শীতে ফিট থাকতে ৫ ফলে ভরসা

উত্তরের হিমেল হাওয়ায় ধীরে ধীরে বঙ্গদেশেও জেঁকে বসছে শীত। রাজধানী ঢাকায় এখনও ঠান্ডার রেশ টের পাওয়া না গেলেও এরইমধ্যে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে শীতের প্রকোপ দেখা দিয়েছে। সকালে কিংবা সন্ধ্যার পরই গরমের পোশাক পরতে দেখা যাচ্ছে অনেককে। ঢাকায়ও টুকটাক কারও কারও গায়ে শীতের পোশাক চোখে পড়ছে।

উত্তরের হিমেল হাওয়ায় ধীরে ধীরে বঙ্গদেশেও জেঁকে বসছে শীত। রাজধানী ঢাকায় এখনও ঠান্ডার রেশ টের পাওয়া না গেলেও এরইমধ্যে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে শীতের প্রকোপ দেখা দিয়েছে। সকালে কিংবা সন্ধ্যার পরই গরমের পোশাক পরতে দেখা যাচ্ছে অনেককে। ঢাকায়ও টুকটাক কারও কারও গায়ে শীতের পোশাক চোখে পড়ছে।

ঋতু পরিবর্তনের ধারাবাহিকতায় এই শীতেও অনেকেরই জীবনযাপনে আসে পরিবর্তন। বদলে যায় খাদ্যাভ্যাস। পরিবর্তন আসে শরীরেও। বাইরের ধুলোবালি আর কুয়াশা ঢাকা বাতাসে ত্বকে দেখা দেয় শুষ্কতা আর রুক্ষতা।

তবে শীতে শরীরকে ফিট রেখে হিট থাকার সহজ ৫টি উপায় আপনিও চাইলে অনুসরণ করতে পারেন। যেখানে ৫ ধরনের ফল শীতে আপনাকে সব ধরনের ক্ষতি ও অস্বস্তি থেকে সুরক্ষা দেবে।

* কমলা : শীতে গ্রামাঞ্চলেও সহজলভ্য হয়ে উঠে কমলা। কমলায় থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘সি’। যা ওজন কমাতে সাহায্য করে। পাশাপাশি কমলায় থাকা পটাশিয়াম, ফলেট ও ফাইবার শীতে রোগবালাই থেকেও শরীরকে নিরাপদে রাখে।

* সফেদা : শীতে শরীরকে নরম কোমল ও সজীব রাখতে সফেদা হতে পারে উত্তম ফল। সফেদা পেটের মেদ ও অতিরিক্ত ওজন কমাতে সাহায্য করে।

* ডুমুর : ডুমুরে ফিসিন নামে এক ধরনের এনজাইম থাকে। যা দ্রুত খাবার হজম করে। কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধেও দারুণ কার্যকর এই ফল। ফলে শীতে হজম সমস্যা কাটাতে ডুমুর খান।

* পেয়ারা : প্রায় সারা বছরই পেয়ারা খাওয়া হয়। আজকাল বছরের ১২ মাসই বাজারে পেয়ারা পাওয়া যায়। কিন্তু শীতে যদি কাঁচা পেয়ারা খেতে পারেন তবে ওজন থাকবে নিয়ন্ত্রণে। কারণ কাঁচা পেয়ারায় চিনির পরিমাণ থাকে খুবই কম।

* আঙুর : আঙুরের রস সব সময়ই উপকারী। বিশেষত কালো আঙুরে থাকা রেসভেরাট্রল উপদান শরীরে উপকারী ফ্যাট তৈরি করে। পাশাপাশি দূর করে ক্ষতিকর ফ্যাট।

ধরে নিন শীত শুরু হয়ে গেছে। তাই শরীর ফিট রেখে হিট থাকার আগাম প্রস্তুতিটা এখনই নিয়ে নিতে পারেন।

Premium WordPress Themes Download
Download Nulled WordPress Themes
Download WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
free download udemy course