হৃদরোগীরা যেভাবে খেতে পারবেন কোরবানির মাংস

কোরবানির ঈদের ঘোরাঘুরি তো আছেই, তারচেয়েও বড় খাওয়াদাওয়া। কোরবানির মাংস দিয়ে তৈরি নানা পদের নানা স্বাদের খাবারে লোভ সামলানোই দায়। কিন্তু তাই বলে চোখ বুঝে শুধু খেয়ে গেলেই হবে না। কারণ অতিরিক্ত মাংস খাওয়া আপনার বিপদ ডেকে আনতে পারে। তাই শরীর সুস্থ রাখতে নিয়ন্ত্রণের মধ্যে থেকেই খেতে হবে মাংস।

কোরবানির ঈদের ঘোরাঘুরি তো আছেই, তারচেয়েও বড় খাওয়াদাওয়া। কোরবানির মাংস দিয়ে তৈরি নানা পদের নানা স্বাদের খাবারে লোভ সামলানোই দায়। কিন্তু তাই বলে চোখ বুঝে শুধু খেয়ে গেলেই হবে না। কারণ অতিরিক্ত মাংস খাওয়া আপনার বিপদ ডেকে আনতে পারে। তাই শরীর সুস্থ রাখতে নিয়ন্ত্রণের মধ্যে থেকেই খেতে হবে মাংস।

তবে যারা বিভিন্ন ধরনের রোগে ভুগছেন, বিশেষ করে হৃদরোগে, তাদের কোরবানির গরুর মাংস খাওয়ার ক্ষেত্রে সতর্কতা জরুরি। কারণ, প্রাণিজ আমিষ বিশেষ করে রেড মিট বা লাল মাংসে থাকে প্রচুর স্যাচুরেটেড ফ্যাট, যা হৃদরোগ বা স্ট্রোক হওয়ার ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়।

এ ফ্যাট শরীরের আর্টারিগুলোর দেয়ালে প্লাকের সৃষ্টি করে এবং রক্তনালিগুলোর ভেতরে জমা থেকে রক্ত সঞ্চালনের মাত্রা কমিয়ে দেয়। ফলে রক্তচাপ বেড়ে যায়।

পাশাপাশি লাল মাংস শরীরের কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। তাই হৃদরোগে আক্রান্ত রোগীর জন্য অতিরিক্ত চর্বিযুক্ত মাংস ক্ষতিকর। সেক্ষেত্রে এসব মাংস একটু কম পরিমাণে খেলে ভালো হয়।

হৃদরোগ যাদের আছে তারা মাংস খেলেও পরে প্রচুর পানি পান করতে হবে। পাশাপাশি শারীরিক পরিশ্রমও করতে হবে। বাড়াতে হবে হাঁটার পরিমাণ।

Free Download WordPress Themes
Download Premium WordPress Themes Free
Free Download WordPress Themes
Download Premium WordPress Themes Free
free online course