সুপার শপের লাইনে দাড়ালেন শিক্ষামন্ত্রী, ছবি ভাইরাল

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির একটি ছবি। যেখানে তাকে বাজার করার জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে লাইনে দাঁড়াতে দেখে গেছে। ছবিটি ছড়িয়ে পড়ার পর অধিকাংশ নেটিজেনই শিক্ষামন্ত্রীর প্রশংসা করেছেন। ছবিটি শেয়ার করে অনেকেই নিজেদের মতামত দিচ্ছেন।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে রাজধানীর ঈদ বাজার একরকম বন্ধ।

বড় শপিংমলগুলোর প্রায় কোনটিই খুলছে না।

অল্প সংখ্যক দোকান এবং ব্রান্ডের শোরুম খোলা আছে।

করোনার প্রাদুর্ভাব রুখতে সরকারের তরফ থেকে বারবার বলা হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কথা।

দোকাপাট, শপিংমল, শোরুম খোলার ক্ষেত্রেও পূর্বশর্ত দেয়া হয় সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়টিকে।

এমন অবস্থায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির একটি ছবি।

যেখানে তাকে বাজার করার জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে লাইনে দাঁড়াতে দেখে গেছে।

ছবিটি ছড়িয়ে পড়ার পর অধিকাংশ নেটিজেনই শিক্ষামন্ত্রীর প্রশংসা করেছেন।

ছবিটি শেয়ার করে অনেকেই নিজেদের মতামত দিচ্ছেন।

সাংবাদিক রাশেদ শাহরিয়ার পলাশ তার ফেসবুকে লিখেছেন, কিছু জিনিস নিয়ে গর্ব করা যেতেই পারে।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী কিংবা জার্মানির চ্যান্সেলর অথবা বিল গেটস লাইনে দাঁড়িয়ে খাবার কিনতেই পারেন।

কারণ তারা জন্মগতভাবেই সেই সংস্কৃতিতে বড় হয়েছেন।

তিনি আরো লেখেন, ‘অপরকে সম্মান করা দেখেই শিখেছেন।

কিন্তু বাংলাদেশের পরিবেশে বড় হওয়া, এখনকার রাজনীতিতে অভ্যস্ত মানুষ শুধু সুযোগ নিতেই শেখেন।

অপরের অধিকারকে সম্মান করার মানুষ খুব একটা নেই। তার মধ্যেই ব্যতিক্রম শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

আল আমিন নামের একজন লিখেছেন, দেশের অন্য এমপি মন্ত্রীদের জন্য এটি শিক্ষণীয় উদাহরণ।

ছবিটি কবে তোলা কিংবা ঘটনার বিবরণ আলাদাভাবে যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

তবে বৃহস্পতিবার ফেইসবুকে ছড়িয়ে পড়া ওই ছবির ক্যাপশনে লেখা হয়,

ধানমন্ডি ২৭ নম্বরে মীনা বাজারে প্রবেশের জন্য সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সর্বসাধারণের

সাথে লাইনে দাঁড়িয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আপা।

ক্যাপশনে আরো জানানো হয়, ম্যানেজার উনাকে লাইন ভেঙ্গে আগে যাওয়ার কথা বললেও উনি অস্বীকৃতি জানান।

জানা গেছে, করোনার কারণে আউটলেট একসাথে ২৫ জনের বেশি থাকতে পারেন না।

তাই বাইরে লাইনে দাঁড়াতে হয়।

একজন বের হলে নতুন আরেকজন প্রবেশের সুযোগ পান।

সে নিয়ম মেনেই লাইনে দাঁড়ান শিক্ষামন্ত্রী।

Download WordPress Themes Free
Premium WordPress Themes Download
Free Download WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
free online course