সম্রাটের হেরেমখানায় ছিল ভিআইপিদের আনাগোনা

প্রাচীনকালের রাজা-বাদশাহর মতোই হেরেমখানা রয়েছে গ্রেফতার যুবলীগ নেতা ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের। রাজধানীর কাকরাইলের ভূঁইয়া ট্রেড সেন্টারের সপ্তম তলায় রাজনৈতিক কার্যালয়ের পাশে এই হেরেমখানায় প্রতি রাতে বসত ভিআইপিদের হাট।

প্রাচীনকালের রাজা-বাদশাহর মতোই হেরেমখানা রয়েছে গ্রেফতার যুবলীগ নেতা ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের। রাজধানীর কাকরাইলের ভূঁইয়া ট্রেড সেন্টারের সপ্তম তলায় রাজনৈতিক কার্যালয়ের পাশে এই হেরেমখানায় প্রতি রাতে বসত ভিআইপিদের হাট।

ক্ষমতাসীন দল ও অঙ্গসংগঠনের বড় বড় নেতা সেখানে নিয়মিত যেতেন অতিথি হয়ে। সম্রাটের এই হেরেমখানায় রাতভর চলত মনোরঞ্জন। রুপালি জগতের অনেক তারকারও আনাগোনা ছিল সেখানে।

রোববার সম্রাটের ওই রাজনৈতিক কার্যালয়ে অভিযানে গিয়ে বিস্মিত হন র‌্যাব কর্মকর্তারা। ভবনজুড়ে আভিজাত্যের ছাপ। দু’বছর সম্রাট এ ভবনেই বসবাস করছিলেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এই হেরেমখানায় নানা আয়োজনের দায়িত্বে ছিলেন সম্রাটের ঘনিষ্ঠ সহযোগী যুবলীগ নেতা গ্রেফতার এনামুল হক আরমান।

রুপালি জগতের তারকাদের সঙ্গে মূলত যোগাযোগ রাখতেন আরমানই। আর হেরেমখানায় ভিআইপিরা আসতেন আরমানের সঙ্গে যোগাযোগ করেই। ভিআইপিদের চাহিদামতো মনোরঞ্জনের সব ব্যবস্থাই করতেন আরমান।

ভবনটিতে সাধারণের প্রবেশাধিকার ছিল না। সম্রাটের অনুমতি সাপেক্ষে কঠোর তল্লাশির পরই ভেতরে যাওয়া যেত। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পুরো ভবনটিই সম্রাটের দখলে। ভবনের প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় তলায় ছোট ছোট অফিস। সেখানে সম্রাট এবং সংগঠনের নেতাকর্মীদের ছবি পাশাপাশি সাজানো রয়েছে।

সাত তলা ভবনের ছাদের দক্ষিণ দিকে তৈরি করা হয়েছে একটি মনোরম বাগান। সেখানে থরে থরে সাজানো রয়েছে কলাগাছসহ বিভিন্ন প্রজাতির ছোট ছোট গাছ। দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে রয়েছে একটি কৃত্রিম পাহাড়ি ঝরনা।

দেখে মনে হয়, শহর থেকে দূরে কোনো নির্জন পাহাড়ি এলাকা। উত্তর পাশের কক্ষটিই সম্রাটের হেরেমখানা। সেখানে বিলাসবহুল সব আসবাব ছাড়াও রয়েছে একাধিক ফ্রিজ এবং ওয়াশিং মেশিন। বেডরুম সংলগ্ন বাথরুমটিও শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত।

বিভিন্ন সূত্রে কথা বলে জানা গেছে, আরমান এক সময় বিদেশ থেকে লাগেজে আনা ইলেকট্রনিক পণ্য বিক্রি করতেন গুলিস্তানে। মিরপুরে মুদি দোকানি হিসেবেও কাজ করেছেন তিনি। ২০১৩ সালে সম্রাটের ঘনিষ্ঠ হওয়ায় তিনি ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সহসভাপতির পদ পেয়ে যান। এর পর আর তাকে পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। বিপুল অর্থবিত্তের মালিক হন আরমান, নামেন সিনেমা ব্যবসায়। এই সূত্রে অনেক তারকার সঙ্গে যোগাযোগ তার। তাদেরই আরমান নিয়ে আসতেন সম্রাটের হেরেমখানায়।

Download Nulled WordPress Themes
Premium WordPress Themes Download
Free Download WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
free online course