়ার পরিকল্পনা করছে সরকার। এতে উৎকণ্ঠা প্রকাশ করেছেন দেশের গাড়ি আমদানিকারকরা। তবে দেশের স্বার্থে এমন সিদ্ধান্তের কথা ভাবছে সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তর। ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি বাংলায় এমন খবর প্রকাশিত হয়েছে।
Ashraful IslamSeptember 14, 20201min0

বিদেশ থেকে ব্যবহৃত গাড়ি বা রিকন্ডিশনড গাড়ি আমদানি বন্ধ করে দেয়ার পরিকল্পনা করছে সরকার।

এতে উৎকণ্ঠা প্রকাশ করেছেন দেশের গাড়ি আমদানিকারকরা।

তবে দেশের স্বার্থে এমন সিদ্ধান্তের কথা ভাবছে সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তর। ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি বাংলায় এমন খবর প্রকাশিত হয়েছে।

ওই খবরে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে প্রতিবছর প্রায় ১৫ হাজার বিক্রি হয়, যার ৮৫ শতাংশই রিকন্ডিশনড গাড়ি।

‘অটোমোবাইল ইন্ড্রাস্ট্রি ডেভেলপমেন্ট পলিসি-২০২০’ খসড়ায় প্রস্তাব করা হয়েছে যে, স্থানীয়ভাবে সংযোজিত গাড়ির বাজার তৈরি করার লক্ষ্যে ব্যবহৃত গাড়ির আমদানি আস্তে আস্তে কমিয়ে দেয়া হবে।

ছয় বছরের মধ্যে সব ধরনের রিকন্ডিশনড গাড়ি আমদানি বন্ধ করে দেবে সরকার।

ওই প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে, দ্বিতীয় বছর থেকে তিন বছরের বেশি পুরোনো গাড়ি আমদানি বন্ধ করে দেয়া হবে।

তৃতীয় বছর থেকে তিন বছরের বেশি পুরোনো গাড়ি আমদানি বন্ধ, চতুর্থ বছর থেকে দুই বছরের বেশি পুরোনো এবং পঞ্চম বছর থেকে এক বছরের বেশি পুরোনো গাড়ি আমদানি বন্ধ করে দেয়া হবে।

ষষ্ঠ বছর থেকে পুরোপুরি রিকন্ডিশনড গাড়ি আমদানি বন্ধ করে দেয়া হবে। বরং দেশিয় প্রকল্পে সহায়তা করবে সরকার।

গাড়ি আমদানিকারকদের সংগঠন বারভিডার সভাপতি আবদুল হকের বরাত দিয়ে বিবিসির ওই সংবাদে বলা হয়েছে, অনেক উন্নত দেশে গাড়ি তৈরির পাশাপাশি পুরোনো গাড়ি আমদানি হয়।

তারা গাড়ি উৎপাদনের বিরোধী নন, সেটাকে স্বাগত জানাচ্ছেন। কিন্তু গ্রাহকদের পছন্দ, চাহিদার বিষয়টিও যেন বজায় থাকে- এমনটাই চাইছেন তারা।

Download Nulled WordPress Themes
Premium WordPress Themes Download
Premium WordPress Themes Download
Download WordPress Themes
free online course