স্ট্রেচ মার্ক দূর করার সহজ উপায়

গর্ভকালীন সময়, হরমোনের সমস্যা কিংবা হঠাৎ করে মোটা হয়ে যাবার কারণে শরীরে স্ট্রেচ মার্ক বা ফাটা দাগ পরে। সাধারণত কোমর, ঘাড়ের ভাঁজে, পেটে, হাত বা পায়ের ভাঁজে স্ট্রেচ মার্ক পড়ে কালো দাগ হয়ে যায় যা দেখতে খারাপ দেখায়। বেশিরভাগ মেয়েরাই এই দাগ নিয়ে দুঃশ্চিন্তায় ভোগেন।

গর্ভকালীন সময়, হরমোনের সমস্যা কিংবা হঠাৎ করে মোটা হয়ে যাবার কারণে শরীরে স্ট্রেচ মার্ক বা ফাটা দাগ পরে।

সাধারণত কোমর, ঘাড়ের ভাঁজে, পেটে, হাত বা পায়ের ভাঁজে স্ট্রেচ মার্ক পড়ে কালো দাগ হয়ে যায় যা দেখতে খারাপ দেখায়।

বেশিরভাগ মেয়েরাই এই দাগ নিয়ে দুঃশ্চিন্তায় ভোগেন।

এই দাগ দূর করার জন্য বাজারে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন ধরনের ক্রিম, লোশন ও জেল পাওয়া যায়।

আপনি চাইলে সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন অথবা ব্যবহার করতে পারেন ঘরোয়া কিছু উপাদান।

যা কোনো প্রকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই দূর করবে এই কালো দাগ। তাহলে জেনে নিন কি সেই উপাদানগুলো-

• অলিভ অয়েল:

ফাটা দাগ দূর করার জন্য অলিভ অয়েলের তুলনা হয় না। কোনো ঝামেলা ছাড়াই অল্প সময়ে দূর করা যাবে এই দাগ।

প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে দাগের ওপর অলিভ অয়েল লাগিয়ে শুয়ে পরুন এবং সকালে গোসল করে ফেলুন।

এতে ত্বক থাকবে মসৃণ। দেখবেন কিছুদিন পর দাগ হালকা হওয়া শুরু হয়েছে।

• ডিম: 

ডিমের সাদা অংশ প্রাকৃতিকভাবে দাগ দূর করে। দাগের ওপর ডিমের সাদা অংশ লাগিয়ে শুকাতে দিন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে কয়দিন লাগালেই দাগ দূর হয়ে যাবে।

• স্ক্রাব:

লেবুর রস, চিনি ও অলিভ অয়েল মিশিয়ে স্ক্রাব বানিয়ে প্রতিদিন ফাটা দাগের ওপর ১০ মিনিট মাসাজ করুন। এই স্ক্রাব ত্বকের ময়লা পরিষ্কার করবে।

• লেবু: 

লেবুর রসে রয়েছে প্রাকৃতিক এসিড যা দাগ দূর করতে সাহায্য করে। একটি লেবু থেকে রস বের করে দাগে লাগিয়ে ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন।

তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এছাড়া চাইলে লেবুর রসের সঙ্গে আলুর রস অথবা শসার রস কিংবা টমেটোর রস মেশাতে পারেন।

• আলু: 

আলুতে রয়েছে ক্যালসিয়াম, প্রোটিন ও আয়রন যা ত্বক উজ্জ্বল করে। প্রাকৃতিকভাবে ব্লিচ করতে পারে আলু।

তাই একটি আলু নিয়ে তা ২ টুকরা করে ফাটা দাগের উপরে ম্যাসেজ করুন। এর রস ভালো মত লাগলে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন এবং ধুয়ে ফেলুন।

• অ্যালোভেরা জেল:

বাজারে অ্যালোভেরা জেল এবং পাতা দুটিই কিনতে পাওয়া যায়। আপনি চাইলে সরাসরি অ্যালোভেরা জেল কিনতে পারেন।

অথবা পাতা কিনে তার ভিতরের জেল বের করে দাগের ওপর লাগাতে পারেন। প্রতিদিন ৮ থেকে ১০ গ্লাস পানি পান করুন।

এছাড়া খাদ্য তালিকায় ভিটামিন সি, ই, জিংক সমৃদ্ধ খাবার রাখার চেষ্টা করুন।

নানারকম ফল যেমন স্ট্রবেরি, গাজর, শাক, সবুজ মটরশুটি, বাদাম ইত্যাদি খান।

Premium WordPress Themes Download
Download Best WordPress Themes Free Download
Download WordPress Themes Free
Free Download WordPress Themes
udemy paid course free download