স্লো স্মার্টফোন ফাস্ট করতে করণীয়

বর্তমান সময়ে স্মার্টফোনের সবচেয়ে বড় সমস্যা স্লো হয়ে যাওয়া। কেনার সময় যথেস্ট দ্রুতগতির ফোন কেনা হলেও একটা সময় পরে ফোনটি স্লো হয়ে যায়। এতে করে ফোনে ঠিকমতো কাজ করা যায় না। স্মার্টফোনের গতি ধীর হয়ে পড়লে কী করবেন?

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে অনেক ফাস্ট এবং আপডেটেড স্মার্টফোনও স্লো হয়ে যায়। ধীরে এ সুপার ফাস্ট ফোনটিরও কার্যক্ষমতা কমতে থাকে।

বর্তমান সময়ে স্মার্টফোনের সবচেয়ে বড় সমস্যা স্লো হয়ে যাওয়া। কেনার সময় যথেস্ট দ্রুতগতির ফোন কেনা হলেও একটা সময় পরে ফোনটি স্লো হয়ে যায়। এতে করে ফোনে ঠিকমতো কাজ করা যায় না। স্মার্টফোনের গতি ধীর হয়ে পড়লে কী করবেন?

অপারেটিং সিস্টেম আপডেট

স্মার্টফোন স্লো হওয়ার প্রধান এবং অন্যতম কারণ অপারেটিং সিস্টেম সব সময় আপডেট না থাকা। ওএস আপডেট রাখা খুবই জরুরি। কেননা অপারেটিং সিস্টেমের আপডেটে বিভিন্ন ধরনের বাগ এবং ল্যাগ ফিক্স করে হালনাগাদ সংস্করণ বাজারে ছাড়ে। তাই অপারেটিং সিস্টেম আপডেট এলেই সঙ্গে সঙ্গেই আপডেট করে ফেলতে হবে। অপারেটিং সিস্টেম এ ফোনে থাকা অ্যাপে দুটি সঠিক আপডেট থাকলে আপনার ফোন স্লো হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই কম থাকে।

অ্যাপস আপডেট রাখা

অ্যান্ড্রয়েডের অ্যাপসগুলো আপডেট না রাখলে ফোনের গতি মন্থর হওয়ার কারণ হতে পারে এ অ্যাপসগুলোই। যে কোনো অ্যাপসের নতুন আপডেট এলে সেই অ্যাপসটি আপনার কাছে অনুমতি চাইবে। আপনার কাজ শুধু সেটাকে অনুমতি দেয়া। অবশ্য সে জন্য আপনাকে কিছু পরিমাণ ডাটা খরচ করতে হবে।

ফ্যাক্টরি ডাটা রিসেট

যদি আপনার স্মার্ট ফোনটির গতি অতিরিক্ত মাত্রায় স্লো হয়ে গিয়ে থাকে, তাহলে আপনি ফ্যাক্টরি ডাটা রিসেট করে নিতে পারেন। ফ্যাক্টরি ডাটা রিসেট করার আগে অবশ্যই আপনার অ্যান্ড্রয়েডের সব ডাটার ব্যাকআপ নিয়ে রাখবেন। কেননা, ফ্যাক্টরি ডাটা রিসেট করলে ফোনের সব ডাটা মুছে যায়। এরপর আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসটি সবকিছু নতুনভাবে সেট-আপ করুন।

মেমরি স্টোরেজ ফুল

স্মার্টফোনে অতিরিক্ত অ্যাপ, ছবি, গান, ভিডিও রাখার কারণে অনেক সময়েই আপনার ফোনের মেমরি ভর্তি হয়ে যায়। তার ফলেই আপনার ফোনটি স্লো চলে। কারণ র‌্যাম যথেষ্ট মেমরি স্পেস দিতে পারে না। এর থেকে বাঁচতে যত দ্রুত সম্ভব ফোন থেকে অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ, গান, ছবি, ভিডিও বা অন্য কোনো ফাইল ডিলিট করুন।

অপ্রয়োজনীয় অ্যাপস ডিলিট

প্রয়োজন নেই বা সামান্য প্রয়োজনীয় হয়তো মাসে একবার ব্যবহার করেন এমন অনেক অ্যাপ ইন্সটল করেন স্মার্টফোনে। অযথা এমন অ্যাপ ইন্সটল করার কারণে ফোনের জায়গা দখল করে রাখে ফলে ফোন স্লো হয়ে যায়। যদি আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোন এ অপ্রয়োজনীয় অ্যাপস থাকে তাহলে সেগুলো মুছে ফেলুন। আবার পরে প্রয়োজন পড়লে ইন্সটল করে নিতে পারেন। কেননা, অতিরিক্ত অ্যাপস আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের গতি কমিয়ে দেবে।

ব্যাটারি পরিবর্তন

স্মার্টফোনের ব্যাটারি অনেক দিনের পুরনো হলে অনেক সময়ে ফোন স্লো কাজ করে। ফোন অহেতুক গরম হয়ে যায়। এর থেকে স্মার্টফোনটিকে বাঁচাতে সময় থাকতেই ব্যাটারি বদলাতে হবে। কেননা অতিমাত্রায় গরম হয়ে যাওয়ায় যে কোনো সময় স্মার্টফোনটি ব্লাস্ট করতে পারে।

Download Best WordPress Themes Free Download
Download Nulled WordPress Themes
Download WordPress Themes
Free Download WordPress Themes
free download udemy course