সংরক্ষিত আসনে আ.লীগের মনোনয়নে পরীক্ষিত কর্মীদের মূল্যায়ন

জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনে মনোনয়নে ৪১ জনকে মনোনয়ন দিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। দশম সংসদের ৪১ জনকে নতুন মনোনয়ন দিয়ে চমক দেখিয়েছেন সরকারপ্রধান। আওয়ামী লীগের এই মনোনয়ন নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। মনোনয়নের ক্ষেত্রে যেমন দলীয় নেতা-কর্মীরা মূল্যায়িত হয়েছেন ঠিক তেমনি করে সাধারণ মানুষ, প্রবীণ রাজনৈতিক নেত্রীরাও মূল্যায়িত হয়েছেন। মনোনয়ন পাওয়া ব্যক্তিদের নিয়ে খুশি আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা।

জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনে মনোনয়নে ৪১ জনকে মনোনয়ন দিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। দশম সংসদের ৪১ জনকে নতুন মনোনয়ন দিয়ে চমক দেখিয়েছেন সরকারপ্রধান। আওয়ামী লীগের এই মনোনয়ন নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। মনোনয়নের ক্ষেত্রে যেমন দলীয় নেতা-কর্মীরা মূল্যায়িত হয়েছেন ঠিক তেমনি করে সাধারণ মানুষ, প্রবীণ রাজনৈতিক নেত্রীরাও মূল্যায়িত হয়েছেন। মনোনয়ন পাওয়া ব্যক্তিদের নিয়ে খুশি আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা।

আওয়ামী লীগের নেতারা বলছেন, বিএনপির পাপিয়া, মণিদের অশ্লীল বাক্য বিনিময়ের কারণে মানুষ সংসদ দেখত না, এবার তারকা নির্ভর সংসদ সব মানুষ দেখবে। মানুষ শিখবে। মাশরাফি, তন্ময়, সুবর্ণারা নিশ্চয়ই, সংসদের রঙ বাড়িয়ে দেবে।

জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, এবার সংরক্ষিত আসনে যেমন সাংস্কৃতিক কর্মী যেমন আছেন তেমনি আছেন মানবাধিকার কর্মী। দলের তৃণমূল পর্যায়ের ত্যাগী নেতাকর্মীরা একই সঙ্গে বিএনপি জামাতের রোষানলের শিকার নেতা-কর্মীরাও আছেন। সমাজের বিভিন্ন স্তরের প্রতিনিধিরাও আছে। রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা একটা ভিশন নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। সে লক্ষ্য নিয়েই তিনি মনোনয়ন দিয়েছেন।

চূড়ান্ত তালিকায় যারা স্থান পেয়েছেন তাদের অধিকাংশই এ প্রজন্মের অনেকের কাছে অচেনা মুখ হলেও প্রায় সবারই আছে বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক ক্যারিয়ার, পারিবারিক ঐতিহ্য।

আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতারা বলছে, এই ৪২ জনের যেমন রাজনৈতিক ব্যাকগ্রাউণ্ড শক্তিশালী, তেমনি দলের প্রতিও অনুগত, দলের ক্রান্তিলগ্নে রাজনৈতিক আন্দোলন সংগ্রামে ত্যাগি-পরিক্ষীত।

খুলনা থেকে মনোনয়ন পাওয়া শিরিনা নাহার লিপিকে নিয়ে। তার স্বামী বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আ্যডভোকেট কামরুল ইসলাম সজল। লিপির মনোনয়ন নিয়ে তাই বিতর্ক ছড়িয়েছে ফেসবুকে। তবে জানা গেছে, স্বামী বিএনপির নেতা হলেও লিপি ছাত্রজীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। আওয়ামী লীগের দু:সময়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শামসুন্নাহার হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন। ছিলেন যুব মহিলা লীগের দুই দুইবারের সহসভাপতি। তাঁর পরিবারও দীর্ঘদিন থেকে আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে সরাসরি যুক্ত।

কুমিল্লা উত্তর থেকে এ্যারমা দত্তকে মনোনয়ন দিয়েছে অওয়ামী লীগ। ভাষা অন্দোলনের অগ্রদূত শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্তের নাতনী এ্যারমা দত্ত একাধারে সংগঠক, মানবাধিকার কর্মী। তিনি নারী জাগরণে অবদানের কারণে ২০১৬ সালে বেগম রোকেয়া পদক পান।

কুমিল্লা দক্ষিণ থেকে মনোনীত হয়েছেন আঞ্জুম সুলতানা সীমা। কুমিল্লা জেলা দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল খানের মেয়ে সীমা টানা ১৫ বছর কুমিল্লা পৌরসভা ও কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর এবং প্যানেল মেয়র ছিলেন। সীমা কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচনে রেকর্ডসংখ্যক ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছিলেন। যদিও ২০১৭ সালের কুসিক নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে বিএনপি প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কুর কাছে পরাজিত হয়েছিলেন।

নরসিংদীর জনপ্রিয় পৌর মেয়র লোকমান হোসেন ২০১১ সালে দুষ্কৃতিকারীদের হাতে নিহত হন। এবার তাঁর স্ত্রী তামান্না নুসরাত বুবলীকে সংরক্ষিত মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। বরিশাল থেকে মনোনয়ন পেয়েছে সৈয়দা রুবিনা আক্তার মিরা। দলের দু:সময়ে ছাত্রলীগের অন্দোলন সংগ্রামে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। রাজবাড়ী থেকে মনোনয়ন পাওয়া খাদেজা নুসরাত ছিলেন ২০১৫ সালে নির্বাচন পরবর্তী পেট্রোল বোমা অগ্নিসন্ত্রাসের শিকার। বাসের সাধারণ যাত্রী ছিলেন তিনি। এতে তার মুখমণ্ডল পুড়ে যায়।

নীলফামারী থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন দুঃসময়ের ত্যাগী নেত্রী রাবেয়া আলীম। ৩০ বছর ধরে জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি তিনি। দলের দুঃসময়ে গুটিকয়েক মহিলা সদস্যকে নিয়ে মাঠে সোচ্চার ছিলেন দলের পক্ষে। নীলফামারীর অগ্নিকন্যা নামে পরিচিত। প্রবীণ বয়সেও প্রতিটি রাজনৈতিক কর্মসূচীতে অংশ নেন। জেলার নেতাদের কাছে যখন এক প্রকার অবহেলিতই ছিলেন তিনি ঠিক তখনই দুঃসময়ের এই প্রবীণ নেত্রীকে তৃণমূল থেকে এমপি মনোনীত করেছেন শেখ হাসিনা।

উত্তর চট্টগ্রাম থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন ফটিকছড়ির সাবেক সংসদ সদস্য রফিকুল আনোয়ারের মেয়ে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য খাদিজাতুল আনোয়ার সনি। ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীদের মধ্যে খাগড়াছড়ি থেকে বাসন্তী চাকমাও পেয়েছেন নৌকার মনোনয়ন। খৃস্টান সম্প্রদায়ের মধ্য থেকে আছেন খুলনা থেকে অ্যাডভোটেক গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার। পিরোজপুরের শেখ এ্যানি রহমান বঙ্গবন্ধুর চাচাতো ভাই শেখ হাফিজুর রহমান টোকনের স্ত্রী। শরীয়তপুর থেকে মনোনয়ন পেয়ছেন সিকদার মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের চেয়ারম্যান ও মুক্তিযোদ্ধা জইনুল হক

সিকদারের মেয়ে পারভীন হক সিকদার। আরো মনোনয়ন পেয়েছেন একুশে পদকপ্রাপ্ত অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা। আশি-নব্বইয়ের দশকে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক নাটকগুলোতে ইতিহাসবিকৃতির বিরুদ্ধে তাঁর শক্ত অবস্থানের কথাগুলো এখনো নাটকপাড়ায় শোনা যায়।

প্রসঙ্গত, সংরক্ষিত আসনে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করার জন্য ১৫ জানুয়ারি

(মঙ্গলবার) ধানমন্ডিস্থ দলীয় সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করে আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন কিনতে সাড়া পড়ে যায়। মনোনয়ন ফরম কিনতে রাজনৈতিক,সামাজিক, ব্যাবসায়িক, সাংস্কৃতি অঙ্গনের নারীদের ঢলনামে ধানমণ্ডির কার্যালয়ে। চারদিনে ১৫১০ জন প্রার্থী মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন। এরপর প্রার্থীরা নিজেদের মত করে প্রচারণা যেমন শুরু করেন, ঠিক তেমনি আওয়ামী লীগের নেতাদের বাসায়, অফিসে গিয়ে লবিং-তদবির শুরু করেন। মনোনয়ন পেতে কোথাও কোথাও টাকা-পয়সা লেনদেনেরও অভিযোগ ওঠে। অবশেষে শুক্রবার (৮ ফেব্রুয়ারি) ৪১ জন প্রার্থী করে চূড়ান্ত তালিকা ঘোষণা করা হয়। সংসদে প্রাপ্ত আসনের আনুপাতিক হিসেবে আওয়ামী লীগের প্রাপ্য আসন সংখ্যা ৪৩ হলেও ২টি আসনে প্রার্থী ঘোষণা করা হয়নি। গণভবনে আওয়ামী লীগের সংসদীয় কমিটির বৈঠকে বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Download Best WordPress Themes Free Download
Download WordPress Themes Free
Download WordPress Themes Free
Premium WordPress Themes Download
udemy course download free