ত্বকের ধরন বুঝে শীতের সময়ের ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা উচিত।

শীতে ত্বকের যত্নে চাই ময়েশ্চারাইজার

অর্ধের বডি লোশনের সঙ্গে গ্লিসারিন আর তার সমপরিমাণ পানি মিশিয়ে লোশন আর গ্লিসারিন মিশিয়ে ব্যবহার করলে বেশ চটপট সুফল পাওয়া যায়।

শীত মানেই অনেক রকম প্রস্তুতির সময়। শীত আমাদের জীবনে অন্য ঋতুর তুলনায় একটু আলাদাভাবে নিজেকে নিয়ে আসে। তবে শুধু অভাব পড়ে যেন ত্বকের বেলায়। শীতের এই সময় যেন ত্বকের ক্ষেত্রে সব কৃপণতা শীতের! মূলত শীতের এই আবহাওয়া রুক্ষতাই এর কারণ। যার কারণে ত্বকে কালচে দাগ, ঠোঁট ফাটা আর ত্বকের নানা সমস্যা দেখা দেয় শীতের এই পুরোটা সময়জুড়ে।

শীতের এই ত্বকের প্রতি কৃপণতা হলেও অন্য দিকে এর মুখে হাসি ফুটাতে আছে শীতের এই সময়ের নানা ময়েশ্চারাইজার, লোশন আর অলিভ ওয়েল। এই লিস্টে তাই বাদ পরে না গ্লিসারিনের নামও। শীতের এই রুক্ষতা যখন ত্বকের নানা সমস্যা সৃষ্টি করে তখন ত্বককে কোমল করতে বন্ধুর মতো পাশে থাকে এসব বডি লোশন, অলিভ ওয়েল আর গ্লিসারিনের। তবে ত্বকের ধরন বুঝে এসব শীতের সময়ের ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা উচিত।

বাজারে এই শীতের সময়ে খুব সহজেই পাবেন ভেজলিন, ডাব, পন্ডস, প্যারাসুট, নেভিয়া, বরোপ্লাস, ইয়ার্ডলিসহ নানা নামিদামি ব্র্যান্ডের বডি লোশন। তবে যাদের তৈলাক্ত ত্বক তাদের ক্ষেত্রে বডি লোশন ব্যবহার করাই ভালো।

যাদের রুক্ষ ত্বক তাদের ক্ষেত্রে কিছুটা আলাদাভাবে বডি লোশনের ব্যবহার আপনার ত্বককে খুব অল্প সময়ের মধ্যে প্রাণবন্ত করে তুলতে পারে। সেই ক্ষেত্রে অর্ধের বডি লোশনের সঙ্গে গ্লিসারিন আর তার সমপরিমাণ পানি মিশিয়ে লোশন আর গ্লিসারিন মিশিয়ে ব্যবহার করলে বেশ চটপট সুফল পাওয়া যায়।

যারা বাইরে বেশ কিছুটা সময় কাজের ব্যস্ততার জন্য কাটান তাদের ক্ষেত্রে এটি বেশ উপকারী। আর যাদের ত্বক খুব রুক্ষ কিংবা তৈলাক্ত না তারা অনায়াসে অলিভ ওয়েল ব্যবহার করতে পারেন।

সারা দিনের কাজের ব্যস্ততা আর তার সঙ্গে পাওয়া ত্বকের এই বেহাল দশা থেকে মুক্তি পেতে খুব সহজে আপনার হাতের নাগালেই পাবেন এসব প্রসাধনী। তবে কেনার আগে মেয়াদের উত্তীর্ণের সময় আর আপনার ত্বকের সঙ্গে কতখানি মানাচ্ছে তার দিকে নজর রাখুন।

Download WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
Download Nulled WordPress Themes
Free Download WordPress Themes
udemy course download free