সমস্ত ক্যাসিনো বন্ধ করা হয়েছে: র‌্যাব ডিজি

র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) বলেছেন, সমস্ত ক্যাসিনো বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। নিকট ভবিষ্যতে এই ধরণের ক্যাসিনো বা এমন কিছু হবে না। আমি কেন বললাম নিকট ভবিষ্যত? সেটা হচ্ছে যে ভবিষ্যতের পলিসি কি হবে সেটা সরকার নির্ধারণ করবে। সেই পলিসির কথা তো আমি এই মুহূর্তে বলতে পারবো না। কারণ বাংলাদেশ দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে।

র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) বলেছেন, সমস্ত ক্যাসিনো বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। নিকট ভবিষ্যতে এই ধরণের ক্যাসিনো বা এমন কিছু হবে না। আমি কেন বললাম নিকট ভবিষ্যত? সেটা হচ্ছে যে ভবিষ্যতের পলিসি কি হবে সেটা সরকার নির্ধারণ করবে। সেই পলিসির কথা তো আমি এই মুহূর্তে বলতে পারবো না। কারণ বাংলাদেশ দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে।

শনিবার(২৮ সেপ্টেবর) বিকালে নেত্রকোনার মোক্তারপাড়া পাবলিক হল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত জঙ্গি, সন্ত্রাস ও মাদকবিরোধী সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদানের পূর্বে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

বেনজীর আহমেদ বলেন, আমরা কিন্তু কাজ করছিলাম ক্যাসিনো বন্ধ করা নিয়ে। সরকার যখন যেইটা সিদ্ধান্ত নেবে আমরা পর্যায়ক্রমে সেগুলো বাস্তবায়ন করবো। আমি মনে করি যে, যার মাথায় যা আছে সবকিছু একপাত্রে ঢেলে দিয়ে এই ধরনের কোনো উদ্যোগকে পথিমধ্যে যে নস্যাৎ করে ফেলি এটা বোধহয় ঠিক না। আমরা মূলত ক্যাসিনো বন্ধ করার উদ্যোগ নিয়েছি।

তিনি বলেন, সংবিধানে বলা আছে, জুয়া খেলা নিষিদ্ধ বা ডিসচার্স করা হয়েছে। অগ্রগতি বা উন্নতির যে ধাপে এই মুহূর্তে আমরা অবস্থান করছি তার পরিপ্রেক্ষিতে ভবিষৎ কি পলিসি হতে পারে তা এই মুহূর্তে অনুমান না করাটাই বেটার হবে। আমরা বর্তমানে থাকতে চাই ভবিষ্যতকে মনে রেখে। বর্তমানটা হচ্ছে কি? আমারা ক্যাসিনোগুলোকে বন্ধ করতে চাই। কারণ এগুলো আমাদের বিদ্যমান সাংবিধানিক যে বিধান রয়েছে যে আইন রয়েছে সেগুলোর সাথে সংগতিপূর্ণ নয়। এগুলো বেআইনি। বাংলাদেশের কাউকে ক্যাসিনো পরিচালনা করতে দেয়া হয় নাই। সে কারণে এই বেআইনি কার্যক্রমকে বন্ধ করতে আমাদের অপারেশনটা চালু করা হয়েছে।

র‌্যাব ডিজি আরও বলেন, এখন অসমাপ্ত কাজ যেটা রয়েছে সেটাকে টেনে নিয়ে আসা। সমাপ্ত করা। আমি মনে করি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সকল রাষ্ট্রের কর্মচারী যার যে দ্বায়িত্ব সে বদ্ধ পরিকর। সেটা আমরা প্রতিপালন করবো।

তিনি বলেন, আমি আবারও বলবো এই ক্যাসিনো বিরোধী কার্যক্রমকে কেন্দ্র করে আতঙ্ক ছড়ানো দরকার নাই, গুজব ছড়ানো দরকার নাই, গসিপ করার দরকার নাই, চরিত্র হনন করা দরকার নাই। এখন যখন ইনভেস্টিগেশন ছাড়া কারো ছবি ছেপে দেয়া হয় তখন তার পরিবারের কি দাঁড়ায়, তার সামাজিক অবস্থান কি দাঁড়ায়? কারো সম্পর্কে যখন কুৎসা রটনা করা হয় তখন সেই পরিবারের অবস্থা কেমন হয়। যেটা আপনি ফেরত দিতে পারবেন না সেটা আপনি নেবেন কেন? আপনি যদি কাউকে সামাজিকভাবে পারিবারিকভাবে অপদস্থ করেন এতে তার যে ক্ষতি হবে সেটা কি আপনি ফেরত দিতে পারবেন? না পারলে কেড়ে নেবেন কেনো?

বেনজীর আহমেদ বলেন, আমাদের বোধহয় এখানে বিবেকের এবং বিবেচনার সবোর্চ্চ প্রয়োগের বিষয় আছে। আমরা দেশবাসী প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে দেশটাকে সামনে এগিয়ে নিয়োর জন্য যা যা করণীয় দরকার করবো।

পুলিশ সুপার আকবর আলী মুনসীর সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ পুলিশ এসোসিয়শনের সম্পাদক প্রলয় জোয়ারদার, অধ্যাপক যতীন সরকার, ময়মনসিংহ রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি আক্কাস উদ্দিন ভূইয়া, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক জিয়া আহমেদ সুমন প্রমূখ।

Download WordPress Themes
Download Nulled WordPress Themes
Premium WordPress Themes Download
Download Premium WordPress Themes Free
download udemy paid course for free