‘হার্ড ইমিউনিটি‌`কে কাল্পনিক ধারণা বললেন দক্ষিণ কোরিয়া

দক্ষিণ কোরিয়ার স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, ‘হার্ড ইমিউনিটি’ অর্থাৎ কোন একটি জনগোষ্ঠীর মধ্যে কোভিড-১৯ ভাইরাস প্রতিরোধী ক্ষমতা গড়ে ওঠার চিন্তাটা আসলে একটা কাল্পনিক ধারণা। কোরিয়ান সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোলের (কেসিডিসি) উপপরিচালক কুওন জুন-উক বলছেন,দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক উপাত্ত বিশ্লেষণ করে তারা এ সিদ্ধান্তে এসেছেন।

দক্ষিণ কোরিয়ার স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, ‘হার্ড ইমিউনিটি’ অর্থাৎ কোন একটি জনগোষ্ঠীর মধ্যে কোভিড-১৯ ভাইরাস প্রতিরোধী ক্ষমতা গড়ে ওঠার চিন্তাটা আসলে একটা কাল্পনিক ধারণা।

কোরিয়ান সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোলের (কেসিডিসি) উপপরিচালক কুওন জুন-উক বলছেন,দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক উপাত্ত বিশ্লেষণ করে তারা এ সিদ্ধান্তে এসেছেন।

দক্ষিণ কোরিয়ার কর্তৃপক্ষ সেদেশে কোভিড সংক্রমণের প্রকৃত হার বের করার জনগণের মধ্যে দৈবচয়নের ভিত্তিতে এন্টিবডি টেস্ট করা শুরু করেছে। এতে ৬ হাজার লোকের রক্ত পরীক্ষা করা হবে।

এ পর্যন্ত ১,৫০০ লোকের রক্ত পরীক্ষা করে কর্মকর্তারা দেখেছেন যে তাদের মধ্যে ০.১ শতাংশ লোকের দেহে কোভিড -১৯এর এন্টিবডি তৈরি হয়েছে।

এ থেকে মনে হতে পারে যে দক্ষিণ কোরিয়ায় ৫০ হাজার লোকের করোনাভাইরাস সংক্রমণ হয়েছে।

কিন্তু বাস্তবে দেশটিতে মাত্র ১২,৮০০ লোক পরীক্ষার মাধ্যমে কোভিড পজিটিভ বলে চিহ্নিত হয়েছে।

তবে কেসিডিসি এটাও বলেছে যে এগুলো তাদের গবেষণার প্রাথমিক ফল মাত্র, এ পর্যায়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে আসা যাচ্ছে না।

Download Nulled WordPress Themes
Premium WordPress Themes Download
Free Download WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
free online course