জাতীয় Archives - Page 4 of 27 - Dhaka Today

imran-h-sarkar_5201.jpg

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এমপি প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করতে যাচ্ছেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার।

মঙ্গলবার (১৩ নভেম্বর) গণমাধ্যমকে এ কথা জানান তিনি।

যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে গড়ে উঠা গণজাগরণ মঞ্চের এই মুখপাত্র জানান, এলাকাবাসীর অনুরোধ ও আগ্রহের বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করে খুব শিগগিরই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাবেন তিনি।

তিনি বলেন, স্থানীয় মুরব্বী ও এলাকার মানুষেরা অনেকদিন ধরেই নির্বাচনে অংশ নিতে উৎসাহ দিয়ে আসছিলেন। এলাকাবাসী চাইছেন নির্বাচন করি। তাদের সবার সাথে আলোচনা করে ও সব পরিস্থিতি বিবেচনা করে দু-একদিনের ভিতরই তিনি তার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবো।

উল্লেখ্য, ১২ নভেম্বর (সোমবার) দুপুরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের নতুন তফসিল ঘোষণা করেন। নতুন তফসিলে ভোটগ্রহণ হবে ৩০ ডিসেম্বর। মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ২৮ নভেম্বর।

pmlets-talk.jpg

স্থগিত করা হয়েছে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) আয়োজিত ‘লেটস টক উইথ ইয়ুথ’ অনুষ্ঠানটি।

মঙ্গলবার (১৩ নভেম্বর) প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং থেকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। সূচি অনুযায়ী ১৬ নভেম্বর এটি হওয়ার কথা ছিল।

প্রথমবারের মতো তরুণদের সঙ্গে দেশ ভাবনা নিয়ে সরাসরি কথা বলার কথা ছিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে এর আয়োজন করেছে গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই)।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদকে নিয়ে এর আগে বেশ কয়েকবার লেটস টক আয়োজন করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার বাংলাদেশের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারনী পর্যায়ে থাকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে আয়োজন করা হয়েছি ‘লেটস টক’। তরুণদের জন্য এটি ভিন্নমাত্রার এক আয়োজন।

মূলত সম্প্রতি দেশের ২১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এক হাজার ৮৬ শিক্ষার্থীর ওপর চালানো ‘কল রেডি’ নামের একটি সংগঠনের এক জরিপে উঠে আসে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সন্তুষ্ট দেশের ৬৮.৩ শতাংশ শিক্ষিত তরুণ ভোটার। তাদের ৫১.৩ শতাংশ চায় বর্তমান সরকার আবার ক্ষমতায় আসুক। এছাড়া ৫৩.৫ শতাংশ তরুণ মনে করে আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু হবে।

kha123g.jpg

বিএনপি একইসঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলীয় জোটে যুক্ত থাকায় আসন ভাগাভাগি নিয়ে দেখা দিয়েছে নতুন চ্যালেঞ্জ। একই সঙ্গে ঐক্যফ্রন্টের রয়েছে নতুন জোট হিসেবে ভোটাদের মন জয় করার চ্যালেঞ্জও। সব সমস্যার সুষ্ঠু সমাধান ও আসন্ন নির্বাচনে জয়ের লক্ষ্য নিয়েই ইশতেহার তৈরি করতে কমিটি গঠন করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। এ নির্বাচনী ইশতেহারে তরুণ ভোটাদের আকৃষ্ট করাসহ থাকছে বেশ কিছু চমক।

মঙ্গলবার রাজধানীর মতিঝিলে ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জরুরি বৈঠকে ইশতেহার তৈরি করতে ৬ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন হয়েছে। ঐক্যফ্রন্টের দায়িত্বশীল দুই নেতা জানিয়েছেন, ইশতেহার তৈরির কমিটিতে বিএনপি থেকে মাহফুজ উল্লাহ, গণফোরাম থেকে আ ও ম শফিক উল্লাহ, নাগরিক ঐক্য থেকে ডা. জাহেদ উর রহমান, জেএসডি থেকে শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের অধ্যক্ষ ইকবাল সিদ্দিকী এবং ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী আছেন।

জোটের একাধিক নেতা জানান, বিএনপি ইতোমধ্যেই ভিশন ২০৩০ ঘোষণা করেছে। এই ভিশনকে সামনে রেখেই ইশতেহার প্রণয়নে বসবে কমিটি। এছাড়া, আরও বিভিন্ন উপায় অবলম্বন করে মানুষের সামনে একটি দায়িত্বশীল ও তরুণদের আগ্রহী করে তোলে, এমন ইশতেহারই ফ্রন্টের লক্ষ্য বলে জানান তারা।

২০১৭ সালের ১০ মে আধুনিক ও উন্নত বাংলাদেশ গড়তে ৩৭টি বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে ‘ভিশন-২০৩০’ ঘোষণা করেছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া। বিএনপির এবারের নির্বাচনী ইশতেহার তৈরি হচ্ছে সেই আলোকেই। তবে বিএনপির এই ইশতেহারে নবগঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ৭ দফা দাবি ও ১১ লক্ষ্যের প্রতিফলনও থাকছে বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, গত ১৩ অক্টোবর আত্মপ্রকাশের দিন ৭ দফা দাবি ও ১১ দফা লক্ষ্য ঘোষণা করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। অপরদিকে, বিএনপির ইশতেহারেও ঐক্যফন্ট্রের ১১ লক্ষ্য থাকতে পারে বলে জানিয়েছেন দলটির দুই ভাইস-চেয়ারম্যান। তারা বলেন, আমরা দুই ধরনের ইশতেহার তৈরিতে হাত দিয়েছি। প্রয়োজনে সংযোজন, সংশোধন বা কর্তন করা হবে। তবে ইশতেহারে বেশিরভাগই রয়েছে আওয়ামী লীগ সরকারের ব্যর্থ প্রকল্পগুলোকে সফল করার প্রতিশ্রুতি।

দলের ঘনিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচনী ইশতেহার তৈরি করতে জাতীয়তাবাদী ঘরানার দক্ষ সাবেক আমলা, আইন বিশেষজ্ঞ, পুলিশের সাবেক কর্মকর্তা, সেনা, শিক্ষা, কৃষি, শিল্প, পরিবেশ গবেষণা, বেসরকারি বিনিয়োগ, শিল্পায়ন, পোশাক খাত, শ্রমবাজার উন্নয়ন, বৈদেশিক সম্পর্ক বিষয়ে অভিজ্ঞ ব্যক্তিদের মতামত নিয়ে একটি খসড়া ইশতেহার তৈরির কাজ চলছে। যা আরো যাচাই-বাছাই করে চূড়ান্ত করা হবে।

ইশতেহারে নতুন ধারার সরকারের পরিকল্পনা সামনে রেখে প্রশাসন ও বিচার বিভাগের দলীয়করণের অবসানের বিষয়ে বলা হয়েছে। এছাড়া বিভক্তি ও বিভাজনের রাজনীতি পরিবর্তনে অহিংস নীতি গ্রহণের সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়া হবে খসড়া নির্বাচনী ইশতেহারে। তবে নির্বাচনী স্লোগান কি হবে তা এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি।

ইশতেহার তৈরির সঙ্গে যুক্ত এমন এক নেতা জানান, একসঙ্গে নির্বাচন করলে অবশ্যই ওই লক্ষ্যগুলোর সঙ্গে সমন্বয় করে ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহার তৈরি হবে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এ নেতা বলেন, ভিশন-২০৩০ নামের এক রূপকল্পে ৩৭টি বিষয় বা ইস্যুতে মোট ২৫৬ দফা প্রতিশ্রুতি ঘোষণা করে বিএনপি। এরমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর একক ক্ষমতা কমিয়ে সরকারের নির্বাহী ক্ষমতায় ভারসাম্য আনা এবং দ্বিকক্ষ বিশিষ্ট সংসদ প্রতিষ্ঠাসহ ইতিবাচক অনেক বিষয়ের কথা উল্লেখ করা হয়।

গত ১৩ অক্টোবর বিএনপির সঙ্গে অন্য ৩টি দলের সমন্বয়ে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ঘোষিত ১১ দফা লক্ষ্য পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, রাষ্ট্রপতি ও প্রধামন্ত্রীর মধ্যে ক্ষমতার ভারসাম্য আনা, প্রশাসন বিকেন্দ্রীকরণ ও ন্যায়পাল নিয়োগ, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জাতীয় ঐকমত্য গঠনসহ আরো অনেক প্রতিশ্রুতি রয়েছে। এসব প্রতিশ্রুতি থাকছে বিএনপির ইশতেহারেও। এছাড়া পোশাক কর্মীদের আলাদা বেতন কাঠামো, কর্মপরিবেশ এবং নিরাপত্তা বিষয়গুলো গুরুত্ব দেয়া হবে।

bakkor-01-20181113164931.jpg

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বন্দরনগরী চট্টগ্রামের সবচেয়ে প্রেস্টেজিয়াস কোতোয়ালি (চট্টগ্রাম-৯) আসনে নগর বিএনপির দুই শীর্ষ নেতা ধানের শীষ প্রত্যাশা করছেন। যদিও দুজনই গ্রেফতার হয়ে বর্তমানে তারা কারাগারে রয়েছেন।

মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাৎ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন বক্করের পক্ষে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির দলীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করা হয়েছে।

একই আসন থেকে দুজনের পক্ষে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাৎ হোসেনের একান্ত সহকারী মারুফুল হক এবং সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন বক্করের একান্ত সচিব এস এম শহীদ ইকবাল।

যদিও এর আগে কোতোয়ালি আসনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান নির্বাচন করতেন। কিন্তু এবার তিনি চট্টগ্রাম-১০ আসন থেকে মনোনয়ন চাইছেন।

গ্রেফতারের আগে চট্টগ্রাম-৯ (কোতোয়ালি) আসন থেকে নির্বাচনের আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাৎ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন বক্কর দুজনই।

ওই সময় বিএনপির সভাপতি শাহাদাত হোসেন বলেছিলেন, ‘কোতোয়ালি-বাকলিয়া আমার এলাকা। এ আসনে নির্বাচন করার জন্য দীর্ঘদিন ধরে প্রস্তুতি নিয়েছি। দল যদি নির্বাচনে যায় আমি এখান থেকে নির্বাচন করবো, তা নিশ্চিত। ২০০৮ সালের নির্বাচনে ম্যাডাম আমাকে এ আসন থেকে নির্বাচন করতে বলেছিলেন। কিন্তু পরবর্তীতে মেয়র নির্বাচন করার জন্য প্রার্থী হইনি। দীর্ঘ ৩২ বছরের রাজনৈতিক জীবনে দল-মত-নির্বিশেষে সবার সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে। কোতোয়ালি-বাকলিয়া বিএনপির দুর্গ। এ আসনে আগামী নির্বাচনে ধানের শীষই বিজয়ী হবে।’

নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম বক্কর বলেছিলেন, ‘বিএনপি একটা বড় রাজনৈতিক দল। বিএনপি নির্বাচনের জন্য সবসময় প্রস্তুত। এর আগে দাবি হচ্ছে বিএনপি নেত্রীর মুক্তি। তারপর আমরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। অতীতের মতো চট্টগ্রাম-৯ আসনে বিএনপি জয়ী হবে বলে আশা করছি। যদি দল চায় তাহলে এ আসন থেকে আমি নিজেও নির্বাচন করতে প্রস্তুত।’

bakkor

তবে স্থানীয় নেতাকর্মীরা মনে করছেন, নগরের শীর্ষ দুই নেতা একই আসনে নির্বাচন করতে চাওয়ায় তারা দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছেন। এ আসনে জিততে হলে অবশ্যই দলকে একটি সিদ্ধান্তে আসতে হবে।

চট্টগ্রামে একটি প্রবাদ চালু আছে, ‘কোতোয়ালি আসনে যারা জেতে, তারাই সরকার গঠন করে।’ স্বাধীনতার পর থেকে এ ঘটনার পুনরাবৃত্তি চলছে। চট্টগ্রাম–৯ সংসদীয় আসনটি সিটি কর্পোরেশনের ৫, ১৬, ১৭, ১৮, ১৯, ২০, ২১, ২২, ২৩, ৩১, ৩২, ৩৩, ৩৪ ও ৩৫ নম্বর ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত। এ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা দুই লাখ ৩৯ হাজার ৯১৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৩০ হাজার ১৪৭ এবং মহিলা ভোটার এক লাখ নয় হাজার ৭৬৭ জন।

ইতোমধ্যে এ আসনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের পক্ষে সবচেয়ে বেশি ২৬ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। এর মধ্যে রয়েছেন চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি ও তার ছেলে মুজিবুর রহমান, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুলের মতো হেভিওয়েট প্রার্থীরা।

তবে শেষপর্যন্ত জাতীয় পার্টি মহাজোট থেকে নির্বাচনে অংশ নিলে এ আসন থেকে মনোনয়ন চাইবেন বর্তমান সংসদ সদস্য জিয়াউদ্দীন আহমেদ বাবলু। জোটের বাইরে গিয়ে জাতীয় পার্টি এককভাবে নির্বাচনে অংশ নিলে তার জন্যও প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে দলটি। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ চট্টগ্রাম সফরে এসে বর্তমান সংসদ সদস্য জিয়া উদ্দীন আহমেদ বাবলুকে এ আসনে দল থেকে মনোনয়ন দেয়ার ঘোষণা দেন।

তবে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বলছেন, বর্তমান সরকারের দুই মেয়াদে বেশ কয়েকটি ফ্লাইওভার, লিংক রোড, সড়ক প্রশস্ত করাসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে। তাই এবার চট্টগ্রাম নগরে কোনো ছাড় নয়। তারা মনে করছেন, উন্নয়নের এ জোয়ারে নগরের সব আসনেই আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করা সম্ভব। এবার আর দলের বাইরের কাউকে নগরের গুরুত্বপূর্ণ আসনটি ছেড়ে দেয়া ঠিক হবে না।

mash01-20181113114157.jpg

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তিনি নিজ এলাকা নড়াইল-২ আসনে নির্বাচন করবেন বলে জানা গেছে। এই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে আরও ১৫ জন মনোনয়নপত্র কিনেছেন।

এরা হলেন- নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান নিলু, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ আইয়ুব আলী, এসএম আসিফুর রহমান বাপ্পী, লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা লে.কর্নেল (অব.) সৈয়দ হাসান ইকবাল, ব্যবসায়ী বাসুদেব ব্যানার্জী, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুব ও ক্রীড়া উপ-কমিটির সদস্য শেখ মো. আমিনুর রহমান হিমু, কেন্দ্রীয় মহিলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শারমীন সুলতান শর্মী, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. রাশিদুল বাশার ডলার, আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ উপ-কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট শেখ মো. তরিকুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এস কে আবু বাকের, সাবেক ছাত্রনেতা হাবিবুর রহমান তাপস, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য হাসানুজ্জামান, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শেখ মো. নূরুজ্জামান, লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মুন্সী কামরুজ্জামান কাজল ও আওয়ামী লীগ নেতা মো. সুজন রহমান।

এছাড়াও বর্তমান সংসদ সদস্য ও ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা কমিটির সভাপতি শেখ হাফিজুর রহমান দলীয় মনোনয়ন নিয়েছেন। তিনি ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে মহাজোটের শরীক হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে এই আসনে জয়ী হন। তবে তিনি নড়াইলের সাধারণ মানুষের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পারেননি।

মাশরাফির বাড়ি নড়াইল শহরে। তিনি দর্শনশাস্ত্রে ভর্তি হন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে। কিন্তু ক্রিকেট নিয়ে ব্যস্ততার কারণে পড়াশোনা শেষ করতে পারেননি। ২০০১ সালের ৮ নভেম্বর টেস্ট ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক তার। গত ১৭ বছরে প্রতিভা, বুদ্ধি, অদম্য সাহস আর সাফল্য দিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেটে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন উজ্জ্বল নক্ষত্র হিসেবে। দেশের সবচেয়ে সফল এই অধিনায়কের নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো উঠেছে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে, চ্যাম্পিয়নস ট্রফির সেমি ফাইনালে। দুবার খেলেছেন এশিয়া কাপের ফাইনাল। শুধু সফল অধিনায়কই নন, ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারিও (২৫০) তিনি।

‘নড়াইল এক্সপ্রেস’খ্যাত মাশরাফির নড়াইলে বেশির ভাগ সময় কাটে সেই সব বন্ধুর সঙ্গে যারা সমাজে সুবিধাবঞ্চিত। এলাকার উন্নয়নে সম্প্রতি গড়ে তুলেছেন ‘নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন’। এই ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান তিনি নিজেই। কোষাধ্যক্ষ নড়াইল প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মির্জা নজরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, নড়াইলে দলমত-নির্বিশেষে মাশরাফি সব মহলে জনপ্রিয় ও গ্রহণযোগ্য ব্যক্তি। আমাদের বিশ্বাস, তিনি নির্বাচন করলে প্রতিদ্বন্দ্বী থাকবে না। মাশরাফির স্বপ্ন, পুরো নড়াইলকে একদিন বদলে দেবে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন।

নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার পর মাশরাফির বাবা গোলাম মুর্তজা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশেই প্রার্থী হয়েছেন মাশরাফি। এ দায়িত্ব মাশরাফি ভালোভাবে পালন করতে পারবে বলে প্রধানমন্ত্রীর মতো আমিও বিশ্বাস করি।

নড়াইল সদরের ৬টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা এবং লোহাগড়া উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে নড়াইল-২ আসন গঠিত। এখানে মোট ভোটার ২ লাখ ৭২ হাজার ১৫৮।

dmp-commissioner.jpg

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দায়িত্ব পালনের সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার না করতে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।
সোমবার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) সদর দফতরে মাসিক অপরাধ সভায় কমিশনার এসব নির্দেশনা দিয়েছেন। এছাড়া দায়িত্ব পালনের সময় বুলেটপ্রুপ হেলমেট, লেগ গার্ড ও রাইট গিয়ার সামগ্রী বাধ্যতামূলকভাবে ব্যবহার করতে বলেছেন আছাদুজ্জামান মিয়া।
সভায় নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনকারীদের কোন ছাড় না দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন কমিশনার। মনোনয়ন ফর্ম ক্রয়ের সময় নেতাকর্মীরা সঙ্গে যেতে পারবেন- উল্লেখ করে তিনি উপস্থিত কর্মকর্তাদের বলেছেন, ওই সময় শোভাযাত্রা করতে দেওয়া হবে না। পোস্টার, ফেস্টুন নামিয়ে ফেলতে নির্বাচন কমিশন সিটি কর্পোরেশনকে চিঠি দিয়েছে। তারপরও যদি কাজ না হয়, তাহলে সমন্বয় করে ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন নামিয়ে ফেলতে থানা পুলিশকে নির্দেশনা দিয়েছেন কমিশনার। অবাধ সুষ্ঠু ভোটের জন্য নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা মেনেই সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে।

dt008709.jpg

‘একতরফা নির্বাচন’ অনুষ্ঠানের ফাঁদে পা না দিয়ে আন্দোলনের অংশ হিসেবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট।আজ মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর পল্টনে মুক্তি ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এই জোট নির্বাচনে অংশ নেওয়ার কথা জানায়।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য বাম জোটসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের উত্থাপিত দাবির বিষয়ে কোনো সমাধান না করে নির্বাচন কমিশন তফসিল ঘোষণা করেছে। একে ‘একতরফা নির্বাচনের জন্য সরকারের ফাঁদ’ বলে জনমনে ধারণার সৃষ্টি হয়েছে। তাই সেই ফাঁদে পা না দিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে গণতান্ত্রিক জোট।

সংবাদ সম্মেলনে সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, ‘নির্বাচনে অংশ নেওয়া মানে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে বলে মেনে নেওয়া নয়। অংশ নিচ্ছি সংগ্রামের পদ্ধতিগত অংশ হিসেবে।’

এক প্রশ্নের জবাবে মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, ২০১৪ সালে নির্বাচন না করার কারণ, তখন সেটা ছিল ‘নো’ নির্বাচন। আর এবারের নির্বাচন হচ্ছে ‘ব্যাড’। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করবে এই জোট। পরিস্থিতি দাবি করলে তাঁরা নির্বাচন বর্জনও করতে পারেন বলে জানান সেলিম।

বাম জোটের এই নেতা বলেন, বর্তমান সরকারের অধীনে অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব, তা দেশবাসী মনে করে না। এখন যে নির্বাচন হবে, তা অবাধ ও নিরপেক্ষ হবে না। ত্রুটিপূর্ণ নির্বাচন হবে। এ ছাড়া মনোনয়নপত্র কেনার সময়ে শোডাউন করে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। মনোনয়নপত্র বিক্রিতে কোটি টাকার ব্যবসা হয়েছে—উল্লেখ করে এতে ভ্যাট আদায় করা হয়েছে কি না, তা খতিয়ে দেখার আহ্বান জানান মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান সিপিবি সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম। আরও উপস্থিত ছিলেন বাম জোটের নেতা সাইফুল হক, বজলুর রশীদ ফিরোজ. আবদুস সাত্তার, হামিদুল হকসহ প্রমুখ।

oik0.jpg

একাদশ জাতীয় নির্বাচনের ইশতেহার তৈরির জন্য সরকারবিরোধী জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট একটি কমিটি গঠন করেছে। এই কমিটিতে এপর্যন্ত ছয় জনকে যুক্ত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৩ নভেম্বর) বেলা ১১টায় অনুষ্ঠিত ফ্রন্টের বৈঠকে এ কমিটি গঠন করা হয়।

ঐক্যফ্রন্টের দায়িত্বশীল দুই নেতা জানান, ইশতেহার তৈরির কমিটিতে বিএনপি থেকে মাহফুজ উল্লাহ, গণফোরাম থেকে আ ও ম শফিক উল্লাহ, নাগরিক ঐক্য থেকে ডা. জাহেদ উর রহমান, জেএসডি থেকে শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের অধ্যক্ষ ইকবাল সিদ্দিকী এবং ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী আছেন।

ফ্রন্টের একাধিক নেতা জানান, বিএনপি ইতোমধ্যেই ভিশন ২০৩০ ঘোষণা করেছে। এই ভিশনকে সামনে রেখেই ইশতেহার প্রণয়নে বসবে কমিটি। এছাড়া, আরও বিভিন্ন উপায় অবলম্বন করে মানুষের সামনে একটি দায়িত্বশীল ও তরুণদের আগ্রহী করে তোলে, এমন ইশতেহারই ফ্রন্টের লক্ষ্য বলে জানান এই নেতারা।

dt008708.jpg

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৪ আসন থেকে অংশ নিতে বিএনপির মনোনয়নপত্র কিনেছেন দলটির ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ও জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক আমিনুল ইসলাম।

আজ দুপুর পৌনে ১২টার দিকে দলের নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন তিনি।

সুষ্ঠু নির্বাচন হলে জয় শতভাগ নিশ্চিত বলে জানিয়ে সাবেক ফুটবলার আমিনুল বলেন, আমি ঢাকা-১৪ আসন থেকে দলীয় মনোনয়নপত্র কিনেছি। আশা করি, দল আমাকে মনোনয়ন দেবে।

dt008707.jpg

 

মঙ্গলবার আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের একথা জানান বিকল্পধারার যুগ্ম-মহাসচিব ও যুক্তফ্রন্ট নেতা মাহী. বি চৌধুরী।

এ সময় বিকল্পধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আব্দুল মান্নানও উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে দুপুর ১টার দিকে মান্নান ও মাহী বি. চৌধুরী আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে গিয়ে বৈঠক করেন। এ সময় তারা আওয়ামী জোটে অন্তর্ভুক্ত হয়ে নির্বাচন করার বিষয়ে আলোচনা করেন।

সূত্রের দাবি, সম্প্রতি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সভা শেষে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানান, বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে আওয়ামী লীগ ও ১৪ দল নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করবে। জোটে থাকলেও জাতীয় পার্টি তাদের প্রতীকে নির্বাচন করবে।

যুক্তফ্রন্টও আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোটের সঙ্গে নির্বাচন করতে পারে। সেক্ষেত্রে তারাও তাদের প্রতীকে নির্বাচন করবে বলেও জানান তিনি।

এর আগে যুক্তফ্রন্ট নেতা বি. চৌধুরী ড. কামালের নেতৃত্বে ঐক্য প্রক্রিয়ার একাধিক রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশ নেন। কিন্তু, শেষ মুহূর্তে তিনি ওই জোট থেকে বেরিয়ে আসেন। এরপরই সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ বৃদ্ধি করে।


About us

DHAKA TODAY is an Online News Portal. It brings you the latest news around the world 24 hours a day and 7 days in week. It focuses most on Dhaka (the capital of Bangladesh) but it reflects the views of the people of Bangladesh. DHAKA TODAY is committed to the people of Bangladesh; it also serves for millions of people around the world and meets their news thirst. DHAKA TODAY put its special focus to Bangladeshi Diaspora around the Globe.


CONTACT US

CALL US ANYTIME


Newsletter